ছবিটি নড়াইলের সাম্প্রদায়িক হামলার নয়

সম্প্রতি “আজ আরেকটি শুক্রবার। আশীর্বাদ করবেন আরেকটি শুক্রবার যেনো বাঁচতে পারি” শীর্ষক শিরোনামে একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখান এবং এখানে। আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখান, এখান, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমার স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধান থেকে জানা যায়, নড়াইলে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বাড়িতে আগুন, ভাঙচুরের ঘটনাকে সামনে রেখে ‘’আজ আরেকটি শুক্রবার।আশীর্বাদ করবেন আরেকটি শুক্রবার যেনো বাঁচতে পারি’’ শিরোনামে প্রচারিত ছবিটি নড়াইলের ঘটনার নয় বরং পুরনো ঘটনার ছবি।

রিভার্স ইমেজ অনুসন্ধানের মাধ্যমে, Marin Naznin নামের একটি ফেসবুক একাউন্ট থেকে ২০২১ সালের ৩০ মার্চে পোস্ট করা একটি ছবির সাথে উক্ত ছবির হুবহু মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

পরবর্তীতে অনলাইন নিউজ পোর্টাল Risingbd এর ওয়েবসাইটে এ ২০২১ সালের ২৬ মার্চ  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রদের তাণ্ডব শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে একই ছবি খুঁজে পাওয়া যায়।। উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়,   হেফাজত নিয়ন্ত্রিত চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদ্রাসার ছাত্রদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের রেশ ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডব চালায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জামিয়া ইউনুছিয়া ইসলামিয়া মাদ্রাসা ও অন্যান্য মাদ্রাসার ছাত্ররা। 

হামলা
Screenshot Risingbd website

মূলত, ২০২১ সালের মার্চ মাসে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মাদ্রাসার ছাত্র এবং পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষ হয় এবং সেই সময়ে, মাদ্রাসার ছাত্রদের চালানো তান্ডবের পুরানো ছবিকে সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া নড়াইলের দিঘলিয়া গ্রামের সংখ্যালঘুদের উপর হামলার ছবি বলে প্রচার করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, আকাশ সাহা নামের একজন ব্যক্তির ফেসবুক পোস্টের জের ধরে গত শুক্রবার সন্ধ্যার পর দিঘলিয়া বাজারের কয়েকটি দোকান ভাঙচুর ও একটি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে উত্তেজিত লোকজন। একটি মন্দির ভাঙচুর এবং দুটি পারিবারিক মন্দিরে হামলার ঘটনা ঘটে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে লাঠিপেটা করে এবং ফাঁকা গুলি ছোড়ে। রাত সাড়ে নয়টার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তী ও মুজিব জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশে আসার বিরোধীতা করে হেফাজতে ইসলামের নেতকর্মীরা বায়তুল মোকারম এলাকায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সাথে সংঘর্ষে জড়ায়। ঘটনার জের ধরে হাটহাজারীতে সংঘর্ষ হয়। এতে পুলিশের গুলিতে গুলিবিদ্ধ হয়ে হাটহাজারী মাদ্রাসার তিন ছাত্র ও একজন পথচারী নিহত হয়েছে। হেফাজত নিয়ন্ত্রিত চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদ্রাসায় ছাত্রদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনার রেশ ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডব চালায় মাদ্রাসার ছাত্ররা।

সুতরাং, বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ন জয়ন্তি উপলক্ষে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ মোদীর আগমনের বিরোধিতার করে আন্দোলন রতো ব্রাহ্মণবাড়িয়া মাদ্রাসার ছাত্রদের ছবিকে নড়াইলে সনাতন ধর্মালম্বীদের উপর নৃংশসতার ছবি দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ন মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img