শনিবার, জুলাই 20, 2024
spot_img

পিটার হাস কর্তৃক জাল ভোট হাতেনাতে ধরার ভুয়া তথ্য ইউটিউবে 

গত ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণের দিন ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম ইউটিউবে “জাল ভোট হাতেনাতে ধরলেন পিটার হাস ভোট কেন্দ্রে কুত্তা ছাড়া কোনো ভোটার নেই” শীর্ষক শিরোনাম এবং থাম্বনেইলে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছে।

জাল ভোট

ইউটিউবে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। 

এই প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়া অবধি ভিডিওটি প্রায় ৬৯ হাজার বার দেখা হয়েছে। ভিডিওটিতে প্রায় সাড়ে ২ হাজার ৪০০ পৃথক অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাস কর্তৃক দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলাকালীন জাল ভোট হাতেনাতে ধরা বিষয়ক কোনো ঘটনা ঘটেনি বরং কোনো প্রকার নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র ছাড়াই ভিন্ন ভিন্ন একাধিক ভিডিও ক্লিপের সাথে উক্ত দাবি সম্বলিত শিরোনাম ও থাম্বনেইল যুক্ত করে আলোচিত ভিডিওটি প্রচার করা হয়েছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। উক্ত ভিডিওটিতে কোথাও মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাসকে দেখা যায়নি। তাছাড়া ভিডিওতে বিদেশি পর্যবেক্ষককদের ভোটকেন্দ্র পর্যবেক্ষণ করতে দেখা গেলেও সেখানে জাল ভোট ধরার কোনো দৃশ্য দেখা যায়নি। 

ভিডিওতে থাকা দাবিটি নিয়ে অনুসন্ধানে মূলধারার গণমাধ্যম কিংবা সংশ্লিষ্ট অন্যকোনো নির্ভরযোগ্য সূত্রে এরূপ কোনো দাবির সত্যতা পাওয়া যায়নি।

পরবর্তীতে উক্ত ভিডিওটিতে দেখানো ভিন্ন ভিন্ন ভিডিও ক্লিপের বিষয়ে পৃথকভাবে অনুসন্ধান চালায় রিউমর স্ক্যানার টিম।

ভিডিও যাচাই – ০১ ও ০২

অনুসন্ধানে দেখা যায় আলোচিত ভিডিওটিতে যুক্ত প্রথম দুটি ভিডিও ক্লিপই গত ৭ জানুয়ারি বিদেশি পর্যবেক্ষকদের ভোটকেন্দ্র পরিদর্শনের বিষয়ে মূলধারার গণমাধ্যম এনটিভি ও কালবেলা’য় প্রকাশিত ভিডিও প্রতিবেদন (,) থেকে নেওয়া। 

Video Comparison : Rumor Scanner 
Video Comparison : Rumor Scanner 

উক্ত ভিডিও দুটি থেকে জানা যায়, গত ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ এর বিষয়টি সার্বিকভাবে পর্যবেক্ষণ করতে বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র ঘুরে দেখেন বিদেশি পর্যবেক্ষকরা। তবে ভিডিওগুলোর কোথাও ভোটগ্রহণ চলাকালীন জাল ভোট ধরার কোনো দৃশ্য কিংবা তথ্যের অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। 

ভিডিও যাচাই – ০৩ 

আলোচিত ভিডিওটির পরবর্তী অংশে ব্যালট পেপারের একটি দৃশ্য দেখানো হয়। উক্ত ভিডিও ক্লিপটির বিষয়ে অনুসন্ধানে BNP Media Cell এর ফেসবুক পেজে গত ৭ জানুয়ারি একই ভিডিওটি খুঁজে পাওয়া যায়। 

Video Comparison : Rumor Scanner 

পরবর্তীতে ভিডিওটির বিষয়ে অনুসন্ধানে দ্য বিসনেস স্ট্যান্ডার্ড এর বাংলা সংস্করণে গত ৭ জানুয়ারি “নরসিংদীতে ব্যালট ছিনতাইয়ের চেষ্টা, এক কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ বাতিল” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। উক্ত প্রতিবেদনে দেখানো স্থিরচিত্রের সাথে আলোচিত ভিডিওতে থাকা দৃশ্যের মিল পাওয়া যায়। 

ভিডিওটির বিষয়ে উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, গত ৭ জানুয়ারি ভোটগ্রহণ শুরুর পূর্বে নরসিংদী-৪ (মনোহরদী ও বেলাবো) আসনের একটি ভোটকেন্দ্রে স্থানীয় ৮-১০ জন ব্যক্তি ইব্রাহিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ঢুকে জোরপূর্বক প্রিজাইডিং অফিসারের কাছ থেকে ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে এবং কয়েকটি ব্যালটে নৌকা প্রতীকে সিলও মারে। এই ঘটনায় ঐ কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ বাতিল করা হয়।

তবে ভিডিওটির কোথাও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার হাসের জাল ভোট ধরার কোনো দৃশ্য দেখা যায়নি। 

মূলত, গত ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত ভোটগ্রহণে দেশের কয়েক আসনের বেশকয়েকটি কেন্দ্রে অনিয়মের ঘটনা গণমাধ্যমে উঠে ঘটনা ঘটে। এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি ‘জাল ভোট হাতেনাতে ধরলেন পিটার হাস ভোট কেন্দ্রে কুত্তা ছাড়া কোনো ভোটার নেই’ শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে। তবে রিউমর স্ক্যানার যাচাই করে দেখেছে গত ০৭ জানুয়ারির নির্বাচনেমার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার হাস কর্তৃক জাল ভোট হাতেনাতে ধরার কোনো ঘটনা ঘটেনি এবং উক্ত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওর কোথাও স্বপক্ষে কোনো তথ্যপ্রমাণ উপস্থাপন করা হয়নি। প্রকৃতপক্ষে অধিক ভিউ পাওয়ার আশায় চটকদার থাম্বনেইল এবং শিরোনাম ব্যবহার করে আলোচিত দাবিটি প্রচার করা হচ্ছে। 

সুতরাং, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার হাস কর্তৃক হাতেনাতে জাল ভোট ধরার দাবিতে ইন্টারনেটে একটি তথ্য প্রচার করা হচ্ছে ; যা মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img