রবিবার, জুন 23, 2024
spot_img

ছবিটি ৫০০০ বছর পুরোনো ভগবান বিষ্ণুর মূর্তির নয়

সম্প্রতি “৫০০০ বছর পুরোনো ভগবান বিষ্ণুর মূর্তিটি সাগরের তলদেশ থেকে উদ্ধার হয়েছে” শীর্ষক একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, ছবিটি ৫০০০ বছর পুরোনো ভগবান বিষ্ণুর কোনো মূর্তির নয় বরং, এটি উত্তর বালির পেমুটারানে কৃত্রিমভাবে তৈরি পানির নিচে অবস্থিত টেম্পল গার্ডেনে গৌতম বুদ্ধের মূর্তির ছবি।

রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে, ফটো শেয়ারিং ওয়েবসাইট Flickr এ  Underwater Discovery | A submerged, reclining Buddha statue শীর্ষক শিরোনামে ফটোগ্রাফার David Lazar এর তোলা একটি ছবি খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from flickr website

এই ছবিটির বর্ণনা থেকে জানা যায়, মূর্তিটি হচ্ছে ইন্দোনেশিয়ার বালিতে অবস্থিত পানিতে নিমজ্জিত একটি হেলান দেওয়া বুদ্ধ মূর্তি। 

পরবর্তীতে, কী-ওয়ার্ড অনুসন্ধানের মাধ্যমে, BBC News Indonesia এর ওয়েবসাইটে ২০১০ সালের ৪ আগস্ট প্রকাশিত The ‘underwater temple’ turns out to be an artificial garden  শীর্ষক শিরোনামে একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from bbc indonesia website

প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়, Karang Lestari নামক একটি প্রবাল প্রাচীর সংরক্ষণ প্রকল্পের অংশ হচ্ছে তামান পুরা, যা ২০০০ সালের জুন মাসে পেমুটারান এলাকায় বিভিন্ন ধরণের পরিবেশ বান্ধব বস্তুকে সমুদ্রে নিমজ্জিত করার মাধ্যমে শুরু হয়েছিল। প্রবাল প্রাচীর সংরক্ষণ ও পুনর্বাসন এবং মাছের খাদ্য সরবরাহ বাড়ানোর জন্য এই প্রকল্পে হোটেল মালিক, জেলে, ডাইভিং কোম্পানি, বিজ্ঞানী এবং পরিবেশ সংরক্ষণবিদরা জড়িত ছিলেন। প্রবাল প্রাচীর সংরক্ষণ ছাড়াও, জেলেদের অর্থনীতিকে উন্নত করা এবং পর্যটন খাতকে সমৃদ্ধ করা এছিল এই প্রকল্পের উদ্দেশ্য। ২০০৫ সালে, এই প্রকল্পের সাথে জড়িত ব্যক্তিরা স্থানীয় কারিগরদের কাছ থেকে সংগ্রহ করা মূর্তি এবং ফটকগুলির মতো শিল্প সামগ্রীগুলো সমুদ্র তলদেশে ডুবিয়ে তামান পু্রা তৈরি করা শুরু করেছিল।

এরপর, পল টার্লির অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে ২০১২ সালের ২৪ মার্চ প্রচারিত UnderWater Temple Garden Pemuteran Bali শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। ভিডিওটি থেকে জানা যায়, ‘টেম্পল গার্ডেন’-এর মূল অংশটি সমুদ্রের ৩০ মিটার গভীরে অবস্থিত। এটি প্রাকৃতিক পাথর দিয়ে তৈরি করা প্রবাল প্রাচীর বৃদ্ধির জন্য একটি খুব ভাল পদক্ষেপ। 

মূলত, ইন্দোনেশিয়ার প্রবাল প্রাচীর সংরক্ষণ প্রকল্পের একটি অংশ হচ্ছে পানির নিচের টেম্পল গার্ডেন। এই টেম্পল গার্ডেনের গৌতম বুদ্ধের মূর্তিকে  ৫০০০ বছর পুরোনো ভগবান বিষ্ণুর মূর্তি দাবি করে ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, সমুদ্রের প্রবাল প্রাচীর সংরক্ষণের জন্য ২০০৫ সালে আন্ডারওয়াটার টেম্পল গার্ডেন তৈরি করা হয়েছিল। এখানে দশটিরও বেশি বড় পাথরের মূর্তির চত্বর এবং, একটি ৪ মিটার উঁচু বালিনিজ ক্যান্ডি বেন্টার গেটওয়ে সহ আরও অনেক স্থাপনা রয়েছে। পল টার্লির উত্তর-পশ্চিম বালির পেমুটারানে ডাইভ স্কুলের মাধ্যমে দর্শনার্থী্রা সমুদ্র তলদেশের শহরটি ভ্রমন করে। তিনি এবং একজন অস্ট্রেলিয়ান সহকর্মী, ক্রিস ব্রাউনও সামুদ্রিক সংরক্ষণের গুরুত্ব তুলে ধরার লক্ষ্য নিয়েছিলেন। ডুবুরিরা যারা মন্দিরের বাগান পরিদর্শন করে তাদের মধ্যে কেউ  রিফ গার্ডেনার্স প্রকল্পে অনুদান দেয়,এর মাধ্যমে বেকার স্থানীয় জেলেদের মন্দিরের বাগানের কাছাকাছি প্রবালগুলি বজায় রাখার জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

সুতরাং, উত্তর বালির পেমুটারানে কৃত্রিমভাবে তৈরি পানির নিচে অবস্থিত টেম্পল গার্ডেনে গৌতম বুদ্ধের মূর্তির ছবিকে সাগরের তলদেশ থেকে উদ্ধারকৃত ৫০০০ বছর পুরোনো ভগবান বিষ্ণুর মূর্তি দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img