শুক্রবার, জুলাই 26, 2024
spot_img

ভিডিওটি আমেরিকায় গাড়ি চোরকে পুলিশের তাড়া করার দৃশ্যের নয়

গত ১০ এপ্রিল ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম ইউটিউবে IBTV USA ইউটিউব চ্যানেল থেকে “যেভাবে পুলিশকে ফাঁকি দিল বিশ্বের সেরা ড্রাইভার! | Police Chase | US Police | Car Thief |Driver Skill” শিরোনামে “আমেরিকার পুলিশকে ফাঁকি দিলো গাড়ি চোর | চালককে বিশ্বের সেরা ড্রাইভার বলছেন নেটিজেনরা” দাবিতে একটি ভিডিও (আর্কাইভ) প্রচার করা হয়।

পরবর্তীতে ভিডিওটি ডাউনলোড করে একই তারিখে শর্ট ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম টিকটকে “আমেরিকার পুলিশকে ফাঁকি দিলো গাড়ি চোর | চালককে বা চোরকে বিশ্বের সেরা ডাইভার বলেছেন নেটিজেনরা” দাবিতে প্রচার করা হয়।

টিকটকে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

একই দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)। 

এই প্রতিবেদনটি প্রকাশ হওয়া অবধি ইউটিউব ভিডিওটি প্রায় ১৭ লক্ষ বারেরও অধিক বার দেখা হয়েছে এবং ১৫ হাজারেরও অধিক পৃথক অ্যাকাউন্ট থেকে ভিডিওটিতে প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে। 

অপরদিকে, এই প্রতিবেদনটি প্রকাশ হওয়া অবধি টিকটক ভিডিওটি ৩১ লক্ষ বারেরও অধিক বার দেখা হয়েছে এবং ৭৫ হাজারেরও অধিক পৃথক অ্যাকাউন্ট থেকে ভিডিওটিতে প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ঘটনাটি আমেরিকার নয় বরং সুইডেনের। তাছাড়া, গাড়িচালক গাড়ি চোর নয়, বরং একজন গ্যাং ক্রিমিনাল যে অস্ত্র অপরাধ, অনৈতিক হুমকি, ছুরি নীতি ভঙ্গ করা, ট্রাফিক নীতি ভঙ্গ করা, অবৈধভাবে গাড়ি চালানো, মাতাল অবস্থায় গাড়ি চালানো, হামলা, ডাকাতিসহ একাধিক মামলায় জড়িত। 

অনুসন্ধানের প্রাথমিক পর্যায়ে রিভার্স ইমেজ সার্চ পদ্ধতিতে অনুসন্ধান করলে ২০২১ সালের ২৫ মার্চ তারিখে সুইডিশ অনলাইন নিউজ ওয়েবসাইটের ইউটিউব চ্যানেল Samnytt এ “Polisen jagar gängkriminell i Göteborg” শিরোনামে ১৯ মিনিট ৫৫ সেকেন্ডের একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

ভিডিওটির শিরোনাম ভাষান্তরিত করলে এর অর্থ জানা যায়, “গোঠেনবার্গে গ্যাং ক্রিমিনালকে তাড়া করছে পুলিশ”। উক্ত ভিডিওটির ৩ মিনিট ৯ সেকেন্ড থেকে আলোচিত ভিডিওটির সাথে হুবহু মিল দেখতে পাওয়া যায়। 

Comparison : Rumor Scanner
Comparison : Rumor Scanner

উক্ত ইউটিউব ভিডিওটির ডেসক্রিপশনে ২৫ মার্চ ২০২১ সালে “VIDEO: Se polisens helikopterjakt mot gängkriminell i Göteborg” শিরোনামে এ বিষয়ে একটি সংবাদ লিঙ্ক খুঁজে পেলে সংবাদটি ভাষান্তরিত করে পড়ে দেখে রিউমর স্ক্যানার টিম। 

