মঙ্গলবার, জুলাই 23, 2024
spot_img

এটি ইরানের তৈরি কোনো অস্ত্র নয়

গত ১৯ এপ্রিল শর্ট ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম টিকটকে “ইরান বাবারে বাবা এইটা কি… জিনিস বের করল মাটির নিচ থেকে | #ইরানের_ভয়ংকর_তৈরিঅস্ত্র” শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছে।

ইরানের

উক্ত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। 

এই প্রতিবেদন  প্রকাশ হওয়া অবধি ভিডিওটি ৫ লক্ষ ৭৩ হাজারেরও অধিক বার দেখা হয়েছে। প্রায় ৪৪ হাজার পৃথক অ্যাকাউন্ট থেকে ভিডিওটিতে প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ভিডিওটিতে উল্লিখিত বস্তুটি ইরানের কোনো অস্ত্র নয়, বরং সৌদি আরবের LPG গ্যাস সংরক্ষণের জন্য ব্যবহৃত Mounded Bullet Tank এর দৃশ্যকে আলোচিত দাবিতে প্রচার করা হয়েছে। 

অনুসন্ধানের প্রাথমিক পর্যায়ে উক্ত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। ভিডিওটিতে দেখানো বস্তুটির গায়ে ZAMIL STEEL ও GASCO এর স্টিকার দেখতে পাওয়া যায়৷ 

Collage: Rumor Scanner

ভিডিওটি থেকে একাধিক স্ক্রিনশট নিয়ে রিভার্স ইমেজ সার্চ করলে Zamil Industrial নামের ইউটিউব চ্যানেলে কাছাকাছি একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

ভিডিওটির শিরোনামে Bullet Tank শব্দগুচ্ছ দেখতে পাওয়া যায়। এর সূত্র ধরে কিওয়ার্ড সার্চ করলে Zamil Industrial নামের ফেসবুক পেজেও একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়৷ পর্যবেক্ষণ করলে সেই ভিডিওটিতেও একই বস্তু লক্ষ্য করা যায়। ভিডিওটির ক্যাপশনে বলা হয়, সৌদি আরবের রিয়াদে অবস্থিত National Gas and Industrialization Company (GASCO) এর চূড়ান্ত জায়গায় Liquefied Petroleum Gas (LPG) এর সংরক্ষণের জন্য Mounded Bullet Tank এর লোডিং এবং ব্যাকফিলিং অপারেশনের প্রথম ধাপের কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। 

Screenshot: Facebook

এতে নিশ্চিত হওয়া যায় যে উক্ত Mounded Bullet Tank গুলো রিয়াদের GASCO কোম্পানির LPG গ্যাস সংরক্ষণের জন্য ব্যবহৃত হবে এবং এই কাজটি GASCO এর জন্য Zamil Industrial এর ZAMIL STEEL করেছে। উল্লেখ্য যে, Zamil Steel Holding এর মালিকানা Zamil Industrial Investment Co. এর অধীনে। 

অতঃপর GASCO এর সম্পর্কে অনুসন্ধান করলে জানা যায়, GASCO কোম্পানি পুরো সৌদি আরবে LPG (গ্যাস) বিক্রি, পরিবহন, বিতরণ ইত্যাদি কাজ করে থাকে। তাছাড়া তারা সিলিন্ডার গ্যাস বিক্রি, সরবরাহ ইত্যাদি কাজেও জড়িত। অধিকতর অনুসন্ধানে তাদের লিংকডইন পেজ থেকে জানা যায়, তাদের সদর দপ্তর সৌদি আরবের রিয়াদে অবস্থিত। 

এছাড়া, Zamil Steel সম্পর্কে অনুসন্ধান করে জানা যায়, তাদের কর্পোরেট সদর দপ্তর সৌদি আরবের দাম্মামে অবস্থিত এবং তাদের R&D কেন্দ্র সৌদি আরব ছাড়াও মিশর, ভারত ও ভিয়েতনামে আছে। অর্থাৎ, ইরানের সাথে তাদের কোনো গুরুত্বপূর্ণ উৎপাদন জাতীয় সম্পর্ক নেই৷ তবে, জামিল স্টিলের বিক্রি এবং মার্কেটিং অফিস পুরো বিশ্ব জুড়েই বিস্তৃত৷ 

