রবিবার, জুলাই 21, 2024
spot_img

গ্রেনেড নিক্ষেপের ভিডিওটি মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর নয় 

সম্প্রতি, মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর গ্রেনেড নিক্ষেপের দৃশ্য দাবিতে একটি ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছে। 

মিয়ানমারে

ফেসবুকে প্রচারিত ভিডিও পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

এই প্রতিবেদন প্রকাশের আগ পর্যন্ত ফেসবুকে সর্বাধিক ভাইরাল হওয়া এ সংক্রান্ত ভিডিওটি প্রায় ২০ লাখ ৯০ হাজারের বেশি বার দেখা হয়েছে। এছাড়া, ৮ হাজার দুইশো এর উপরে পৃথক পৃথক অ্যাকাউন্ট থেকে রিয়েক্টশন দেওয়া হয়েছে ও ৪৪৫ বার ভিডিওটি শেয়ার এবং ১৫৩ টি মন্তব্য করা হয়েছে। পাশাপাশি, ভাইরাল পোস্টটির মন্তব্যঘর ঘুরে পোস্টটির দাবির প্রেক্ষিতে অধিকাংশ নেটিজেনকে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া জানাতে দেখা যায়।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, গ্রেনেড নিক্ষেপের এই ভিডিওটি মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নয় বরং ভিডিওটি ২০১৯ সালে চীনা সৈন্যদের প্রশিক্ষণ কর্মশালায় গ্রেনেড নিক্ষেপের দৃশ্য। 

অনুসন্ধানের শুরুতে রিভার্স ইমেজ সার্চ করে ভিয়েতনাম ভিত্তিক গণমাধ্যম VN Express এর ওয়েবসাইটে ২০১৯ সালের পহেলা আগস্ট “Chinese recruits almost died while practicing grenade throwing” (ইংরেজি অনূদিত) শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়। 

উক্ত প্রতিবেদনটিতে একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। সেই ভিডিওটির সাথে আলোচিত ভিডিওটির হুবহু মিল রয়েছে। 

Video Comparison: Rumor Scanner 

উক্ত প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, এক চীনা সৈনিকের গ্রেনেড নিক্ষেপের প্রশিক্ষণ নেওয়ার সময়কার দৃশ্য এটি। প্রশিক্ষণের সময় নিক্ষেপ করা গ্রেনেডটি প্রশিক্ষণার্থীর পাশে পড়ে যায়। কিন্তু অফিসার প্রশিক্ষণার্থীকে তাৎক্ষণিক নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে যান। এতে হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি। 

অর্থাৎ, গ্রেনেড নিক্ষেপ করার ভিডিও মিয়ানমারের নয়। 

মূলত, ২০২১ সালে সামরিক অভ্যুত্থানে অং সান সু চির নির্বাচিত সরকারকে উৎখাত করে মিয়ানমারের ক্ষমতা নেয় দেশটির সেনাবাহিনী। ২০২৩ সালের অক্টোবরের শেষ দিক থেকে মিয়ানমারের তিনটি জাতিগত বিদ্রোহী বাহিনী একজোট হয়ে জান্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে সমন্বিত আক্রমণ শুরু করে। এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি আবারও মিয়ানমারের বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলোর সাথে জান্তা বাহিনী সংঘর্ষে লিপ্ত হয়৷ এরইমধ্যে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর গ্রেনেড নিক্ষেপের দৃশ্য দাবিতে একটি ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছে। তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, গ্রেনেড নিক্ষেপের এই ভিডিওটি মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নয় বরং ভিডিওটি ২০১৯ সালে চীনা সৈন্যদের প্রশিক্ষণ কর্মশালায় গ্রেনেড নিক্ষেপের দৃশ্য। 

সুতরাং, চীনা সৈনিকের  গ্রেনেড নিক্ষেপের প্রশিক্ষণের পুরোনো ভিডিওকে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর গ্রেনেড নিক্ষেপের ভিডিও দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে; যা মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img