নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফ্ল্যাট জব্দের গুজব

সম্প্রতি, নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রীর ফ্ল্যাট জব্দ, শেখ হাসিনার সাথে বাইডেনের বৈঠক শীর্ষক লেখা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সজীব ওয়াজেদ জয় এবং যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি জো বাইডেনের ছবিসহ থাম্বনেইলে একটি ভিডিও ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে।

ইউটিউবে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। 

এই প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়া অবধি ভিডিওটি দেখা হয়েছে ৬ হাজার আটশত ৬১ বার। ভিডিওটিতে সাড়ে দুইশত ৩৬টি পৃথক অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসমন্ধানে জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোনো ফ্ল্যাট জব্দ হওয়ার দাবিটি বানোয়াট এবং এ নিয়ে দেশটির রাষ্ট্রপতি জো বাইডেনের সাথেও শেখ হাসিনার কোনো বৈঠক হয়নি বরং ভিন্ন প্রেক্ষাপটের ভিন্ন ভিডিও যুক্ত করে কোনোপ্রকার নির্ভরযোগ্য তথ্যপ্রমাণ ছাড়াই আলোচিত ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। উক্ত ভিডিওটিতে কোথাও নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোনো ফ্ল্যাট জব্দ করার দাবি সম্পর্কিত প্রমাণ উপস্থাপন করা হয়নি। এমনকি ভিডিওটিতে আলোচিত দাবির সাথে প্রাসঙ্গিক কোনো তথ্যের উল্লেখ পাওয়া যায়নি। অর্থাৎ ভিডিওটি’র থাম্বনেইলে প্রচারিত দাবিটির সাথে বিস্তারিত অংশের অসামঞ্জস্যতা রয়েছে।

আলোচিত ভিডিওটিতে প্রচারিত দাবির বিষয়ে আরও অনুসন্ধানে ভিডিওটিতে দেখানো ভিডিও ক্লিপগুলোর বিষয়ে আলাদাভাবে অনুসন্ধান চালায় রিউমর স্ক্যানার টিম।

ভিডিও যাচাই ০১

আলোচিত ভিডিওটিতে প্রথম দিকের ক্লিপটিতে প্রদর্শিত অনলাইন এক্টিভিস্ট ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক মোস্তফা ফিরোজ কর্তৃক পরিচালিত ইউটিউব চ্যানেল Voice Bangla এর লোগো’র সূত্র ধরে প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Voice Bangla এর ইউটিউব চ্যানেলে গত ২৯ মার্চ “শেখ হাসিনা ও জো বাইডেনকে একান্ত বৈঠকে বসাতে চায় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ!” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত ভিডিও প্রতিবেদনের একটি অংশই আলোচিত ভিডিওতে যুক্ত করা হয়েছে। 

প্রধানমন্ত্রী
Video Comparison: Rumor Scanner

উক্ত ভিডিওতে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ কর্তৃক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের একান্ত বৈঠকের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও সেন্ট্রাল এশিয়া বিষয়ক অ্যাসিসট্যান্ট সেক্রেটারি অব স্টেট ডোনাল্ড লু এর কাছে আহ্বান জানানো নিয়ে সাংবাদিক মোস্তফা ফিরোজ বিভিন্ন গণমাধ্যমের সংবাদ বিশ্লেষণ করেন।

তবে, এই ভিডিওতে নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোনো ফ্ল্যাট জব্দের দাবি সংক্রান্ত কোনো তথ্য উপস্থাপন করা হয়নি।

ভিডিও যাচাই ০২

প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চ অনুসন্ধান করে, অনলাইন এক্টিভিস্ট ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক জাহেদ উর রহমানের Zahed’s Take নামক ফেসবুক পেজে গত ২৯ মার্চে “একজন ‘ঈমানদার চোর’ এমপির স্বীকারোক্তি। Zahed’s Take। জাহেদ উর রহমান। Zahed Ur Rahman” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত ভিডিওর একটি অংশই আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওতে ব্যবহার করা হয়েছে।

