চীনে বৃষ্টির সঙ্গে কেঁচো পড়ার দাবিটি মিথ্যা

সম্প্রতি ‘বৃষ্টির সঙ্গে আকাশ থেকে পড়লো লাখ লাখ কেঁচো!’ শীর্ষক শিরোনামে চীনে বৃষ্টির সঙ্গে কেঁচো পড়ার দাবিতে একটি তথ্য ও ভিডিও আন্তর্জাতিক ও জাতীয় গণমাধ্যম সূত্রে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

কেঁচো
Screenshot from Facebook.

বাংলাদেশি গণমাধ্যমে প্রচারিত এমন প্রতিবেদন দেখুন বাংলাভিশন, ইনকিলাব, ডেইলি বাংলাদেশ

ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রচারিত সংবাদ দেখুন টাইমস অব ইন্ডিয়া, এবিপি লাইভ বাংলা, হিন্দুস্থান টাইমস, সংবাদ প্রতিদিন, ইকোনমিক টাইমস, জি নিউজ ইন্ডিয়া, টিভি৯ বাংলা, আনন্দবাজার। 

বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন দেখুন নিউ ইয়র্ক পোস্ট, ডেইলি স্টার ইউকে, দ্যা মিরর, ৭নিউজ অস্ট্রেলিয়া। 

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানেএখানে। আর্কাইভ  দেখুন এখানে, এখানে, এখানেএখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, চীনে উত্তরাঞ্চলের লিয়াওনিং প্রদেশে বৃষ্টির সঙ্গে লাখ লাখ কেঁচো পড়ার দাবিতে প্রচারিত বিষয়টি সঠিক নয় বরং পপলার গাছ থেকে ফুল পড়ার দৃশ্যকে উক্ত দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে।

কি দেখা যাচ্ছে ভিডিওটিতে?

বৃষ্টির সঙ্গে লাখ লাখ কেঁচো পড়ার দাবিতে প্রচারিত এমন একটি ভিডিও বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, ভিডিওটিতে কেঁচো দাবিতে দেখানো বস্তুগুলো কেবল সারিবদ্ধ কয়েকটি গাড়ির উপরই দেখা যাচ্ছে।

Screenshot: The Rio Times Twitter

আশেপাশের রাস্তা, গাড়ি, অন্যান্য স্থাপনা, গাড়িগুলোর পাশ দিয়ে ছাতা মাথায় একজন পথচারী হেঁটে গেলেও সেখানে এমন কিছু দেখা যায়নি। পাশাপাশি কেঁচো দাবিতে দেখানো বস্তুগুলোর কোনো ধরনের নড়াচড়াও ভিডিওতে দেখা যায়নি।

Image Collage: Rumor Scanner

উপরন্তু গাড়িগুলোর আয়নায় গাছের কিছু প্রতিচ্ছবি দেখা যায়। এছাড়া ভিডিওটির শিরোনামে উল্লেখিত ঘটনাটিকে চীনের বেইজিংয়ের ঘটনা হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। 

তবে টুইটারে প্রচারিত এই ভিডিওটির কমেন্টবক্সে শেন শিয়েই নামে চীনের একজন সাংবাদিক গত ১০ মার্চ মন্তব্য করে জানান, তিনি বেইজিংয়েই আছেন, ভিডিওটি ভুয়া। বেইজিংয়ে এমন কোনো বৃষ্টির ঘটনা ঘটেনি।

