শনিবার, জুলাই 20, 2024
spot_img

পর্দাশীল নারীকে হয়রানি করার ভিডিওটি পুরোনো

সম্প্রতি, “হে আল্লাহ আমার বোনদের কে ইজ্জতের হেফাজত করুন” শীর্ষক শিরোনাম সহ ভিন্ন বেশকিছু শিরোনামে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, আলোচিত ভিডিওটি সাম্প্রতিক সময়ের কোনো ঘটনার নয় বরং এটি ২০১৫ সালে মরক্কোর কাসাব্লাঙ্কায় আশুরা দিবসে একজন মহিলাকে হয়রানি করার ভিডিও।

ভিডিওটির কিছু স্থিরচিত্র রিভার্স সার্চের মাধ্যমে, মরোক্কো ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম Morocco World News এ ২০১৫ সালের ২৮ অক্টোবরে “Morocco: Video of Mob Assaulting Woman on Ashura Day Stirs Outrage” শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদনে একই ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from Morocco World News Website

পরবর্তীতে ফ্রান্স ভিত্তিক গণমাধ্যম France24 এ ২০১৫ সালের ৩০ অক্টোবরে “Debunked: A supposed “Islamophobic” attack on a Moroccan girl” শিরোনামে প্রকাশিত একটি ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

নারী
Screenshot from France24 website

মূলত, ২০১৫ সালে মরক্কোর ক্লাসাবাংকায় আশুরার দিনে কিছু তরুণ একটি মেয়ের দিকে ডিম, ময়দা ও পানি ছুড়েছিলো। France 24 এর প্রতিবেদন হতে আরো জানা যায়, “মরক্কোতে ধর্মীয় ছুটির দিন গুলোতে বাচ্চারা আতশবাজি, ডিম, সাবান সহ বিভিন্ন ধরণের বস্তু ছুড়ে থাকে। তবে এটি কোনো ইসলাম বিদ্ধেষী কর্মকান্ড নয়”। প্রতিবেদনটি থেকে আরো জানা যায়, ভাইরাল সেই ভিডিওতে থাকা তরুণরা পরে আরো একটি ভিডিও প্রকাশ করে যা আলোড়ন সৃষ্টি করে এবং ভিডিওতে সেই তরুণগুলো বলেছিলো যে “তারা কেবল মজা করছিল এবং তাদের বিরুদ্ধে মহিলাকে আক্রমণ করার জন্য ভুলভাবে অভিযুক্ত করা হয়েছিল”। ২০১৫ সালে মরক্কোতে কিছু তরুণ কর্তৃক এক নারীকে ডিম, পানি, ময়দা ছুড়ে মারার একটি ভিডিওই সাম্প্রতিক সময়ে ভারতে চলমান হিজাব বিতর্কের ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুনরায় ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, গত কয়েকদিন যাবত ভারতের কর্ণাটকে হিজাব বিতর্ক চড়াও হওয়ার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সেখানে স্কুল কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হয়। পাশাপাশি বিষয়টি নিয়ে কর্ণাটক হাইকোর্টে শুনানি চলছে। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, কর্ণাটকে কলেজে কোনো রকমের ধর্মীয় পোশাক পরা থেকে আপাতত বিরত থাকতে বলেছে কর্ণাটক হাইকোর্ট। অর্থাৎ, যতদিন পুরো বিষয়টি আইন প্রক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে, ততদিনের জন্য ধর্মীয় পোশাক পরা থেকে শিক্ষার্থীদের বিরত থাকতে বলা হয়েছে এবং এই ঘটনায় ফের আগামী সোমবার দুপুর ২:৩০ মিনিটে মামলার শুনানি হবে বলে জানিয়েছেন আদালত।

Screenshot from NDTV website

সুতরাং, ২০১৫ সালে সংঘটিত ভিন্ন ঘটনার একটি ভিডিওই সাম্প্রতিক সময়ে ভারতে চলমান হিজাব বিতর্কের ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুনরায় ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে; যা বিভ্রান্তিকর।

[su_box title=”True or False” box_color=”#f30404″ radius=”0″]

  • Claim Review: হে আল্লাহ আমার বোনদের কে ইজ্জতের হেফাজত করুন
  • Claimed By: Facebook Posts
  • Fact Check: Misleading

[/su_box]

তথ্যসূত্র

  1. Morocco World News: https://www.moroccoworldnews.com/2015/10/171347/morocco-video-of-mob-assaulting-woman-on-ashura-day-stirs-outrage/
  2. France24: Debunked: A supposed “Islamophobic” attack on a Moroccan girl
  3. NDTV: https://www.ndtv.com/india-news/hijab-row-karnataka-classes-11-12-colleges-to-stay-shut-till-wednesday-2763655
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img