অনুসন্ধানের পরবর্তী পর্যায়ে প্রচারিত ভিডিওটির মূল উৎসের অনুসন্ধান করলে আলোচিত ভিডিওটি পোস্টের প্রায় ছয় দিন পূর্বে অর্থাৎ ১৯ এপ্রিল তারিখে husnainkhan8559 ইউজারনেমের একটি টিকটক অ্যাকাউন্ট থেকে হুবহু একই ফ্রেমের ভিডিও পোস্ট হতে দেখা যায়৷ তবে, husnainkhan8559 এর পোস্টকৃত ভিডিওটি ১ মিনিট ৫ সেকেন্ডের হলেও ইরানের অস্ত্র দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি ২ মিনিট ৯ সেকেন্ডের। দুটি ভিডিও পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, প্রচারিত ভিডিওটি husnainkhan8559 এর পোস্টকৃত ভিডিও থেকে প্রায় ১ মিনিট দীর্ঘ হলেও দুটোতেই দেখানো উপাদান একই। তাছাড়া, প্রচারিত ভিডিওটি ধীরগতির বলে লক্ষ্য করা যায়৷ যা প্রমাণ করে যে প্রচারিত ভিডিওটিতে প্লেব্যাক স্পিড কমানো হয়েছে যে কারণে প্রায় ১ মিনিট দীর্ঘ হওয়া সত্ত্বেও বাড়তি কোনো কিছু দেখাতে সক্ষম হয় নি। দুটি ভিডিওর মধ্যে ফ্রেমের তুলনা করলেও দুটি যে একই ভিডিও এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যায়।

Comparison: Rumor Scanner

তবে, husnainkhan8559 এর পোস্টকৃত ভিডিওটির সাথে কোনো ক্যাপশন কিংবা লোকেশন পোস্ট করা হয় নি। তাই, ভিডিওটি কোন জায়গায় রেকর্ড করা তা কেবলমাত্র এই ভিডিওটি দেখে নিশ্চিত হওয়া সম্ভব নয়। এ কারণে husnainkhan8559 এর অন্যান্য ভিডিও ও ছবি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। উক্ত ভিডিওটি পোস্ট করার পরবর্তী এবং পূর্ববর্তী সময়ে উক্ত ব্যবহারকারীর নিজেকে ক্যামেরাতে ধারণ করা অন্যান্য ছবির ব্যাকগ্রাউন্ডে পবিত্র কাবা শরীফ ও মসজিদে নববী লক্ষ্য করা যায়, যা নিশ্চিত করে যে উক্ত টিকটক ব্যবহারকারী সৌদি আরবেই থাকেন। 

Screenshot : Tiktok

কিন্তু, প্রচারিত ভিডিওটির স্থলে অর্থাৎ গ্যাস সংরক্ষণের জন্য ব্যবহৃত ট্যাঙ্ক পরিবহনের স্থলে তিনি কীভাবে পৌঁছালেন তা জানতে তার অন্যান্য ছবি ও ভিডিও বিশ্লেষণ অব্যাহত রাখে রিউমর স্ক্যানার টিম৷ গত ১৭ ফেব্রুয়ারী তারিখে Gasco এর স্টিকার সমৃদ্ধ একটি Mounded Bullet Tank এর সামনে তাকে শ্রমিকের পোশাক পরিহিত ১৯ জন শ্রমিক ও স্বাভাবিক পোশাক পরিহিত একজনসহ মোট ২০ জনের একটি ছবি পোস্ট করতে দেখা যায়৷ কিন্তু, সেই ছবিতে husnainkhan8559 ছিলেন কি না তা বুঝা সম্ভব হয় নি। 

Screenshot : Tiktok

তিনি হয়তো Gasco এর প্রজেক্টেই কাজ করেন বলেই প্রাথমিকভাবে ধরে নেওয়া হয়৷ কিন্তু, এটি প্রমাণে আরো অকাট্য প্রমাণের জন্য অনুসন্ধান অব্যাহত রাখা হয়৷ অবশেষে, তার টিকটক অ্যাকাউন্টেই ১৭ ফেব্রুয়ারি, গত বছরের ৩০ নভেম্বর এবং ২ নভেম্বর তারিখে শ্রমিকের পোশাক পরিহিত অবস্থায় তার তিনটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়৷ তার পোশাকে তার কর্মস্থল কোম্পানির নাম লেখা থাকলেও সেলফি ভিডিও হওয়ার কারণে তা পড়া সম্ভব হচ্ছিলো না৷ তার সবচেয়ে পরিষ্কার ভিডিও থেকে স্ক্রিনশট নিয়ে মিরর করলে দেখা যায় যে husnainkhan8559 এর কর্মক্ষেত্র কোম্পানির নাম FTE Logistics. 