Screenshot: Chinese Journalist Shen Shiwei Twitter

পরবর্তীতে চীনা সংবাদ মাধ্যম Sina এর ওয়েবসাইটে গত ১১ মার্চ ‘The US media said that China was attacked by “worm rain”, take a closer look…‘ শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। এই প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, গত ১০ মার্চ মার্কিন গণমাধ্যম নিউ ইয়র্ক পোস্ট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিও এর উপর ভিত্তি করে প্রতিবেদন করে যে, চীন একটি জৈবিক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যায়, সর্বত্র ছোট ছোট পোকা ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে এবং মানুষ তা থেকে বাঁচতে ছাতা ব্যবহার করছে। Sina তাদের প্রতিবেদনে নিউ ইয়র্ক পোস্টের উক্ত দাবিটির প্রেক্ষিতে জানায়, এই ভিডিওটি গত মাসের শেষের দিকে চীনে প্রচারিত হয়েছিল এবং নিউ ইয়র্ক পোস্ট যে বিষয়টিকে জৈবিক বিপর্যয় হিসেবে উল্লেখ করছে তা পপলার ফুল ছাড়া আর কিছুই নয় এবং এটি চীনে খুব সাধারণ ঘটনা।

Screenshot: Chinese News Website Sina

পরবর্তীতে চায়না ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম Douyin গত ১ মার্চ ‘The spikes of poplar flowers in Benxi, Liaoning are all over the roof of the car‘ শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: Chinese Video Sharing Platform Douyin

ভিডিওটির বিস্তারিত বিবরণী থেকে জানা যায়, লিয়াওনিং প্রদেশের বেনজিতে গাড়ির ছাদ পপলার ফুলের স্পাইক পড়ে ঢেকে গেছে। এই ভিডিওটির সাথে বৃষ্টির সঙ্গে লাখ লাখ কেঁচো পড়ার দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটির মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

Image Collage: Rumor Scanner

এছাড়া তুরস্কের ফ্যাক্টচেকিং প্রতিষ্ঠান Teyit এর গত ১২ মার্চ ‘The claim that the video shows worms raining from the sky in China‘ শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন থেকেও নিশ্চিত হওয়া যায়, চীনে বৃষ্টির সঙ্গে লাখ লাখ কেঁচো পড়ার দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি লিয়াওনিং প্রদেশ থেকে ধারণকৃত।

 Screenshot: Turkish Fact-checking website Teyit

পাশাপাশি টুইটারে বৃষ্টির সঙ্গে লাখ লাখ কেঁচো পড়ার দাবিতে প্রচারিত ভিডিওগুলোর কমেন্টবক্স যাচাই করেও অনেক চীনা নাগরিকের এ প্রসঙ্গে মন্তব্য খুঁজে পাওয়া যায়। তারা উক্ত বৃষ্টির সঙ্গে কেঁচো পড়ার দাবিটিকে ভুয়া হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, গাড়ির উপর পড়ে থাকা এগুলো পপলার গাছের ফুল। প্রতি বছর বসন্তেই উত্তর চীনে এমন দেখা যায়।

Image Collage: Rumor Scanner

প্রসঙ্গত, বসন্তকাল চীনে পপলার ফুল ফোটার সময়।

Screenshot: New York Times

পপলার ফুল ও গাছ সম্পর্কে আরও দেখুন এখানে

Screenshot: leafyplace.com

মূলত, চীনে বসন্তকাল পপলার ফুল ফোটার সময়। এ সময় পপলার ফুলের স্পাইকগুলো ঝরে পড়ে। সম্প্রতি চীনের উত্তরাঞ্চলের লিয়াওনিং প্রদেশে গাড়ির উপরে পপলার ফুলের স্পাইক ঝরে পড়ার ঘটনায় ধারণকৃত এমনই একটি ভিডিও নিয়ে মার্কিন গণমাধ্যম নিউইয়র্ক পোস্ট “চীনে কেঁচো বৃষ্টি, বাসিন্দাদের ছাতা ব্যবহারের পরামর্শ” শীর্ষক একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে৷ পরবর্তীতে এই প্রতিবেদনের সূত্রে দেশী-বিদেশী বিভিন্ন গণমাধ্যমেও উক্ত দাবিতে সংবাদ প্রচার হতে থাকে। তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে দেখা যায়, চীনে বৃষ্টির সঙ্গে লাখ লাখ কেঁচো পড়ার কোনো ঘটনাই ঘটেনি।

সুতরাং, চীনে বৃষ্টির সঙ্গে লাখ লাখ কেঁচো পড়ার দাবিতে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত বিষয়টি মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img