বৃহস্পতিবার, জুন 13, 2024
spot_img

ভিডিওটিতে থাকা তরুণটি সৌদি আরবে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত মোহাম্মদ বিন মুরসাল নয়

সম্প্রতি, সৌদি আরবে শরীয়া আইনে মোহাম্মদ বিন মুরসাল নামে এক তরুণকে দেওয়া মৃত্যুদণ্ডের ঘটনায় ইন্টারনেটে একটি ভিডিও এবং ছবি প্রচার করে দাবি করা হচ্ছে, ভিডিও ও ছবিতে থাকা ঐ তরুণই মোহাম্মদ বিন মুরসাল।

মোহাম্মদ বিন

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন পোস্ট (আর্কাইভ), পোস্ট (আর্কাইভ), পোস্ট (আর্কাইভ) এবং পোস্ট (আর্কাইভ)। 

টিকটকে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)। 

ইউটিউবে প্রচারিত এমন একটি ভিডিও দেখুন ভিডিও (আর্কাইভ)।  

ফ্যাক্টচেক 

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, সৌদি আরবে মোহাম্মদ বিন মুরসালের শরীয়া আইনে মৃত্যুদণ্ডের ঘটনাটি সত্য হলেও এটিকে কেন্দ্র করে ছড়িয়ে পড়া ভিডিও ও ছবিতে থাকা ব্যক্তিটি তিনি নন। প্রকৃতপক্ষে ভিন্ন ঘটনার পুরানো ভিডিও ও ভিন্ন ব্যক্তির ছবি ব্যবহার করে মোহাম্মদ বিন মুরসাল দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচার করা হচ্ছে। 

বোরকা পরিহিতা নারীর সঙ্গে আবেগঘন মূহুর্তে থাকা তরুণটি মোহাম্মদ বিন মুরসাল নয়

আলোচিত ভিডিওর প্রথম দাবিটি যাচাইয়ে ভিডিওটির কিছু স্থিরচিত্র রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে সৌদি আরব ভিত্তিক সংবাদ চ্যানেল MBC8PM এর ইউটিউবে ২০১৪ সালের ২৮ এপ্রিল “The Eighth brings together Umm Muhammad and her son Misfer, who returned from Syria” (আরবি থেকে অনুদিত) শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot : MBC8PM

উক্ত ভিডিওটির শিরোনাম থেকে জানা যায়, যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়া থেকে ফিরে আসা এক ব্যক্তি বিমানবন্দরে তার মায়ের সাথে দেখা করছেন। 

এই ভিডিওটির সাথে মোহাম্মদ বিন মুরসালের দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটির মিল খুঁজে পাওয়া যায়। 

Image Comparison by Rumor Scanner 

এছাড়া এই ঘটনাটি সম্পর্কে অধিকতর অনুসন্ধানে সৌদিভিত্তিক গণমাধ্যম ‘Al Arabiya’ এর ওয়েবসাইটে ২০১৪ সালের ১৫ এপ্রিল “A Saudi who returned from the Syrian war admits : Preachers are the reason” (ইংরেজি অনুবাদ)  শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। 

উক্ত প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, সৌদি আরবের নাগরিক মুসফর মালিক সিরিয়ায় গিয়ে একটি জিহাদি দলে যোগ দিয়েছিলেন। এরপর মুসফরকে সৌদি আরবে আনার জন্য অভিযান চালানো হয়। পরবর্তীতে মুসফর দেশে ফিরে আসলে বিমানবন্দরে তার মা ও পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে অভ্যর্থনা জানানো হয়। 

অর্থাৎ পুরনো একটি ভিন্ন ঘটনার ভিডিওচিত্রকে সাম্প্রতিক মোহাম্মদ বিন মুরসালের দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে। 

মোহাম্মদ বিন মুরসাল দাবিতে ছড়ালো সৌদি গায়কের ছবি ও ভিডিও 

অনুসন্ধানে দেখা যায়, আলোচিত ভিডিওগুলোতে মোহাম্মদ বিন মুরসালের দাবিতে একজন ব্যক্তির ছবি ও ভিডিও প্রচার করা হচ্ছে। 

তবে এ ব্যক্তি সম্পর্কে যাচাইয়ে  রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে ‘nader.alsharari‘ নামক একটি অ্যাকাউন্ট খুঁজে পাওয়া যায়। 

উক্ত ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টের মালিক নাদের আলশারারির ছবির সাথে আলোচিত ভিডিওটিতে প্রদর্শিত ব্যাক্তির ছবির হুবহু মিল খুঁজে পাওয়া যায়। 

Image Comparison by Rumor Scanner 

পরবর্তীতে নাদের আলশারারি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ‘Viberate’ নামক সঙ্গীত ডেটা বিশ্লেষণ কোম্পানির ওয়েবসাইটে একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot : Viberate

উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, নাদের আলশারারি সৌদি আরবের একজন সঙ্গীতশিল্পী। তিনি মধ্যপ্রাচ্যের সঙ্গীতে বিশেষ করে আরবি লোকসঙ্গীতে দক্ষ। তিনি মধ্যপ্রাচ্যের বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পীদের মধ্যে অন্যতম। 

অর্থাৎ সৌদি আরবের লোকসঙ্গীতশিল্পী নাদের আলশারারিকে মোহাম্মদ বিন মুরসালের ছবি দাবিতে আলোচিত ভিডিওটিতে প্রচার করা হচ্ছে। 

উল্লেখ্য, সৌদি আরবের নাজরানের আল-রিজক পরিবারের সদস্য মোহাম্মদ বিন মুরসাল কয়েক বছর আগে মুইদ বিন আবদুল্লাহ বিন মোহসেন আল-ইয়ামিকে হত্যা করেছিলেন এবং এর দায়ে গত ২০ সেপ্টেম্বরে মুরসালকে সৌদি আইন অনুযায়ী মৃত্যুদন্ড দেওয়া হয়। এ বিষয়টি রিউমর স্ক্যানার টিমকে নিশ্চিত করেছে সৌদি আরবের ফ্যাক্টচেকিং প্রতিষ্ঠান No Rumors। 

মূলত, সম্প্রতি সৌদি আরবে এক যুবককে হত্যার সাজা হিসেবে মোহাম্মদ বিন মুরসাল নামে এক তরুণকে ইসলামী শরীয়া আইনে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। এই ঘটনা কেন্দ্র করে ইন্টারনেটে একজন বোরকা পরিহিতা নারীর এক তরুণের সঙ্গে আবেগঘন মূহুর্তের একটি ভিডিও ও মোহাম্মদ বিন মুরসাল দাবিতে একজন তরুণের ছবি ছড়িয়ে পড়ে। তবে  অনুসন্ধানে দেখা যায়, উক্ত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি ২০১৪ সালের ১৫ এপ্রিল সৌদি আরবের নাগরিক মুসফর মালিক সিরিয়া থেকে ফিরে সৌদি বিমানবন্দরে তার মায়ের সাথে সাক্ষাতের। পাশাপাশি মোহাম্মদ বিন মুরসালের দাবিতে প্রচারিত ছবিটি সৌদি সঙ্গীতশিল্পী নাদের আলশারারির।

সুতরাং, সৌদি আরবে মোহাম্মদ বিন মুরসালের মৃত্যুদণ্ডের ঘটনায় মায়ের সাথে আবেগঘন মুহূর্তের দাবিতে একটি ভিডিও এবং মোহাম্মদ বিন মুরসাল দাবিতে একজন তরুণের ছবি ও ভিডিও প্রচার করা হচ্ছে ;যা সম্পূর্ণ মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র 

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img