২০২৬ বিশ্বকাপ নিয়ে থিয়াগো সিলভার নামে ভুয়া মন্তব্য প্রচার

সম্প্রতি “ব্রাজিল অধিনায়ক থিয়াগো সিলভা ৪০ বছর পর্যন্ত খেলতে চান এবং ২০২৬ বিশ্বকাপ জিততে চান বলে জানিয়েছেন” শীর্ষক একটি দাবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারিত হচ্ছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এরকম কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে।
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, থিয়াগো সিলভা ৪০ বছর পর্যন্ত খেলতে চান এবং ২০২৬ বিশ্বকাপ জিততে চান বলে কোনো মন্তব্য করেননি বরং থিয়াগো সিলভার ২০২২ বিশ্বকাপ বিষয়ে ২০২১ সালে দেওয়া একটি মন্তব্যকে পরিবর্তন করে উক্ত বক্তব্যটি প্রচারিত হচ্ছে। 

অনুসন্ধানে জানা যায়, গত ৯ ডিসেম্বর চলমান কাতার বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি হয় ব্রাজিল ও ক্রোয়েশিয়া। এই ম্যাচ টাইব্রেকারে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেয় ব্রাজিল। ম্যাচ হারার পরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে, দলটির অধিনায়ক থিয়াগো সিলভা ৪০ বছর পর্যন্ত খেলে আগামী বিশ্বকাপ (২০২৬ সালের বিশ্বকাপ) জিততে চান বলে জানিয়েছেন। 

কিওয়ার্ড সার্চ পদ্ধতির মাধ্যমে অনুসন্ধান করে মূলধারার কোনো গণমাধ্যম, থিয়াগো সিলভার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ এবং নির্ভরযোগ্য কোনো সূত্র থেকে উক্ত বক্তব্য সম্বলিত কোনো তথ্য বা সংবাদ খুঁজে পাওয়া যায় নি।

তবে গত ৯ ডিসেম্বর বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালের পর গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে থিয়াগো সিলভা জানান, “একজন ফুটবলার হিসেবে এই ট্রফিটা (বিশ্বকাপ) জিততে পারলাম না। এটা আমার কাছে খুবই হতাশার। কে বলতে পারে হয়তো ভবিষ্যতে অন্য কোনো ভূমিকায় এই ট্রফিটা জিতব।”

ব্রাজিল অধিনায়ক নিজে সরাসরি কোচিং করানোর কথা বলেননি। তার অন্য ভূমিকায় বিশ্বকাপ জেতার লক্ষ্য থেকেই প্রতীয়মান হচ্ছে, খেলা ছাড়ার পর কোচিং করাবেন তিনি। অবশ্য আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অফিসিয়ালভাবে অবসরও ঘোষণা করেননি সিলভা। তার বক্তব্য থেকেই ধরে নেয়া হচ্ছে, আর খুব বেশি দিন হয়তো তাকে দেশের হয়ে খেলতে দেখা যাবে না।

আন্তর্জাতিক একাধিক সংবাদমাধ্যমে (Fox Sports, Tribuna) থিয়াগো সিলভার এই সাক্ষাৎকারের বিষয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।  

অর্থাৎ, থিয়াগো সিলভা ২০২৬ বিশ্বকাপ খেলবেন এমন দাবিটি সঠিক নয়।

তাছাড়া, ছড়িয়ে পোস্টগুলোতে দাবি করা হচ্ছে, পরবর্তী বিশ্বকাপ খেলায় সময় তার বয়স হবে ৪০ বছর।

এই দাবিটিও সঠিক নয়। থিয়াগো সিলভার বর্তমানে বয়স ৩৮ বছর। সে হিসেবে চার বছর পর ২০২৬ বিশ্বকাপের সময় তার বয়স হবে ৪২ বছর।

গুজবের সূত্রপাত কীভাবে?

