রবিবার, জুলাই 21, 2024
spot_img

ব্যারিস্টার সুমনকে মারতে গিয়ে সাকিব আল হাসানের এমপি পদ হারানোর গুজব

গত ০৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মাগুরা- ১ আসন থেকে ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান এবং হবিগঞ্জ- ৪ আসন থেকে ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে গত ১২ জানুয়ারি  ‘ব্যারিস্টার সুমনকে মারতে গিয়ে এমপি পদ হারারেন সাকিব আল হাসান শীর্ষক’ দাবিতে একটি ভিডিও ইউটিউবে প্রচার করা হয় এবং পরবর্তীতে তা ফেসবুকেও ছড়িয়ে পড়ে। 

এমপি পদ হারানোর

ইউটিউবে প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

ফেসবুকে প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ) এবং  এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর এখন অবধি সাকিব আল হাসান ও ব্যারিস্টার সুমনের মধ্যকার কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে নি এবং সাকিব আল হাসান তার এমপি পদও হারাননি প্রকৃতপক্ষে, অধিক ভিউ পাওয়ার আশায় চটকদার শিরোনাম ও থাম্বনেইল ব্যবহার করে ভিন্ন ভিন্ন কয়েকটি ঘটনার পুরোনো কিছু ভিডিও ক্লিপ যুক্ত করে আলোচিত ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি পর্যালোচনা করে রিউমর স্ক্যানার টিম। ভিডিওটির শুরুতে ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের একটি ভিডিও দেখানো হয় যাতে তাকে ‘এটাই ছিল আমার সবচেয়ে বড় সফলতা। আদালত তার সিদ্ধান্ত দিয়েছেন।’ শীর্ষক কথা বলতে শোনা যায়। পরবর্তীতে সাকিব আল হাসানের একটি ভিডিও দেখানো হয় যেখানে তিনি বলেন, ‘আমি জানি না। শোনা কথা বলবেন না। কংক্রিট নিউজ থাকলে সেটা বলবেন।’ এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি ভিডিও দেখানো হয়। পরবর্তীতে  সাকিবের ব্যারিস্টার সুমনকে মারতে যাওয়ার ভিডিও দাবিতে আরেকটি ভিডিও দেখানো হয়। সর্বোপরি ভিডিওটির উপস্থাপক দাবি করেন, সাকিবের কর্মকান্ডের জন্যে প্রধানমন্ত্রী তাকে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পদত্যাগ করার নির্দেশ দিয়েছেন। কিন্তু পুরো ভিডিওতে এমন কোনো তথ্য ভিডিও কিংবা অডিও দর্শকদের উদ্দেশ্যে দেখানো হয়নি।

ভিডিও যাচাই ১

আলোচিত ভিডিওর শুরুতে দেখানো ব্যারিস্টার সুমনের ভিডিও অনুসন্ধানে তার বক্তব্যের সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Channel 24 এর ইউটিউব চ্যানেলে ২০১৯ সালের ২৮ নভেম্বর এ রায় সব থানার ওসিদের জন্য একটা ‘অশনি সংকেত’: ব্যারিস্টার সুমন শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: Youtube

উক্ত ভিডিওর শুরুর অংশের সাথে আলোচিত ভিডিওতে থাকা ব্যারিস্টার সুমনের ক্লিপের সাথে হুবহু মিল রয়েছে। 

Video Comparison by Rumor Scanner

ভিডিওটি পর্যালোচনা করে জানা যায়, ভিডিওটি মূলত ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যা মামলার রায়ের পর গণমাধ্যমকে ব্যারিস্টার সুমনের বক্তব্য দেওয়ার ঘটনার। যার সাথে আলোচিত দাবির কোনো সম্পর্ক নেই।

ভিডিও যাচাই ২

পরবর্তীতে দেখানো সাকিব আল হাসানের ভিডিওটি অনুসন্ধানে ভিডিওতে থাকা Channel 24 এর লোগো এবং তার বক্তব্যের সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Channel 24 এর ইউটিউব চ্যানেলে ২০২৩ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর উল্টো সাংবাদিকদেরই প্রশ্নের পর প্রশ্ন করে গেলেন সাকিব! | Shakib Al Hasan | Press Conference শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot: Youtube

আলোচিত ভিডিওর সাকিব আল হাসানের ক্লিপের সাথে উক্ত ভিডিওর শুরুর অংশের হুবহু মিল পাওয়া যায়।

Video Comparison by Rumor Scanner

ভিডিওটি থেকে জানা যায়, মূলত গত বছরের ১৫ সেপ্টেবর ভারতকে ৬ রানের ব্যবধানে হারিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের এশিয়া কাপ সফর শেষ করার পর আয়োজিত প্রেস কনফারেন্সের পরবর্তীতে সাংবাদিকদের সাথে সাকিব আল হাসানের আলাপকালে উক্ত ভিডিওটি ধারণ করা হয়েছে। 

