শনিবার, জুলাই 20, 2024
spot_img

আরটিভি’র ফটোকার্ড বিকৃত করে মাহিয়া মাহির নির্বাচনী প্রচারণার ভুল ছবি প্রচার 

সম্প্রতি, ‘সিনেমায় আর অভিনয় করবেন না মাহিয়া’ শীর্ষক শিরোনামে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভি’র আদলে তৈরি একটি ফটোকার্ড সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে। ফটোকার্ডটিতে ব্যবহৃত ছবিতে মাহিয়া মাহির পাশে থাকা চশমা পরিহিত একজন ব্যক্তিকে ক্যামেরার উদ্দেশ্যে মধ্যমাঙ্গুলি প্রদর্শন করতে দেখা যায়।

মাহির নির্বাচনী

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ),  এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, ‘সিনেমায় আর অভিনয় করবেন না মাহিয়া’ শীর্ষক শিরোনামে মাহিয়া মাহির সাথে থাকা ব্যক্তির মধ্যমাঙ্গুলি দেখানোর ছবি সম্বলিত ফটোকার্ডটি আরটিভি প্রকাশ করেনি বরং, ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায়  সম্পাদনার মাধ্যমে আরটিভি’র ফটোকার্ডে থাকা ব্যক্তির ভি চিহ্ন দেখানোর ছবির একটি আঙ্গুল মুছে দিয়ে উক্ত ফটোকার্ডটি তৈরি করা হয়েছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে আরটিভি’র আদলে তৈরি আলোচিত ফটোকার্ডটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। এতে ফটোকার্ডটি প্রচারের তারিখ উল্লেখ করা হয়েছে ২৭ ডিসেম্বর ২০২৩।

Screenshot: Facebook

দাবিটির সত্যতা যাচাইয়ে ফটোকার্ডটিতে থাকা তারিখ এবং আরটিভি’র লোগোর সূত্র ধরে আরটিভি’র ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে ২৭ ডিসেম্বর প্রচারিত ফটোকার্ডগুলো পর্যালোচনা করে আমার বাচ্চা হয়ে গিয়েছে, সংসার আছে। আমি এখন… শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ফটোকার্ড খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: Facebook

উক্ত ফটোকার্ডটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, আলোচিত ফটোকার্ডটির সাথে এর শিরোনাম, মাহিয়া মাহির ছবিসহ আনুষঙ্গিক বিষয়বস্তুর মিল রয়েছে। তবে আলোচিত ফটোকার্ডে মধ্যমাঙ্গুলি দেখানো চশমা পরিহিত ব্যক্তিকে আরটিভি কর্তৃক প্রকাশিত ফটোকার্ডে ভিক্টোরি চিহ্ন প্রদর্শন করতে দেখা যায়। 

Photocard Comparison by Rumor Scanner

অর্থাৎ, আরটিভির ফটোকার্ডে থাকা ব্যক্তির একটি আঙ্গুল ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় এডিট বা সম্পাদনার মাধ্যমে মুছে আলোচিত ফটোকার্ডটি তৈরি করে তা প্রচার করা হচ্ছে।

পরবর্তীতে উক্ত ছবির সূত্র অনুসন্ধানে রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে দৈনিক করতোয়া-এর ওয়েবসাইটে গত ১৮ ডিসেম্বর ট্রাক নিয়ে নির্বাচনি মাঠে মাহি শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: Daily Karatoa

প্রতিবেদনটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, আরটিভি’র ফটোকার্ডে ব্যবহৃত ছবিটির সাথে উক্ত প্রতিবেদনে ব্যবহৃত ছবির বেশ মিল রয়েছে। উক্ত প্রতিবেদনে ব্যবহৃত ছবিতে মাহির সাথে একই হলুদ রঙের ট্রাক দেখা যাচ্ছে। এছাড়াও তার পোশাক এবং আশেপাশের মানুষজনের মিল রয়েছে। 

Image Comparison by Rumor Scanner

ছবিটিতে আলোচিত ফটোকার্ডে মধ্যমাঙ্গুলি দেখানো চশমা পরিহিত ব্যক্তিরও অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যায়। তবে এখানে তাকে ভিক্টোরি চিহ্ন-ই প্রদর্শন করতে দেখা যায়। 

Screenshot: Daily Karatoa

এছাড়াও প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, গত ১৮ ডিসেম্বর সারা দেশের রিটার্নিং কর্মকর্তারা প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেন। উক্ত ছবিটি সেদিন সকালে চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির ট্রাক প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর গণমাধ্যমকে জানানোর সময় তোলা হয়েছে। 

মূলত, গত ২৬ ডিসেম্বর নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার গোগ্রাম ইউনিয়নে যান চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এসময় এক নারী ভোটারের তাকে উদ্দেশ্য করে বলা ‘ভোটের পর নেতারা দেশ ছাড়া হয়ে যায়, এটা আমরা কিন্তু দেখবো না! ভোটার আগে যেভাবে মানুষের কাছে যাচ্ছেন, ভোটের পরেও যেন এমনই দেখি!’ শীর্ষক কথার প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, ‘আমি তো আর সিনেমা করবো না, আমার বাচ্চা হয়ে গেছে, সংসার আছে। আমি এখন আপনাদের নিয়ে থাকব।’ চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির উক্ত বক্তব্যের প্রেক্ষিতে প্রায় সকল দেশীয় গণমাধ্যমই সংবাদ প্রকাশ করে। বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভিও উক্ত ঘটনায় তাদের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে মাহিয়া মাহি ও তার কর্মী-সমর্থকসহ একটি ছবি সম্বলিত ফটোকার্ড প্রকাশ করে। যেখানে মাহি ও তার কর্মীদের ভিক্টোরি চিহ্ন প্রদর্শন করতে দেখা যায়। কিন্তু সম্প্রতি, উক্ত ফটোকার্ডের ছবিতে থাকা এক চশমা পরিহিত কর্মীর একটি আঙ্গুল ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় এডিট বা সম্পাদনার মাধ্যমে মুছে দিয়ে মধ্যমাঙ্গুলি দেখাচ্ছে এমন ভঙ্গিতে উপস্থাপন করে আলোচিত ফটোকার্ডটি তৈরি করে তা প্রচার করা হচ্ছে।

সুতরাং, আরটিভি’র ফটোকার্ডে ব্যবহৃত ছবিতে মাহিয়া মাহির সাথে থাকা একজন কর্মী মধ্যমাঙ্গুলি দেখাচ্ছে দাবিতে একটি ফটোকার্ড প্রচার করা হচ্ছে; যা এডিটেড বা বিকৃত। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img