ইংল্যান্ডভিত্তিক ফুটবল ম্যাগাজিন ‘FourFourTwo’ এর ২০২১ সালের মার্চ সংখ্যায় থিয়াগো সিলভার একটি সাক্ষাৎকার প্রকাশিত হয়। 

উক্ত সাক্ষাৎকারে থিয়াগো সিলভা জানান, তিনি ৪০ বছর পর্যন্ত খেলতে চান। ২০২২ সালের কাতার বিশ্বকাপে খেলার পরিকল্পনা করছেন বলে জানান তিনি।

অর্থাৎ, থিয়াগো সিলভা ২০২১ সালে এক সাক্ষাৎকারে (যখন তার বয়স ৩৭) জানান, তিনি ৪০ বছর পর্যন্ত (২০২৪ সাল) খেলতে চান এবং ২০২২ সালের কাতার বিশ্বকাপে খেলার পরিকল্পনা রয়েছে তার। 

ফেসবুক মনিটরিং টুল ব্যবহার করে দেখা যায়, থিয়াগো সিলভার উক্ত মন্তব্যকে কেন্দ্র করে ফেসবুকে গত ৩ অক্টোবর থিয়াগো সিলভার উদ্ধৃতি দিয়ে “আমি ৪০ বছর পর্যন্ত খেলতে চাই এবং কাতারে বিশ্বকাপ জিতাতে চাই।” শীর্ষক ক্যাপশনে প্রথম পোস্ট করা হয়।

এই ক্যাপশনটিই ব্রাজিলের চলমান কাতার বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে পরাজয়ের পর পরিবর্তিত হয়ে “আমি ৪০ বছর পর্যন্ত খেলতে চাই এবং কাতারে বিশ্বকাপ জিতাতে চাই।” ক্যাপশন ব্যবহার করে প্রচার করা হচ্ছে।

অর্থাৎ, থিয়াগো সিলভার ২০২১ সালে কাতার বিশ্বকাপ বিষয়ে করা একটি মন্তব্যকে ব্যবহার করে তার উদ্ধৃতি দিয়ে ২০২৬ বিশ্বকাপ প্রসঙ্গে বানোয়াট বক্তব্য প্রচার করা হচ্ছে। 

থিয়াগো সিলভা কি ২০২৪ সালের কোপা আমেরিকা খেলবেন?

ফেসবুকে সম্প্রতি থিয়াগো সিলভা প্রসঙ্গে আরেকটি দাবি করা হচ্ছে, “ক্যাপ্টেন থিয়াগো সিলভা 2024. কোপা আমেরিকা খেলবেন।”

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে।
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে।

কিওয়ার্ড সার্চ পদ্ধতির মাধ্যমে অনুসন্ধান করে মূলধারার কোনো গণমাধ্যম, থিয়াগো সিলভার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ এবং নির্ভরযোগ্য কোনো সূত্র থেকে উক্ত বক্তব্য সম্বলিত কোনো তথ্য বা সংবাদ খুঁজে পাওয়া যায় নি।

তবে থিয়াগো তার ২০২১ সালে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন তিনি ৪০ বছর পর্যন্ত খেলতে চান। সে হিসেবে ২০২৪ সালে তার ৪০ বছর পূর্ন হবে। তাই সুস্থ এবং ফিট থাকলে ২০২৪ সালের কোপা আমেরিকায় থিয়াগো সিলভা খেলতে পারেন বলেই প্রতীয়মান হচ্ছে। 

মূলত, ২০২১ সালে ইংল্যান্ডের একটি ম্যাগাজিনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে থিয়াগো সিলভা জানান, তিনি ৪০ বছর পর্যন্ত খেলতে চান এবং তার পরিকল্পনা ২০২২ বিশ্বকাপ খেলা। তার এই মন্তব্য পরবর্তীতে “আমি ৪০ বছর পর্যন্ত খেলতে চাই এবং কাতারে বিশ্বকাপ জিতাতে চাই।” শীর্ষক ক্যাপশনে গত অক্টোবরে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। এই ক্যাপশনটিই ব্রাজিলের চলমান কাতার বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে পরাজয়ের পর পরিবর্তিত হয়ে “আমি ৪০ বছর পর্যন্ত খেলতে চাই এবং ২০২৬ বিশ্বকাপ জিতাতে চাই।” ক্যাপশন ব্যবহার করে প্রচার করা হচ্ছে। অথচ, ৩৮ বছর বয়সী থিয়াগোর ২০২৬ সালে বয়স হবে ৪২ বছর।

সুতরাং, থিয়াগো সিলভার ২০২১ সালে কাতার বিশ্বকাপ বিষয়ে করা একটি মন্তব্যকে ব্যবহার করে তার উদ্ধৃতি দিয়ে ২০২৬ বিশ্বকাপ খেলা প্রসঙ্গে বানোয়াট বক্তব্য প্রচার করা হচ্ছে ; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img