বুধবার, ফেব্রুয়ারি 28, 2024
spot_img

সৌরভ গাঙ্গুলির নাম উদ্ধৃত করে সাকিব-কোহলিকে নিয়ে ভুয়া বক্তব্য প্রচার

সাকিবের লেভেলে আসতে হলে বিরাট কোহলিকে আরো দশবার জন্ম নিতে হবে।বিরাটরা হাজার হাজার আসবে যাবে বাট শতবছরেরও একটা সাকিব আসবেনা।” শীর্ষক একটি বক্তব্য ভারতীয় সাবেক ক্রিকেটার সৌরভ গাঙ্গুলির নাম উদ্ধৃত করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারিত হচ্ছে।

২০২৩ সালে ফেসবুকে প্রচারিত পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

২০২২ সালে ফেসবুকে প্রচারিত পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানেএখানে
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানেএখানে। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, সাকিব ও বিরাটকে তুলনা করে কোনো মন্তব্য করেননি সৌরভ গাঙ্গুলি বরং সৌরভ গাঙ্গুলির বক্তব্য দাবিতে ছড়ানো উক্তিটি বানোয়াট।

গুজবের সূত্রপাত

ফেসবুকের নিজস্ব মনিটরিং টুলস ব্যবহার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে Porosh Hassan নামক একটি আইডি থেকে ২৩ অক্টোবর ২০২২ তারিখে বিকেল ৬ টা ১ মিনিটে প্রথম সৌরভ গাঙ্গুলির নাম সযুক্ত করে “সাকিবের লেভেলে আসতে হলে বিরাট কোহলিকে আরো দশবার জন্ম নিতে হবে।বিরাটরা হাজার হাজার আসবে যাবে বাট শতবছরেরও একটা সাকিব আসবেনা।” শীর্ষক পোস্টটি (আর্কাইভ) খুঁজে পাওয়া যায়। তবে উক্ত পোস্টে সৌরভ গাঙ্গুলির উক্ত মন্তব্যের কোনো সূত্র উল্লেখ করা হয়নি। 

Screenshot from Porosh Hasan’s Facebook profile

তবে, সৌরভ গাঙ্গুলির নাম সংযুক্ত করার আগেও “সাকিবের লেভেলে আসতে হলে বিরাট কোহলিকে আরো দশবার জন্ম নিতে হবে।বিরাটরা হাজার হাজার আসবে যাবে বাট শতবছরেরও একটা সাকিব আসবেনা” শীর্ষক পোস্টটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বেশ ভাইরাল ছিলো। ফেসবুকের নিজস্ব মনিটরিং টুলস ব্যবহার করে আগুন কিং নামে একটি ফেসবুক আইডি থেকে ১৫ অক্টোবর ২০২২ তারিখে বিকেল ৫ টা ৩ মিনিটে ‘খেলাযোগ খেলার খবর’ নামক একটি ফেসবুক গ্রুপে কোনো ব্যক্তির নাম উল্লেখ ব্যতীত উক্ত পোস্টটি  (আর্কাইভ) সর্বপ্রথম খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from khelajog khelar khobor facebook group

পোস্টটিতে কোনো তথ্যসূত্র খুঁজে পাওয়া যায়নি। এছাড়া ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া অন্যান্য পোস্টগুলোর কমেন্টবক্স বিশ্লেষণ করেও কোনো নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র খুঁজে পাওয়া যায়নি। পাশাপাশি দেশীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে বিরাট কোহলি ও সাকিব আল হাসানকে নিয়ে সৌরভ গাঙ্গুলির এমন কোনো বক্তব্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

সৌরভ গাঙ্গুলি’র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম অ্যাকাউন্টগুলো খুঁজেও কোথাও সাকিব ও কোহলিকে নিয়ে এমন কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

কি-ওয়ার্ড সার্চে, দেশীয় প্রথম সারির দৈনিক প্রত্রিকা “The Daily Star” এর অনলাইন সংস্করণে ১৯ জুন ২০১৯ তারিখে “‘Shakib should take over as Universe Boss’” শীর্ষক শিরোনামে একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot from the daily star

প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, ২০১৯ সালের ১৯ জুন তারিখে টনটনের কুপার অ্যাসোসিয়েটস কাউন্টি গ্রাউন্ডে সাকিব আল হাসানের অপরাজিত ১২৪ রান, লিটন দাসের অপরাজিত ৯৪ রান এবং সাত উইকেটে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে বাংলাদেশের দুর্দান্ত জয়ের পরে, সারা বিশ্বে টাইগারদের প্রশংসার ঝড় বইছে।

