সময় টিভি’র ফটোকার্ড এডিট করে লিওনেল মেসি সম্পর্কে ভুয়া তথ্য প্রচার

সম্প্রতি, জনপ্রিয় আর্জেন্টাইন ফুটবলার লিওনেল মেসি গভীর রাতে পর্নো তারকাকে মেসেজ করেছিলেন দাবিতে ‘গভীর রাতে প’র্নো তারকাকে মেসেজ করেছিলেন লিওনেল মেসি’ শীর্ষক শিরোনামে সময় টিভি’র লোগো সম্বলিত একটি ফটোকার্ডে ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে।

মেসি

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ),  এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, ফুটবলার লিওনেল মেসি গভীর রাতে পর্নো তারকাকে মেসেজ করেছিলেন দাবিতে সময় টিভি কোনো প্রতিবেদন কিংবা ফটোকার্ড সময় টিভি প্রকাশ করেনি। প্রকৃতপক্ষে, সময় টিভির স্পোর্টস বিটের ফেসবুক পেজে গত ২০ এপ্রিল ‘গভীর রাতে প’র্নো তারকাকে মেসেজ করেছিলেন চেলসির ফুটবলার’ শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ফটোকার্ড ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় সম্পাদনার মাধ্যমে আলোচিত ফটোকার্ডটি তৈরি করা হয়েছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে সময় টিভি’র লোগো সম্বলিত আলোচিত ফটোকার্ডটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। এতে দেখা যায়, ফটোকার্ডটি প্রচারের তারিখ দেখানো হয়েছে ২০ এপ্রিল ২০২৪।

দাবিটির সত্যতা যাচাইয়ে ফটোকার্ডটিতে থাকা লোগো এবং প্রকাশের তারিখের সূত্র ধরে সময় টিভি‘র ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে উক্ত তারিখে প্রচারিত ফটোকার্ডগুলো পর্যালোচনা করে উক্ত শিরোনাম বা তথ্য সম্বলিত কোনো ফটোকার্ড খুঁজে পাওয়া যায়নি। এছাড়াও সময় টিভি’র ওয়েবসাইট, ইউটিউব চ্যানেল বা অন্যকোনো গণমাধ্যমেও উক্ত দাবির বিষয়ে কোনো সংবাদ খুঁজে পাওয়া যায়নি।

তাছাড়াও সময় টিভি’র পেজে প্রচারিত ফটোকার্ডগুলোর সাথে আলোচিত ফটোকার্ডের ডিজাইনের একটি পার্থক্য লক্ষ্য করা যায়। আলোচিত ফটোকার্ডটির শিরোনামের ‘লিওনেল মেসি’ লেখাটির সাথে সময় টিভি’র শিরোনাম লেখার প্যার্টান ও ফন্টের মধ্যে সম্পূর্ণ ভিন্নতা রয়েছে। 

Photocard Comparison by Rumor Scanner

পরবর্তীতে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে সময় টিভি’র স্পোর্টস বিটের ফেসবুক পেজ Somoy Sports এ ২০ এপ্রিল ‘গভীর রাতে প’র্নো তারকাকে মেসেজ করেছিলেন চেলসির ফুটবলার’ শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ফটোকার্ড খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot: Facebook 

ফটোকার্ডটি পর্যলোচনা করে আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ফটোকার্ডের সাথে এর মিল পাওয়া যায়। উভয় ফটোকার্ডে থাকা নারী পর্নো তারকার ছবির মিল রয়েছে। এছাড়াও দুটোতেই শিরোনামেরও প্রায় মিল রয়েছে। শুধু আলোচিত ফটোকার্ডটিতে ‘চেলসির ফুটবলার!’ পরিবর্তে এডিট করে ‘লিওনেল মেসি’ লেখা হয়েছে।

Photocard Comparison by Rumor Scanner 

ফটোকার্ডটির ক্যাপশনে একই শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, ইংলিশ ফুটবল ক্লাব চেলসির ফুটবলার বেন চিলওয়েল লিলি ফিলিপস নামের এক নারী পর্নো তারকাকে ইনস্টাগ্রামে সরাসরি মেসেজ করেছিলেন বলে দাবি করেন ওই পর্নো তারকা। ‘অল গেইন্স নো গেম’ নামের একটি পডকাস্ট শো’তে তিনি এ দাবি করেন।

Screenshot: Somoy TV 

অর্থাৎ, ‘গভীর রাতে প’র্নো তারকাকে মেসেজ করেছিলেন লিওনেল মেসি’ শীর্ষক শিরোনামে সময় টিভি কোনো ফটোকার্ড প্রকাশ করেনি।

এছাড়া, মেসি আলোচ্য দাবি সম্পর্কিত কিছু আসলেই করেছেন কিনা তা জানতে দেশিয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে অনুসন্ধানে এ সম্পর্কিত কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

মূলত, ‘অল গেইন্স নো গেম’ নামের একটি পডকাস্ট শো’তে সাম্প্রতিক সময়ে লিলি ফিলিপস নামের এক নারী পর্নো তারকা দাবি করেন ইংলিশ ফুটবল ক্লাব চেলসির ফুটবলার বেন চিলওয়েল তাকে ইনস্টাগ্রামে সরাসরি মেসেজ করেছিলেন। কিন্তু তিনি তাকে কোনো সাড়া দেননি। উক্ত ঘটনা নিয়ে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল সময় টিভি একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। এছাড়াও সময় টিভির স্পোর্টস বিটের ফেসবুক পেজে এটি নিয়ে গত ২০ এপ্রিল ‘গভীর রাতে প’র্নো তারকাকে মেসেজ করেছিলেন চেলসির ফুটবলার’ শীর্ষক শিরোনামে একটি ফটোকার্ডও প্রকাশ করা হয়। পরবর্তীতে উক্ত ফটোকার্ডটির শিরোনাম ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় সম্পাদনা বা এডিট করে  ‘গভীর রাতে প’র্নো তারকাকে মেসেজ করেছিলেন লিওনেল মেসি’ শীর্ষক দাবিতে প্রচার করা হয়। 

সুতরাং,‘গভীর রাতে প’র্নো তারকাকে মেসেজ করেছিলেন লিওনেল মেসি’  শীর্ষক দাবিতে প্রচারিত তথ্যটি মিথ্যা এবং উক্ত দাবিতে সময় টিভি‘র নামে প্রচারিত ফটোকার্ডটি এডিটেড বা সম্পাদনা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img