মেসি রোনালদোর যুগল ছবিটি এডিটেড

সম্প্রতি “ভাইরাল ছবিটিতে একসঙ্গে বসেননি মেসি-রোনালদো!” শীর্ষক শিরোনামে মূল ধারার অনলাইন সংবাদমাধ্যম বাংলানিউজ২৪ এ একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। এই প্রতিবেদনের বিষয়ে সত্যতা জানতে চেয়ে রিউমর স্ক্যানারের ফেসবুক গ্রুপেও ফ্যাক্টচেক অনুরোধ আসে।

কী দাবি করা হচ্ছে? 

বাংলানিউজ২৪ এর ২০ নভেম্বর প্রকাশিত প্রতিবেদনটিতে বলা হচ্ছে, “সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রীতিমতো বোমাই ফেটেছিল কাল রাতে। একই সময়ে প্রায় কাছাকাছি ক্যাপশনে একটি ছবি পোস্ট করেন লিওনেল মেসি ও ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে, যেটা থেকে বোঝা যাচ্ছে একসঙ্গে বসেননি মেসি ও রোনালদো। আর্জেন্টাইন তারকাকে আলাদা করে ছবির জন্য পোজ দিতে দেখা গেছে, একই কাজ করেছেন পর্তুগিজ তারকাও। প্রযুক্তির সহায়তায় পরে তাদের একসঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে।”

একই দাবিতে ফেসবুকের কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে।
আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, মেসি ও রোনালদোর ভাইরাল হওয়া যুগল ছবিটিকে এডিটেড দাবিটি সত্য। মেসি ও রোনালদো একসাথে নয় বরং ভিন্ন ভিন্ন সময়ে উপস্থিত হয়ে ফটোশ্যুটে অংশ নেন।

কিওয়ার্ড সার্চ পদ্ধতিতে আর্জেন্টাইন ফুটবলার লিওনেল মেসির অফিশিয়াল ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টে এবং পর্তুগাল ফুটবলার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর অফিশিয়াল ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টে গত ১৯ নভেম্বর প্রায় একই সময়ে একই ক্যাপশনে ভাইরাল ছবিটি প্রথম প্রকাশিত হয়।

ক্যাপশনটির বাংলা করলে দাঁড়ায়, “বিজয় হচ্ছে মনের অবস্থা। ট্রাঙ্ক তৈরির দীর্ঘ এই ঐতিহ্যের ছবি লুই ভিতোঁর জন্য তুলেছেন এনি লেভিবোতজ।”

লুই ভিতোঁ বিখ্যাত ফরাসি ফ্যাশন হাউজ। প্রতিষ্ঠানটির পণ্যের প্রচারণার অংশ হিসেবে মেসি-রোনালদোকে মডেল বানিয়ে এই ছবিটি তুলেছেন বিখ্যাত আমেরিকান ফটোগ্রাফার এনি লেভিবোতজ

কিন্তু ছবিটি এডিটেড কিনা সেটি ছবি এবং ক্যাপশনে স্পষ্ট নয়।

পরবর্তীতে অনুসন্ধানে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ‘The Sun’ এর ওয়েবসাইটে গত ২০ নভেম্বর ‘Incredible behind-the-scenes footage reveals Cristiano Ronaldo and Lionel Messi were NOT together for viral chess photo” শিরোনামে একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, “লুই ভিতোঁ ভাইরাল ছবিটির পর্দার পেছনের দৃশ্য বিষয়ে ভিডিও প্রকাশ করেছে। এখন প্রকাশ করা হয়েছে যে ছবি তোলার সময় এই জুটি একসঙ্গে ঘরে উপস্থিত ছিল না। প্রকৃতপক্ষে, ছবিটি জোড়া লাগানোর জন্য তাদের উভয়কে তাদের নিজ নিজ অবস্থানে পোজ দিতে বলা হয়েছিল।”

সানের তথ্যের সূত্র ধরে ইউটিউবে ‘Suleś’ নামক চ্যানেলে “Lionel Messi and Cristiano Ronaldo LOUIS VUITTON Photo Shoot behind the scenes” শিরোনামে “বিহাইন্ড দ্য সিন” ভিডিওটি খুঁজে পাওয়া যায়।

ভিডিওটি বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, মেসি এবং রোনালদো একসাথে ফটোশ্যুটে অংশ নেননি। তবে স্থান একই কিনা সে বিষয়টি ভিডিও দেখে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। কারণ, মেসি ও রোনালদোর অ্যাকাউন্ট থেকে প্রকাশ করা মূল ছবির ব্যাকগ্রাউন্ডের সাথে বিহাইন্ড দ্য সিন ভিডিওতে তাদের পোজ দেওয়ার দৃশ্যের ব্যাকগ্রাউন্ডের মিল নেই। অর্থাৎ, দুইজনের আলাদা ছবি জোড়া লাগানোর পাশাপাশি ব্যাকগ্রাউন্ডও এডিট করা হয়েছে।

মূলত, গত ১৯ নভেম্বর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর নিজ নিজ অ্যাকাউন্টে একটি ছবি প্রকাশ করেন মেসি ও রোনালদো। ছবিতে দুই তারকাকে দাবা বোর্ডের সামনে মুখোমুখি অবস্থানে বসে থাকতে দেখা যাচ্ছে। এই ছবি ভাইরাল হয়ে যাওয়ার পর “ছবিটি এডিটেড” দাবিটি ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষিতে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে দেখা যায়, দাবিটি সত্য। ছবির পেছনের দৃশ্য নিয়ে বানানো একটি ভিডিওটি বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, মেসি এবং রোনালদো একসাথে নয় বরং ভিন্ন ভিন্ন সময়ে উপস্থিত হয়ে ফটোশ্যুটে অংশ নেন। দুইজনের আলাদা ছবি জোড়া লাগানোর পাশাপাশি ব্যাকগ্রাউন্ডও এডিট করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, এনি লেভিবোতজ প্রয়াত এলিজাবেথ, জন লেলন, ডেমি মুর, জনি ডেপ, লেডি গাগা, সেরেনা উলিয়ামসের মতো বিখ্যাতদের ছবি তুলে বিভিন্ন পুরস্কার জিতেছেন

প্রসঙ্গত, লুই ভিতোঁ মূলত তাদের চামড়ার তৈরি ব্যাগ, জুতো, অলঙ্কার ও অন্যান্য সামগ্রীর জন্য বিশ্বজুড়ে খ্যাত। ফ্যাশন হাউজটি এর আগেও পেলে-ম্যারাডোনা-জিনেদিন জিদানকে একসঙ্গে করে বিজ্ঞাপন বানিয়ে চমকে দিয়েছিল।

সুতরাং, মেসি রোনালদোর যুগল ছবিটিকে এডিটেড দাবিটি সত্য। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img