দৃষ্টিভ্রমের জন্য দেওয়ালটি অদ্ভুতভাবে রং করার দাবিটি মিথ্যা

সম্প্রতি “দৃষ্টিভ্রমের জন্য দেওয়ালটি অদ্ভুতভাবে রং করা হয়েছে।” শীর্ষক একটি দাবি সম্বলিত একটি ছবি যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারিত হচ্ছে।

যা দাবি করা হচ্ছে

ছড়িয়ে পড়া পোস্টগুলোতে একটি ছবি সংযুক্ত করে ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “খুবই অদ্ভুতভাবে রং করা এই দেওয়ালটি এমন অদ্ভুতভাবে তৈরি করা হয়েছে দৃষ্টিভ্রম অর্থাৎ অপটিক্যাল ইলিউশনের জন্য। চোখ দুটো যতোটুকু ছোট করা যায় ততটুকু ছোট করুন তাহলে এখানে একজন ব্যক্তিকে দেখতে পাবেন।Art by Timur Zlagirov।”

ফেসবুকে প্রচারিত এরকম কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে।
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, দৃষ্টিভ্রমের জন্য দেওয়ালটি অদ্ভুতভাবে রং করার দাবিটি সঠিক নয় বরং শিল্পী তিমুর জাগিরভ পাইন গাছের ব্লকে ভ্যান গঘের ছবি চিত্রিত করার উদ্দেশ্যে শিল্পকর্মটি তৈরি করেছিলেন।

রিভার্স ইমেজ সার্চ পদ্ধতির মাধ্যমে মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে ‘Massimo’ নামক একটি অ্যাকাউন্টের একটি টুইটে ২০২১ সালের ২৬ অক্টোবর প্রকাশিত আলোচিত ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।  

ছবির ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “শিল্পী তিমুর জাগিরভ পাইন গাছের রঙিন কাঠের পালিশ করা ৪২৫টি ব্লক ব্যবহার করে ভ্যান গঘের সেল্ফ প্রোট্রেটের একটি সুন্দর শিল্পকর্ম তৈরি করেছেন। এটি সম্পর্কে কৌতূহলের বিষয় হল, আপনি ভ্যান গগকে কেবল তখনই দেখতে পান যখন আপনি চোখ ছোট করবেন বা আপনি এটিকে দূর থেকে দেখেন।”। 

পরবর্তীতে অনুসন্ধানে রাশিয়ান শিল্পী তিমুর জাগিরভের ইনস্টাগ্রামে উক্ত ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়। তিমুর ছবিটি প্রকাশ করেন ২০২০ সালের ১১ মার্চ। তিমুরও ছবির ক্যাপশনে এটিকে  ভ্যান গঘের সেল্ফ প্রোট্রেট বলে উল্লেখ করেন। 

এ বিষয়ে জানতে তিমুর জাগিরভের সাথে যোগাযোগ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। তিমর রিউমর স্ক্যানার টিমকে জানান, “আমি কেবল নিশ্চিত করতে পারি যে এটি সত্যিই আমার পেইন্টিং, যা ভ্যান গঘের একটি স্ব-প্রতিকৃতি চিত্রিত করে।”

ছবিটির দিকে তাকালে দৃষ্টিভ্রম ঘটে এমন দাবির ব্যাপারটিকে তিনি আংশিক সত্য বলে নিশ্চিত করেন।

ছবিটি তিনি দৃষ্টিভ্রমের উদ্দেশ্যেই তৈরি করেছিলেন কিনা এমন প্রশ্নে তিমুর রিউমর স্ক্যানারকে বলেছেন, “আমি যখন এই ছবিটি তৈরি করেছি, তখন আমি ভাবিনি যে এটি একটি দৃষ্টিভ্রমের অনুভূতির সৃষ্টি করবে। আমার জন্য, এটি রঙের সাথে একটি এক্সপেরিমেন্ট ছিল। আমি মূল ছবিটির মতো একই বা কাছাকাছি একটি চিত্র আঁকতে চেয়েছি।”

অর্থাৎ, আলোচিত ছবিটি কোনো দেওয়ালের নয় এবং এটি দৃষ্টিভ্রমের জন্যও তৈরি করা হয়নি।

মূলত, রাশিয়ান শিল্পী তিমুর জাগিরভ ২০২০ সালে তার ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টে তার নিজের তৈরি করা শিল্পী ভ্যান গঘের একটি সেল্ফ প্রোট্রেট প্রকাশ করেন। পাইন গাছের রঙিন কাঠের পালিশ করা ৪২৫টি ব্লক ব্যবহার করে শিল্পকর্মটি তৈরি করেন তিনি। কিন্তু সম্প্রতি দৃষ্টিভ্রমের জন্য দেওয়ালটি অদ্ভুতভাবে রং করা হয়েছে দাবি করে ছবিটি ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে। তবে তিমুর রিউমর স্ক্যানারকে বলেছেন, দৃষ্টিভ্রমের ব্যাপারটি আংশিক সত্য হলেও তিনি দৃষ্টিভ্রম হবে ভেবে নিয়ে শিল্পকর্মটি তৈরি করেননি। বরং, গঘের মূল ছবির কাছাকাছি ছবি চিত্রিত করতে তিনি রংয়ের এক্সপেরিমেন্ট করেছেন এটিতে।

প্রসঙ্গত, ভিনসেন্ট ভ্যান গগ ছিলেন জগৎ বিখ্যাত কিংবদন্তী ডাচ শিল্পী। উনিশ শতাব্দির মাঝামাঝি সময়ে ২৭ বছর বয়সে পেইন্টিং করা শুরু করে জীবদ্দশায় দুই হাজারেরও বেশি ড্রইং, পেইন্টিং, জলরঙে আঁকা ছবি ও স্কেচ করেছেন তিনি।

সুতরাং, দৃষ্টিভ্রমের জন্য দেওয়ালটি অদ্ভুতভাবে রং করা হয়েছে দাবিতে একটি ছবি প্রচার করা হচ্ছে ; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img