আশির দশকের ঢাকার ফল বিক্রেতার ছবির ফ্যাক্টচেক প্রত্যাহার

Editorial Note, 29 June 2024: সম্প্রতি ঢাকার আশির দশকের ফলের দোকানের ছবি দাবিতে একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষিতে এ বিষয়ে অনুসন্ধান করে ফ্যাক্টচেক প্রকাশ করে রিউমর স্ক্যানার৷ অনুসন্ধানে রবার্ট হার্ডিং নামে একটি ওয়েবসাইটে ছবিটি পাওয়া যায়, যেখানে ছবিটির ধারণকাল ২০০৮ সাল বলে উল্লেখ আছে। এখানে ছবিটির ফটোগ্রাফার হিসেবে জেমস স্ট্রাচান (James Strachan) নামে এক ব্যক্তির নাম উল্লেখ পাওয়া যায়। জেমস স্ট্রাচানের একটি ওয়েবসাইটের খোঁজ পেয়েছে রিউমর স্ক্যানার, যেখানে বলা হয়েছে, রবার্ট হার্ডিং নামের ওয়েবসাইটটির মাধ্যমেই তিনি তার তোলা ছবিগুলো বিক্রি করে থাকেন। অর্থাৎ, রবার্ট হার্ডিং নামের ওয়েবসাইটের সাথে জেমস স্ট্রাচানের যোগাযোগ বা সম্পর্ক রয়েছে। এটা নিশ্চিত হয়েই রিউমর স্ক্যানার ফ্যাক্টচেক প্রকাশ করেছিল। তবে ফ্যাক্টচেক প্রকাশের পর রিউমর স্ক্যানারের মিম গ্রুপের পোস্টের কমেন্টে ‘সোহান জামান’ নামে এক ব্যক্তি একটি স্ক্রিনশট দেন, সেখানে দেখা যায়, সোহান জামানের জিজ্ঞাসার প্রেক্ষিতে ফিরতি মেইলে জেমস স্ট্রাচান জনাব সোহানকে ২০২২ সালে ইমেইলের মাধ্যমে জানিয়েছেন যে তিনি ১৯৮৩ সালে ছবিটি তুলেছিলেন। এ বিষয়ে নিশ্চিতের লক্ষ্যে রিউমর স্ক্যানারের পক্ষ থেকে ইমেইলটির আলাদা ভার্সনের স্ক্রিনশট ও মেইলটি ফরোয়ার্ড করার অনুরোধ করা হয়েছিল সোহান জামানকে। তবে গোপনীয়তা বা নিরাপত্তার স্বার্থে তিনি তা পাঠাননি। এ সংক্রান্ত দাবিকৃত পোস্টদাতা ‘বাংলাদেশের দুষ্পাপ্য ছবি সমগ্র’ নামক পেজের সাথেও রিউমর স্ক্যানারের যোগাযোগ হলে তাদের পক্ষ থেকেও উক্ত ইমেইলের একই স্ক্রিনশট পাঠানো হয়। রিউমর স্ক্যানার জেমস স্ট্রাচান এবং সংশ্লিষ্টদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করছে। ফটোগ্রাফারের বক্তব্য পাওয়া গেলে এ বিষয়ে স্বতন্ত্র একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে। তথ্যসূত্রের সময়কাল নিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হওয়ায় এ সংক্রান্ত ফ্যাক্টচেকটি প্রত্যাহার করা হলো। ধন্যবাদ।

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img