Video Comparison: Rumor Scanner

ভিডিওতে  জাহেদ উর রহমানকে জাতীয় দৈনিক ডেইলি স্টারে “১ কোটি ২৬ লাখ টাকা খরচ হয়েছে, এটা তুলব, এটুক অন্যায় করবোই” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি সংবাদ বিশ্লেষণ করতে দেখা যায়।

ভিডিও থেকে জানা যায়, গত ২৬ মার্চ লালপুর উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য মো. আবুল কালাম আজাদ বলেছেন, নির্বাচনে এক কোটি ২৬ লাখ টাকা খরচ হয়েছে। এটা আমি তুলব, যেভাবেই হোক। এটুক অন্যায় আমি করবোই। আর করব না।” 

এই ঘটনার সাথেও আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওর কোনো সম্পর্ক নেই।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফ্ল্যাট জব্দ হয়েছে নাকি অন্য কারও?

এই বিষয়ে অনুসন্ধানে মোস্তফা ফিরোজ কর্তৃক পরিচালিত Voice Bangla নামক ইউটিউব চ্যানেলে গত ২৯ মার্চ “প্রধানমন্ত্রীর বিলাসবহুল ফ্ল্যাট জব্দ হলো নিউইয়র্কে? আমেরিকায় অবৈধ অর্থবিত্ত করে ওরা এখন বিপদে” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

ভিডিও থেকে জানা যায়, মার্কিন কর্তৃপক্ষ মঙ্গোলিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী সুখবাতার বাটবোল্ড দুর্নীতির টাকা দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক শহরে দুইটি বিলাসবহুল ফ্ল্যাট কিনেছেন বলে অভিযোগ করেছে। অভিযোগ সত্য হলে বাটবোল্ড’র এই সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত হতে পারে।

পরবর্তীতে মঙ্গোলিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী সুখবাতার বাটবোল্ড’র বিরুদ্ধে দুর্নীতির টাকা দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে বিলাসবহুল ফ্ল্যাট কেনার বিষয়ে অনুসন্ধানে দেশিয় এবং আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে এর সত্যতা খুঁজে পাওয়া যায়।

তবে, যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোনো ফ্ল্যাট জব্দ হওয়ার দাবির বিষয়ে দেশিয় এবং আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

মূলত, গত মার্চ মাসের শেষের দিকে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ কর্তৃক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের একান্ত বৈঠকের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও সেন্ট্রাল এশিয়া বিষয়ক অ্যাসিসট্যান্ট সেক্রেটারি অব স্টেট ডোনাল্ড লু’র কাছে আহ্বান জানানো নিয়ে অনলাইন এক্টিভিস্ট ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক মোস্তফা ফিরোজ তার নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে বিভিন্ন গণমাধ্যমের সংবাদ বিশ্লেষণ করেন। এছাড়া, গত ২৬ মার্চ লালপুর উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নির্বাচনের খরচ নিয়ে নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য মো. আবুল কালাম আজাদের দেওয়া এক বক্তব্যের প্রেক্ষিতে অনলাইন এক্টিভিস্ট ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক জাহেদ উর রহমান সমালোচনা করে তার নিজস্ব ফেসবুক পেজে ভিডিও প্রকাশ করেন। সম্প্রতি, উক্ত পৃথক দুইটি ভিডিও ফুটেজ একত্রে যুক্ত করে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফ্ল্যাট জব্দ হয়েছে দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নয় বরং যুক্তরাষ্ট্রের কর্তৃপক্ষ মঙ্গোলিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী সুখবাতার বাটবোল্ড’র বিরুদ্ধে দুর্নীতির টাকা দিয়ে নিউইয়র্ক শহরে দুইটি বিলাসবহুল ফ্ল্যাট কেনার অভিযোগ করেছে। এই অভিযোগ সত্য হলে বাটবোল্ড’র এই সম্পদ জব্দ হতে পারে।

সুতরাং, যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফ্ল্যাট জব্দ করা হয়েছে  দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচারিত তথ্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img