ভিডিও যাচাই ৩

প্রধানমন্ত্রীর ভিডিওটি অনুসন্ধানে রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে Maasranga News এর ইউটিউব চ্যানেলে ২০২৩ সালের ৩১ অক্টোবর সাম্প্রতিক বেলজিয়াম সফর পরবর্তী সংবাদ সম্মেলন প্রধানমন্ত্রীর শীর্ষক শিরোনামে সরাসরি সম্প্রচারকৃত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: Youtube

ভিডিওটি পর্যালোচনা করে উক্ত ভিডিওর সাথে আলোচিত ভিডিওতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরিহিত শাড়ি এবং ব্যাকগ্রাউন্ডের হুবহু মিল পাওয়া যায়।

Video Comparison by Rumor Scanner

ভিডিওটি থেকে জানা যায়, এটি  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বেলজিয়াম সফর পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনের সরাসরি সম্প্রচারকৃত ভিডিও। তাছাড়াও ভিডিওর কোথাও তাকে আলোচিত দাবির বিষয়ে কথা বলতে শোনা যায়নি।

ভিডিও যাচাই ৪

সর্বোপরি জনগণের সামনে ব্যারিস্টার সুমনকে মারার ভিডিও দাবিতে দেখানো ভিডিওটি অনুসন্ধানে ভিডিওটির কয়েকটি কী-ফ্রেম নিয়ে রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে Jamuna TV এর ইউটিউব চ্যানেলে ২০২৩ সালের ১০ মার্চ ভক্তকে ক্যাপ দিয়ে মারলেন সাকিব! কেন হারালেন মেজাজ? | Shakib Al Hasan | Jamuna TV শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot: Youtube

ভিডিওটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, উক্ত ভিডিওর ৪৯ সেকেন্ড থেকে ৫১ সেকেন্ড পর্যন্ত অংশের সাথে আলোচিত ভিডিওতে ব্যারিস্টার সুমনকে মারার ভিডিও দাবিতে প্রচারিত অংশের সাথে হুবহু মিল রয়েছে।

Video Comparison by Rumor Scanner

এছাড়াও ভিডিওটি থেকে জানা যায়, মূলত চট্টগ্রামে একটি ক্লোদিং ব্যান্ডের শো রুম উদ্বোধন করে ফেরার সময় একজন ভক্ত সাকিব আল হাসানের  পরিহিত ক্যাপ ধরে টান দিলে তিনি উত্তেজিত হয়ে যান। পরবর্তীতে তিনি সেই ক্যাপটি দিয়ে তাকে উক্ত ব্যক্তিকে মারার চেষ্টা করেন। ভিডিওটি সেসময়ই ধারণ করা হয়েছিল। অর্থাৎ, ভিডিওটি ব্যারিস্টার সুমনকে মারার কোনো ঘটনার  নয়।

পরবর্তীতে, সাকিব আল হাসানকে আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে পদত্যাগ করার জন্যে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ দেওয়ার বিষয়ে অনুসন্ধানে প্রাসঙ্গিক নানা কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমেও কোনো গণমাধ্যম কিংবা কোনো নির্ভরযোগ্য সূত্রে এ বিষয়ে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, গত ১০ জানুয়ারি সাকিব আল হাসান ও ব্যারিস্টার সুমনসহ ২৯৮ জন নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য সংসদ ভবনে সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিয়েছেন।

মূলত, ২০২৩ সালে এক ভিডিও বার্তার মাধ্যমে ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন অভিযোগ তোলেন ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান ভারত-বাংলাদেশ সিরিজ চলাকালে হোটেল সোনারগাঁওয়ে তাকে দেখে মারতে আসেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে তাদের দুজনের আলোচিত দ্বন্দের বিষয়টি পুনরায় সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। এর প্রেক্ষিতে সম্প্রতি, ব্যারিস্টার সুমনকে মারতে গিয়ে সাকিব আল হাসান এমপি পদ হারালেন দাবিতে একটি ভিডিও ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে। তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে গণমাধ্যম কিংবা সংশ্লিষ্ট অন্য কোনো নির্ভরযোগ্য সূত্রে উক্ত দাবির সত্যতা পাওয়া যায়নি। প্রকৃতপক্ষে অধিক ভিউ পাওয়ার আশায় চটকদার শিরোনাম ও থাম্বনেইল ব্যবহার করে ভিন্ন ভিন্ন ঘটনার পুরোনো কিছু ভিডিও ক্লিপ যুক্ত করে আলোচিত ভিডিওটি প্রচার  করা হয়েছে।

সুতরাং, ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনকে মারতে গিয়ে সাকিব আল হাসানের এমপি পদ হারানোর দাবিটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img