Screenshot from Daily star

প্রতিবেদনটিতে বাংলাদেশের খেলার প্রশংসা করে সৌরভ গাঙ্গুলির করা একটি টুইট দেখতে পাওয়া যায়। টুইটটিতে সৌরভ গাঙ্গুলি বলেছেন, “ওয়েল ডান বাংলাদেশ। দলে এত চরিত্র দেখে ভালো লাগছে.. এভাবেই খেলতে থাকুন।”

পরবর্তীতে, ভারতীয় গণমাধ্যম ‘এই সময়’ এ ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২ তারিখে “‘আমার থেকেও বড় ক্রিকেটার বিরাট’, কোহলির সেঞ্চুরি নিয়ে অবশেষে মুখ খুললেন মহারাজ” শীর্ষক শিরোনামে একটি সংবাদ খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from ei somoy

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, সৌরভ গাঙ্গুলি নিজের সাথে তুলনায় বিরাট কোহলিকে অনেক বেশী এগিয়ে রেখেছেন। তিনি বলেছেন একজন ব্যাটসম্যান হিসেবে বিরাট তার নিজের থেকে অনেক বেশী দক্ষ এবং তিনি নিজে ভারতের জার্সিতে যতগুলো ম্যাচ খেলেছেন তার থেকে অনেক বেশী ম্যাচ বিরাট খেলেছে ও তিনি প্রত্যাশা করেন বিরাট আরও কয়েক বছর এভাবেই খেলে যাবেন।

সাকিব এবং বিরাট কোহলির তুলনা করে বা তাদের দুজনের সম্পর্কে তিনি কথা বলেছেন এমন কোনো তথ্য বাংলাদেশী, ভারতীয় বা আন্তর্জাতিক কোনো গণমাধ্যমে খুঁজে পাওয়া যায়নি। তবে, ২০২২ সালে বিরাট কোহলির টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়া নিয়ে সৌরভ গাঙ্গুলি ও বিরাট কোহলির মধ্যে বিতর্ক ও দুরত্ব তৈরী হওয়া সংক্রান্ত সংবাদ খুঁজে পাওয়া যায়।

দেশীয় মূলধারার গণমাধ্যম ‘Dhaka Post’ এ ২২ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে “কোহলিকে শোকজ করতেন সৌরভ, খবরটি সত্যি নয়” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from dhaka post

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, সৌরভ গাঙ্গুলি বোর্ড অফ কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া’র প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন কোহলির টি-২০ অধিকায়নত্ব ছাড়া নিয়ে বিরাট-সৌরভের দ্বন্দ্ব দেখা দেয় ২০২১ সালের ডিসেম্বরে। ‘টি-২০ অধিনায়কত্ব ছাড়তে বারণ করা সত্ত্বেও বিরাট অধিনায়কত্ব ছাড়ায় তাকে ওয়ানডে থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে’ সৌরভের এমন বক্তব্যের প্রেক্ষিতে কোহলি জানান তার টি-২০ অধিনায়কত্ব ছাড়ার সিদ্ধান্ত বিসিসিআইকে জানানোর পর তারা তা সাদরে গ্রহণ করেছিলেন। কোহলির সেই সাংবাদিক বৈঠকের পর দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের দল ঘোষণার দিন প্রধান নির্বাচক চেতন শর্মাও সৌরভের বক্তব্যকে সমর্থন করেন।”

মূলত, “সাকিবের লেভেলে আসতে হলে বিরাট কোহলিকে আরো দশবার জন্ম নিতে হবে। বিরাটরা হাজার হাজার আসবে যাবে বাট শতবছরেরও একটা সাকিব আসবেনা।” শীর্ষক একটি বক্তব্য একজন সাধারণ ফেসবুক ব্যবহারকারী কর্তৃক পোস্ট করার পর সেটি পরিবর্তিত হয়ে ভারতীয় সাবেক ক্রিকেটার সৌরভ গাঙ্গুলির মন্তব্য দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। তবে অনুসন্ধানে দেখা যায়, বিরাট কোহলি ও সাকিব আল হাসানকে নিয়ে সৌরভ গাঙ্গুলি কখনোই এমন কোনো মন্তব্য করেননি।

উল্লেখ্য, পূর্বেও বিভিন্ন সিনিয়র ক্রিকেটারদের নাম উদ্ধৃত করে প্রচার করা বানোয়াট বিভিন্ন মন্তব্য শনাক্ত করে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার।

সুতরাং, সাকিব আল হাসান ও বিরাট কোহলিকে নিয়ে তুলনামূলক একটি বক্তব্য সৌরভ গাঙ্গুলির মন্তব্য দাবিতে ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে; যা মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img