Mirrored : Rumor scanner   

এ পর্যায়ে FTE Logistic, Zamil Industrial এবং Gasco এর মধ্যকার সম্পর্ক খুঁজে বের করতে কি-ওয়ার্ড অনুসন্ধান করা হয়। অনুসন্ধানে এ বিষয়ে ২০২১ সালের ৬ সেপ্টেম্বরের একটি সংবাদ পাওয়া যায়। প্রতিবেদন থেকে জানা যায় যায় যে, সৌদি আরবে রেকর্ড গড়া পরিমাণ পরিবহন কাজ করেছে FTE Logistics. একই রিপোর্টে এও পাওয়া যায়, রিয়াদে GASCO এর LPG সম্প্রসারণ প্রজেক্টে FTE Logistics কে Zamil Industrial চুক্তিবদ্ধ করে। Mounded Bullet Tank পরিবহন ও স্থাপনের বিষয়েও একই প্রতিবেদনে  উল্লেখ করা হয়েছে। 

অতঃপর, FTE Logistics সম্বন্ধে অনুসন্ধান করলে জানা যায় যে প্রতিষ্ঠানটি ১৯৯৮ সাল থেকেই পরিবহন শিল্পে আছে। তাছাড়া, তাদের ওয়েবসাইটের হোম পেজেও Mounded Bullet Tank এর ছবি দেখতে পাওয়া যায় যার উপর

Screenshot : FTE Logistics

অর্থাৎ, husnainkhan8559 এর কর্মরত কোম্পানিই এইসব Mounded Bullet Tank পরিবহনের কাজে নিয়োজিত এবং তিনি এর একজন শ্রমিক হিসেবে পরিবহন চলাকালীন সময় ভিডিও করার সুযোগ পেয়েছিলেন। তাছাড়া, এসব Tank যে LPG গ্যাসের সংরক্ষণের কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে এ বিষয়েও নিশ্চিত হওয়া যায়।

মূলত, husnainkhan8559 নামের একজন টিকটক ব্যবহারকারী আলোচিত দাবির ভিডিওটি কোনো ক্যাপশন বা শিরোনাম ছাড়াই নিজের অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেন৷ তিনি FTE Logistics কোম্পানির একজন কর্মী যারা পরিবহন শিল্পের কাজে নিয়োজিত। সৌদি আরবের LPG (গ্যাস) ও সিলিন্ডার গ্যাস সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান GASCO রিয়াদে তাদের LPG সম্প্রসারণ প্রজেক্টে LPG গ্যাস সংরক্ষণে ব্যবহৃত Mounded Bullet Tank এর পরিবহন সংক্রান্ত কাজে ও প্রজেক্টে কনস্ট্রাকশান শিল্পের কোম্পানি Zamil Industrial এর সাথে কাজ করে, যারা এই প্রজেক্টে FTE Logistics কোম্পানিকে পরিবহনের কাজে চুক্তিবদ্ধ করে। আর, এই FTE Logistics এরই একজন কর্মী গ্যাসের ট্যাঙ্ক পরিবহনের সময় ভিডিও তুলে টিকটকে পোস্ট করেন যা ইরানের ভয়ংকর অস্ত্র দাবিতে প্রচার করা হয়৷ আদতে, সেটি গ্যাস সংরক্ষণে ব্যবহৃত হওয়া ট্যাঙ্ক, কোনো অস্ত্র নয়।

সুতরাং, সৌদি আরবে গ্যাস সংরক্ষণে ব্যবহৃত হওয়া ট্যাঙ্কের দৃশ্যকে ইরানের তৈরি ভয়ংকর অস্ত্র দাবিতে প্রচার করা হয়েছে; যা মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img