প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেলজিয়ামে গিয়ে পদত্যাগের ঘোষণা দেননি

সম্প্রতি, ‘বেলজিয়ামে গিয়েই পদত্যাগের ঘোষণা দিলো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’ শীর্ষক থাম্বনেইল এবং ‘বেলজিয়ামে গিয়েই পদত্যাগের ঘোষণা দিলো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দায়িত্বে বিচারপতি’ শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম ইউটিউবে প্রচার করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী

ইউটিউবে প্রচারিত এমন একটি ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, বেলজিয়ামে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদত্যাগের কোনো ঘোষণা দেননি বরং ভিন্ন ভিন্ন ঘটনার কয়েকটি পুরোনো ছবি ও ভিডিও ক্লিপ সংযুক্ত করে ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় আলোচিত ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে। 

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। গত ২৫ অক্টোবর Sabai Sikhi নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে ২ মিনিট ১৭ সেকেন্ডের এই ভিডিওটি প্রচার করা হয়।

Screenshot: YouTube Claim Video

এতে দেখা যায়, এটি ভিন্ন ভিন্ন কয়েকটি ঘটনার কয়েকটি পুরোনো ছবি ও ভিডিও ক্লিপ নিয়ে তৈরি একটি প্রতিবেদন ভিডিও। যেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পুরোনো কিছু ছবি ও ভিডিও’র অংশ দেখা যায়।

ভিডিওটিতে বলা হয়, “অবশেষে বেলজিয়াম গিয়েই পদত্যাগের ঘোষণা দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামী জাতীয় নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ শর্তে এই পদত্যাগের ঘোষণা দেন। এবার সংবিধানের বিশেষ ধারা অনুযায়ী তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দায়িত্ব পাচ্ছে সাবেক প্রধান বিচারপতি। যাতে নির্বাচন সুষ্ঠু এবং সুশৃঙ্খল পরিবেশে সকল রাজনৈতিক দল অংশগ্রহণ করেন।”

উক্ত বিষয়গুলো নিয়ে প্রাসঙ্গিক একাধিক কি ওয়ার্ড সার্চ করেও উক্ত দাবির কোনো সত্যতা পাওয়া যায়নি। 

আলোচিত ভিডিওটি’তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পদত্যাগের বিষয় নিয়ে একটি ভিডিও ক্লিপ যুক্ত করা হয়েছে। প্রাসঙ্গিক কি ওয়ার্ড অনুসন্ধানের মাধ্যমে সে ভিডিওটি’র অনুরূপ একটি ভিডিও মূলধারার ইলেকট্রনিক গণমাধ্যম Ekattor TV এর ইউটিউব চ্যানেলে ২০২২ সালের ০৬ অক্টোবর ‘আমার অবসরের সময় হয়ে গেছে: প্রধানমন্ত্রী’ শীর্ষক শিরোনামে খুঁজে পাওয়া যায়।

Video Comparison by Rumor Scanner 

এই ভিডিও প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, সেসময় যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্র সফর নিয়ে গণভবনে সংবাদ সম্মেলনে সংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগ থেকে নিজের অবসরের সময় হয়ে যাওয়ার বিষয়ে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী  শেখ হাসিনা।

অর্থাৎ, এই ভিডিওটি এক বছর পূর্বের ভিন্ন ঘটনার এবং এর সাথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চলমান বেলজিয়াম সফর কিংবা প্রধানমন্ত্রী’র দায়িত্ব থেকে পদত্যাগের কোনো সম্পর্ক নেই।

পাশাপাশি, মূলধারার গণমাধ্যম কিংবা সংশ্লিষ্ট অন্য কোনো সূত্রে এখন পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেলজিয়ামে গিয়ে পদত্যাগের ঘোষণা কিংবা কোনো বিচারপতি’র তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দায়িত্ব পাওয়ার বিষয়ের সত্যতা খুঁজে পাওয়া যায়নি।

এছাড়াও, ২০১১ সালে বাংলাদেশে আপিল বিভাগ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা সর্ম্পকিত সংবিধানের ত্রয়োদশ সংশোধনী বাতিল ঘোষণা করে। পরবর্তীতে এই ব্যবস্থা আর পূর্ণবহাল করা হয়নি।

মূলত, গত ২৫ অক্টোবর Sabai Sikhi নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে ‘বেলজিয়ামে গিয়েই পদত্যাগের ঘোষণা দিলো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’ শীর্ষক থাম্বনেইল এবং ‘বেলজিয়ামে গিয়েই পদত্যাগের ঘোষণা দিলো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দায়িত্বে বিচারপতি’ শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়। তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, অধিক ভিউ পাবার আশায় চটকদার থাম্বনেইল ও শিরোনাম ব্যবহার করে কোনোপ্রকার নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র ছাড়াই আলোচিত দাবিটি প্রচার করা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে গণমাধ্যম কিংবা সংশ্লিষ্ট অন্যকোনো সূত্রে আলোচিত দাবিটির সত্যতা খুঁজে পাওয়া যায়নি।

প্রসঙ্গত, ইউরোপীয় কমিশনের (ইসি) প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডের লেইনের আমন্ত্রণে গত ২৪ অক্টোবর বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে ‘গ্লোবাল গেটওয়ে ফোরামে’ যোগ দিতে বেলজিয়ামে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে ২৫ এবং ২৬ অক্টোবর এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

উল্লেখ্য, পূর্বেও চটকদার থাম্বনেইল এবং শিরোনামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পদত্যাগের ঘোষণা দাবিতে ভুয়া তথ্য প্রচারের প্রেক্ষিতে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার।

সুতরাং, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেলজিয়ামে গিয়ে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছে দাবিতে প্রচারিত তথ্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img