শনিবার, জুলাই 20, 2024
spot_img

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্রিজ ভেঙে ২৭ জন নিহতের তথ্যটি ভুয়া 

সম্প্রতি, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে ব্রিজ ভেঙ্গে বাস-ট্রাক খালে ২৭ জন নিহত ও ৪৩ জন গুরুতর আহত হয়েছে শীর্ষক দাবিতে একটি তথ্য ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। উক্ত তথ্যযুক্ত পোস্টের সাথে ব্রিজ ভাঙার দুইটি।ছবিসহ বেশ কয়েকটি ছবিও প্রচার করা হয়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে সম্প্রতি কোনো ব্রিজ ভাঙার ঘটনা ঘটেনি এবং ২৭ জন নিহত ও ৪৩ জন গুরুতর আহত হওয়ার তথ্যটিও মিথ্যা। প্রকৃতপক্ষে, স্থানীয় সাংবাদিক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদের সচেতনতামূলক পোস্টের কাল্পনিক দুর্ঘটনার দাবি বিকৃত হয়ে উক্ত দাবিটি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছে।

আলোচিত দাবির বিষয়ে অনুসন্ধানের শুরুতে Journalist Mahmud নামের একটি অ্যাকাউন্টের একটি ফেসবুক পোস্টের স্ক্রিনশট রিউমর স্ক্যানার টিমের নজরে আসে।

পোস্টটিতে লেখা, 

“**ব্রেকিং নিউজ**

এই শোক সইবার নয়

নাসিরনগরে ব্রিজ ভেঙ্গে বাস-ট্রাক খালে, ২৭ জন নিহত। গুরুতর আহত আরো ৪৩ জনকে ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে। মা-বাবার চোখের সামনে সন্তানের আর সন্তানের সামনে মা-বাবার লাশ। স্বজনদের আহাজারিতে সয়লাব চারপাশ

এমন একটা সংবাদই হয়তো অপেক্ষা করছে নাসিরনগরবাসীর সামনে। ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজগুলো দ্রুত মেরামত করা না হলে যেকোনো মূহুর্তেই ঘটতে পারে এমন দূর্ঘটনা। তখন শোক প্রকাশ করা ছাড়া কিছুই করার থাকবে না। হাজার কোটি টাকা দিয়েও দূর্ঘটনায় নিহত কাউকে ফিরিয়ে আনা সম্ভব হবে না। আশা করছি কর্তৃপক্ষ দ্রুত যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের মাধ্যমে ঝুঁকিমুক্ত চলাচল নিশ্চিত করবে।”

উক্ত স্ক্রিনশটের সূত্র ধরে Journalist Mahmud নামের ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। পর্যবেক্ষণে তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে আলোচিত স্ক্রিনশটের পোস্টটি অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি।

তবে আলোচিত স্ক্রিনশটের পোস্টের বিষয়ে তার করা আরেকটি পোস্ট (আর্কাইভ) খুঁজে পাওয়া যায়।  

উক্ত পোস্টে তিনি বলেন, অনেকেই আমার পূর্বের পোস্টটি দেখে বিভ্রান্ত হয়েছেন, যার জন্য আমি আন্তরিকভাবে দূঃখ প্রকাশ করছি। লিখাটি সম্পূর্ণ না পড়েই বেশিরভাগ মানুষ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। পোস্টটির উদ্দেশ্য ছিল বড় কোনো দূর্ঘটনা ঘটার আগেই যেন আমরা সমাধানের দিকটা খেয়াল করি।

উক্ত অ্যাকাউন্টটি পর্যবেক্ষণ করে আরও জানা যায়, 

মাহমুদ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার স্থানীয় সাংবাদিক। তিনি দৈনিক কালবেলার জেলার নাসিরনগর উপজেলা প্রতিনিধি। তার পুরো নাম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ।

অর্থাৎ, নাসিরনগরের স্থানীয় সাংবাদিক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ এলাকার ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ নিয়ে তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে কাল্পনিক দুর্ঘটনা উল্লেখ করে একটি সচেতনতামূলক পোস্ট করেন। পরবর্তীতে পোস্টটির আংশিক অংশ কপি পেস্ট হয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে এবং বিষয়টিকে অনেকেই সত্য মনে করেন। 

এছাড়া প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চ করে গণমাধ্যম ও বিশ্বস্ত সূত্রে সম্প্রতি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে ব্রিজ ভেঙে নিহত বা আহতের কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। 

পরবর্তীতে আলোচিত তথ্যের সাথে প্রচারিত কিছু ছবি পৃথকভাবে যাচাই করে রিউমর স্ক্যানার টিম।

ছবি যাচাই-১

পোস্টগুলোতে একটি ভাঙা ব্রিজের ছবি প্রচার করতে দেখা যায়। রিভার্স ইমেজ সার্চ করে মানবজমিন এর ওয়েবসাইটে গত বছরের ০৭ মার্চ “সাজেক-দীঘিনালা রুটে দূরপাল্লার যান চলাচল বন্ধ” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়। 

উক্ত প্রতিবেদনে থাকা ছবির সাথে আলোচিত ছবিটির হুবহু মিল রয়েছে। 

Image Comparison: Rumor Scanner 

উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, গত বছরের ০৭ মার্চ খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার মাইনী নদীর ওপর বেইলি সেতু ভেঙে একটি পাথরবোঝাই ট্রাক খাদে পড়ে যায়৷ সেই ভাঙা সেতুর ছবি এটি। 

