শনিবার, জুলাই 20, 2024
spot_img

সিলেটে হিন্দু শিক্ষক কর্তৃক ছাত্রীদের হিজাব নিয়ে টানাটানি করার দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি বিভ্রান্তিকর

সম্প্রতি, “সিলেটের কিশোরী মোহন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ছাত্রীদের হিজাব নিয়ে টানাটানি এক হিন্দু শিক্ষক! বাংলাদেশে হিজাব নিষিদ্ধ করা হলো” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টিকটক এবং ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানেএখানে এবং এখানে। আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানেএখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, সাম্প্রতিক সময়ে সিলেটের কিশোরী মোহন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ছাত্রীদের হিজাব নিয়ে শিক্ষকের টানাটানি কিংবা হিজাব নিষিদ্ধের কোনো ঘটনা ঘটে নি বরং ভিডিওটি ৩ বছর পূর্বে ঐ বিদ্যালয়ে এসএসসির গণিত পরীক্ষার দিন ১৫ মিনিট দেরিতে প্রশ্নপত্র সরবরাহের অভিযোগে পরীক্ষা পরবর্তী সময়ে শিক্ষকের নিকট শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ প্রকাশকালীন সময়ে ধারণ করা।

ভিডিওটির কিছু স্থিরচিত্র রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে, ‘HANAFI TV’ নামের একটি ইউটিউব চ্যানেল হতে ২০১৯ সালের ১০ ফেব্রুয়ারিতে “পরিক্ষা হলে ছাত্রিদের হিজাব নিয়ে টানাটানি হল টিচারের_কিশোরী মোহন উচ্চ বিদ্যালয়,সিলেট।” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একই ভিডিওটি খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from HANAFI TV YouTube channel

পরবর্তীতে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে, দৈনিক সমকাল পত্রিকার অনলাইন সংস্করণে ২০১৯ সালের ১০ ফেব্রুয়ারিতে “এসএসসিতে দেরিতে প্রশ্নপত্র বিতরণ জেলা প্রশাসকের কাছে অভিযোগ” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from Samakal website

মূলত, ২০১৯ সালের ৯ ফেব্রুয়ারিতে এসএসসির গণিত পরীক্ষার দিন সিলেট নগরীর দি এইডেড হাই স্কুলের উপকেন্দ্র কিশোরী মোহন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বিভিন্ন কক্ষে দেরিতে প্রশ্নপত্র দেওয়া এবং ২০১৯ সালের প্রশ্নপত্রের পরিবর্তে ২০১৬ সালের প্রশ্নপত্র প্রদানের অভিযোগ করেছিলেন শিক্ষার্থীরা। প্রশ্নপত্র দেরিতে দেওয়ায় ঐ কক্ষগুলোর পরীক্ষার্থীরা অতিরিক্ত সময় চাইলে তাদের সময় না দিয়ে উল্টো খারাপ আচরণ করে উত্তরপত্র পর্যবেক্ষকরা তুলে নেন বলে জানান তারা। মেয়ে শিক্ষার্থীদের হিজাব খুলে নেওয়া, ছেলেদের টাই খুলে নেওয়াসহ শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের সঙ্গে খারাপ আচরণের অভিযোগ করেন পরীক্ষার্থীরা।

এসব বিষয় নিয়ে পরীক্ষা পরবর্তী সময়ে ঐ বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের নিকট ক্ষোভ প্রকাশ করেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবক। ঐ ক্ষোভ প্রকাশকালীন সময়ে ধারণকৃত ভিডিওই সাম্প্রতিক সময়ে ছাত্রীদের হিজাব নিয়ে এক হিন্দু শিক্ষকের টানাটানি দাবিতে সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

