শনিবার, এপ্রিল 13, 2024
spot_img

ইইউ পার্লামেন্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে স্যাংশন পাশ করেনি

সম্প্রতি, “ইইউ পালামেন্টে হাসিনার বিরুদ্ধে স্যাংশন পাশ!” শীর্ষক শিরোনামে ইউটিউবে একটি ভিডিও প্রচার করা হচ্ছে।

শেখ হাসিনা
YouTube Screenshot

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে জানা যায়, ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) পার্লামেন্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে কোনো স্যাংশন পাশ করে নি বরং, নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্নার বক্তব্যের একটি ভিডিওকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ইইউ এর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার দাবিতে প্রচারিত হচ্ছে। 

অনুসন্ধানের শুরুতেই ১২ মিনিট ৭সেকেন্ডের আলোচ্য ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্নাকে বলতে শোনা যায়, “প্রিয় দেশবাসী, আসসালামু আলাইকুম। আজকাল এই প্রশ্নটা একেবারেই কমন হয়ে গেছে, সবাই জিজ্ঞেস করেন যে ভাই কি হচ্ছে? তারপরও ভেতরে কিছু একটা হচ্ছে যেটা আমরা দেখিই না যেটা ভাবে সবাই…”

পরবর্তীতে উক্ত ভিডিওর মূল উৎস অনুসন্ধানে ২০২৩ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্নার ফেসবুক পেজে পোস্টকৃত একটি ভিডিও খুঁজে পায় রিউমর স্ক্যানার টিম। 

উক্ত ভিডিওর বক্তব্যের সাথে ইউটিউবে প্রচারিত ভিডিওটির বক্তব্যের হুবহু মিল খুঁজে পাওয়া যায়। ভিডিওটি বিশ্লেষণে আরও দেখা যায়, মাহমুদুর রহমান মান্নার ফেসবুক পেজে পোস্টকৃত ভিডিওর শুধুমাত্র ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করে মূল বক্তব্য অপরিবর্তিত রেখে “ইইউ পালামেন্টে হাসিনার বিরুদ্ধে স্যাংশন পাশ!” শীর্ষক থাম্বনেইলে প্রচার করা হচ্ছে।

Source: Mahmudur Rahman Manna Facebook Page

তবে উক্ত ভিডিওতে মাহমুদুর রহমান মান্নার বক্তব্যে এমন কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায় নি যা আলোচিত ভিডিওর থাম্বনেইল এবং শিরোনামে থাকা তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে। 

এছাড়াও, কি ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে, জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম কিংবা নির্ভরযোগ্য কোনো সূত্র থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ইইউ পার্লামেন্টের নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

তবে, কি ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে জাতীয় দৈনিক প্রথম আলোর ওয়েবসাইটে ২০২৩ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর “ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রস্তাবে বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ” শীর্ষক শিরোনাম প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পায় রিউমর স্ক্যানার টিম। 

উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ইউরোপীয় ইউনিয়ন পার্লামেন্টের এক যৌথ প্রস্তাবে বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতির অবনতিতে গভীর উদ্বেগ জানানো হয়। প্রস্তাবে নাগরিক ও রাজনৈতিক অধিকার চর্চার বিষয়ে আন্তর্জাতিক চুক্তি অনুসরণের আহ্বান জানায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

Source: প্রথম আলো

বিষয়টির অধিকতর সত্যতা যাচাইয়ের উদ্দেশ্যে অনুসন্ধানে, ইউরোপীয় ইউনিয়ন পার্লামেন্টের ওয়েবসাইটে ২০২৩ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত “Human rights breaches in Guatemala, Azerbaijan and Bangladesh” শীর্ষক শিরোনামের একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বাংলাদেশের মানবাধিকার বিষয়ক পরিস্থিতিতে গভীর উদ্বেগ জানিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নে রেজুলেশন পাশ করা হয়। বাংলাদেশ ছাড়াও গুয়াতেমালা এবং আজারবাইজানের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করে ইউরোপীয় ইউনিয়ন পার্লামেন্টে রেজুলেশন পাশ করা হয়েছে বলে উক্ত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। কিন্তু, উক্ত প্রেস বিজ্ঞপ্তির কোথাও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে স্যাংশন পাশের বিষয়ে কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

Source: EU Parliament

মূলত, গত ১৪ই সেপ্টেম্বর ইউরোপীয় ইউনিয়ন পার্লামেন্ট বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতির বিষয়ে গভীর উদ্বেগ জানিয়ে একটি প্রস্তাব পাশ করে। পরবর্তীতে সে ঘটনাকেই অতিরঞ্জিত করে নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্নার বক্তব্যের একটি ভিডিও জুড়ে দিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে স্যাংশন পাশ করেছে দাবিতে প্রচার করা হয়।

উল্লেখ্য, পূর্বেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জড়িয়ে মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে পড়লে সে বিষয়ে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করে রিউমর স্ক্যানার।

সুতরাং, ইইউ পার্লামেন্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে স্যাংশন পাশ করেছে দাবিতে একটি তথ্য ইন্টারনেটে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img