ছবি যাচাই-২

আলোচিত পোস্টে থাকা আরেকটি ব্রিজ ভাঙার ছবি রিভার্স ইমেজ সার্চ করে দৈনিক জনকণ্ঠের ওয়েবসাইটে গত বছরের ২২ আগস্ট “বেইলি ব্রিজ ভেঙে ট্রাক নদীতে, চালক হেলপার নিহত” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়। 

উক্ত প্রতিবেদনে ব্যবহৃত ছবির সাথে আলোচিত ছবিটির হুবহু মিল রয়েছে। 

Image Comparison: Rumor Scanner 

উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, গত বছরের ২২ আগস্ট সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার পাগলা আউশকান্দি রাণীগঞ্জ সড়কের নলজোড় নদীর ওপরে নির্মিত কাটাগাং এলাকার বেইলি ব্রিজ ভেঙে ট্রাক নদীতে পড়ে চালক ও হেলপার দুজনেই নিহত হয়েছে। এটি সেই দুর্ঘটনারই একটি ছবি।

অর্থাৎ, এই ব্রিজ ভাঙার ছবিটিও পুরোনো ভিন্ন স্থানের৷ 

ছবি যাচাই-৩ 

আলোচিত পোস্টগুলোতে ফারায় সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের প্যাকেটে মোড়ানো লাশের ছবি দেখা যায়। উক্ত ছবি রিভার্স ইমেজ সার্চ করে বাংলা টিভি এর ওয়েবসাইটে ২০২২ সালের ২৪ জুন “নওগাঁয় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়। 

উক্ত প্রতিবেদনে ব্যবহৃত ছবিটির সাথে আলোচিত ছবিটির হুবহু মিল রয়েছে। 

Image Comparison: Rumor Scanner 

উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ২০২২ সালের ২৪ জুন সকাল ৮টায় নওগাঁ-রাজশাহী আঞ্চলিক মহাসড়কের বাবলাতলী নামক এলাকায় ট্রাক ও সিএনজি অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে ৫ শিক্ষক নিহত হয়েছেন। সেই দুর্ঘটনায় নিহতদের ছবি এটি। 

ছবি যাচাই- ৪

আলোচিত পোস্টগুলোতে ফারায় সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের প্যাকেটে মোড়ানো আরেকটি লাশের সারির ছবি দেখা যায়। উক্ত ছবি রিভার্স ইমেজ সার্চ করে সুরমা নিউজ এর ওয়েবসাইটে গত বছরের ০৭ জুন “নাজির বাজারে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৫ জনের মধ্যে ৯ জনের পরিচয় শনাক্ত” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়। 

উক্ত প্রতিবেদনে ব্যবহৃত ছবিটির সাথে আলোচিত ছবিটির হুবহু মিল রয়েছে। 

Image Comparison: Rumor Scanner 

উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, গত বছরের ০৭ জুন ভোর সাড়ে ৫টার দিকে সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের দক্ষিণ সুরমার নাজিরবাজার এলাকার কুতুবপুর নামক স্থানে বালুবাহী ট্রাক ও শ্রমিক বহনকারী পিকআপের সংঘর্ষের ঘটনায় ১৫ জন নিহত হয়েছেন। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত আরও ১০ জন। সেই দুর্ঘটনায় নিহতদের লাশের ছবি এটি। 

ছবি যাচাই-৫

আলোচিত পোস্টগুলোতে মানুষের সমাগমের একটি ছবি দেখা যায়। উক্ত ছবি রিভার্স ইমেজ সার্চ করে বার্তা ২৪ এর ওয়েবসাইটে ২০২২ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর “পঞ্চগড়ে করতোয়া নদীতে নৌকাডুবি: ২৪ জনের লাশ উদ্ধার” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়। 

উক্ত প্রতিবেদনে ব্যবহৃত ছবিটির সাথে আলোচিত ছবিটির হুবহু মিল রয়েছে।

Image Comparison: Rumor Scanner 

উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ২০২২ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর পঞ্চগড়ে করতোয়া নদীতে নৌকাডুবিতে ২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। সেই দুর্ঘটনায় নিহতদের ছবি এটি। 

মূলত, গত ২২ মার্চ শুক্রবার দৈনিক কালবেলার ব্রাহ্মণবাড়িয়া নাসিরনগর উপজেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ এলাকার ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ নিয়ে তার ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্টে একটি কাল্পনিক দুর্ঘটনার তথ্য উল্লেখ করে একটি সচেতনতামূলক পোস্ট করেন। পরবর্তীতে পোস্টটির আংশিক অংশ কপি পেস্ট হয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি সত্য দাবিতে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। সমালোচনার মুখে মাহমুদ তার আলোচিত পোস্টটি সড়িয়ে ফেলেন এবং পূর্বের পোস্টে মানুষের বিভ্রান্তির বিষয়ে দুঃখপ্রকাশ করেন। পাশাপাশি আলোচিত পোস্টটি তিনি সচেতনতার উদ্দেশ্যেই দিয়েছিলেন বলে জানান। প্রকৃতপক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে সম্প্রতি কোনো ব্রিজ ভাঙা বা অন্য কোনো দুর্ঘটনায় ২৭ জন নিহত ও ৪৩ জন গুরুতর আহত হওয়ার কোনো ঘটনা ঘটেনি।

সুতরাং, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে ব্রিজ ভেঙ্গে বাস-ট্রাক খালে ২৭ জন নিহত ও ৪৩ জন গুরুতর আহত হওয়ার দাবিটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img