Also Read: পর্দাশীল নারীকে হয়রানি করার ভিডিওটি পুরোনো

কিশোরী মোহন স্কুলের প্রধান শিক্ষক এবং কেন্দ্রের যুগ্ম সচিব গৌরা ঘোষ শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের এসব অভিযোগ অস্বীকার করে গণমাধ্যমকে জানান, মেয়ে শিক্ষার্থীরা যাতে কানে কোনো ইলেকট্রনিক ডিভাইস নিয়ে পরীক্ষা দিতে না পারে সেজন্য আমরা কান পর্যন্ত হিজাব খুলতে বলেছি। ছেলেদের টাই খুলে নেওয়ার ব্যাপারে তিনি বলেন, তদন্ত করে যদি অভিযোগ প্রমাণিত হয় তবে দোষী শিক্ষকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, প্রশ্নপত্র দিতে দেরি হওয়ায় অতিরিক্ত সময় চাইলে পরীক্ষার্থীদের সঙ্গে হল পর্যবেক্ষক এবং সংশ্নিষ্টরা খারাপ আচরণ করেছেন দাবি করে সেসময় সিলেট জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছিলেন ঐ পরীক্ষা কেন্দ্রের ১৭ পরীক্ষার্থী।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সাল হতে প্রায় প্রতিবছরই এই ভিডিওটি বিভিন্ন দাবিতে সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে, দেখুন এখানে, এখানে। সাম্প্রতিক সময়ে ভারতের কর্ণাটকে হিজাব বিতর্কের পর উক্ত ভিডিওটি আবারো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পুনরায় আলোচনায় আসে।

তাছাড়া, @420mental.gamer নামের একটি টিকটক একাউন্ট হতে উক্ত বিষয়টি নিয়ে অতীতে প্রচারিত পুরো ভিডিওটিকে কেটে কেটে বেশ কয়েকটি খণ্ডিত ভিডিও প্রচার করা হয়। এর মধ্যে ‘বাংলাদেশে হিজাব নিষিদ্ধ করা হলো‘ শিরোনামে প্রচারিত ভিডিওটি এই প্রতিবেদন লিখার আগ পর্যন্ত প্রায় ১.৭ মিলিয়ন বার দেখা হয়েছে।

সিলেটে
Screenshot from 420mental.gamer TikTok Profile

সুতরাং, ২০১৯ সালে সিলেটের কিশোরী মোহন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র দিতে দেরি হওয়ায় পরীক্ষা পরবর্তী সময়ে শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ প্রকাশের সময় ধারণকৃত ভিডিওকে সাম্প্রতিক সময়ে সিলেটে এক হিন্দু শিক্ষক কর্তৃক ছাত্রীদের হিজাব নিয়ে টানাটানির ঘটনা দাবিতে সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ বিভ্রান্তিকর।

[su_box title=”True or False” box_color=”#f30404″ radius=”0″]

  • Claim Review: সিলেটের কিশোরী মোহন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ছাত্রীদের হিজাব নিয়ে টানাটানি এক হিন্দু শিক্ষক! বাংলাদেশে হিজাব নিষিদ্ধ করা হলো
  • Claimed By: Facebook & TikTok users
  • Fact Check: Misleading

[/su_box]

তথ্যসূত্র

  1. Samakal: https://samakal.com/todays-print-edition/tp-sylhet-division/article/19021912/%E0%A6%8F%E0%A6%B8%E0%A6%8F%E0%A6%B8%E0%A6%B8%E0%A6%BF%E0%A6%A4%E0%A7%87-%E0%A6%A6%E0%A7%87%E0%A6%B0%E0%A6%BF%E0%A6%A4%E0%A7%87-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%B6%E0%A7%8D%E0%A6%A8%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%B0-%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%A4%E0%A6%B0%E0%A6%A3-%E0%A6%9C%E0%A7%87%E0%A6%B2%E0%A6%BE-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%B6%E0%A6%BE%E0%A6%B8%E0%A6%95%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A6%9B%E0%A7%87-%E0%A6%85%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%AF%E0%A7%8B%E0%A6%97
  2. HANAFI TV YouTube: https://youtu.be/6h0R1DPGEgg
  3. 2019 Facebook Post:https://www.facebook.com/100014929669338/videos/581974468976870/
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img