সংবাদটি পড়ে জানা যায়, উক্ত ভিডিওটি সুইডেনের শহর গোঠেনবার্গে ধারণকৃত। ফিলিপ নিলসন নামের ১৯ বছর বয়সী একজন কিশোর গ্যাং ক্রিমিনালকে পুলিশ প্রায় আধা ঘন্টা তাড়া করে। এই পুরো সময়টাই পুলিশের থেকে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখতে সমর্থ হয় ফিলিপ নিলসন। উল্লেখ্য, পুলিশকে শূন্যে থেকে হেলিকপ্টার দল সাহায্য প্রদান করছিল এবং ভিডিওটি হেলিকপ্টার থেকেই ধারণকৃত। ঘন্টায় প্রায় ২০০ কিলোমিটার গতির এই তাড়াটি শেষ পর্যন্ত Kungalv এর ICA Maxi নামের মুদি দোকানের সামনে থামে, সেখান থেকেই তাকে গ্রেফতার করা হয়। তাড়া করার সময়, অফিসাররা ফিলিপকে কিছু একটা ছুঁড়ে ফেলতে দেখেন। সেই বস্তুটির কাছে গেলে সেটি একটি লোডেড পিস্তল দেখা যায়। তাছাড়া, ফিলিপের চালানো গাড়ির ভেতর অ্যাম্ফেটামাইন, কোকেন, MDMA ইত্যাদি মাদকদ্রব্য পাওয়া যায়। তাছাড়া সংবাদটি পড়ে জানা যায়, উক্ত ঘটনাটি গত বছরের ৬ মে তারিখের, অর্থাৎ ২০২০ সালের ৬ মে তারিখের। 

২০২০ সালের ২৮ মার্চ তারিখে ২৫ বছর বয়সী একজন ব্যক্তির গাল কেটে দেয় ফিলিপ। তারপর তাকে বিচারের আওতায় আনা হয়। পুলিশের তদন্ত অনুসারে, ফিলিপের কাছ থেকে ভিক্টিম মাদকদ্রব্য কিনেছিলেন এবং হয়তো সেখানেই তাদের মধ্যে কিছু একটা ঘটেছিল।

ফিলিপ বেশ আগে থেকেই অপরাধের সাথে জড়িত। সে এর আগে অস্ত্র অপরাধ, বেআইনী হুমকি, ছুরি নীতি ভঙ্গ করা, ট্রাফিক নীতি ভঙ্গ করা, অবৈধভাবে গাড়ি চালানো, মাতাল অবস্থায় গাড়ি চালানোর মতো অপরাধে অভিযুক্ত হয়েছিল। ২০১৮ সালে হত্যাচেষ্টার মতো গুরুতর হামলায় অভিযুক্ত হলে তাকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। কিন্তু, কারাবাসের বদলে সে গুপ্ত অবস্থায় চলে যায়। ২০২১ সালের ১২ ফেব্রুয়ারী তারিখে প্রকোপিত হামলা, প্রকোপিত অস্ত্র অপরাধ, ট্রাফিক নীতির প্রতি অবহেলা, অবৈধ গাড়িচালনা – গুরুতর অপরাধ, প্রকোপিত মাতাল অবস্থায় গাড়ি চালানো এবং বিভিন্ন মাদক অপরাধের কারণে গোঠেনবার্গ জেলা আদালত ফিলিপ নিলসনকে তিন বছরের কারাদন্ডের সাজা প্রদান করে।

যেহেতু এই সংবাদটি ঘটনা ঘটার প্রায় এক বছর পরের ছিল। তাই, প্রাথমিক রিপোর্ট পেতে রিউমর স্ক্যানার টিম ঘটনার দিন বা পরের দিনের সংবাদের অনুসন্ধান করে। ইংরেজিতে কি-ওয়ার্ড সার্চ করে কাঙ্খিত সংবাদ খুঁজে পাওয়া না গেলে সুইডিশ ভাষায় কি-ওয়ার্ড ভাষান্তরিত করে অনুসন্ধান করা হয়। 

অতঃপর সুইডিশ সংবাদপত্র Expressen এ ঘটনার রাত ৬ মে ২০২০ সালে “Polisjakt i centrala Göteborg – stor insats” শিরোনামে একটি সংবাদ খুঁজে পাওয়া যায়। সংবাদটি ভাষান্তরিত করে জানা যায়, একটি গাড়িচালক (motorist) তার গাড়ি থামাতে অস্বীকৃতি জানালে পুলিশ তাকে তাড়া করে। তাড়াটি কেন্দ্রীয় শহর থেকে শুরু হয়ে শেষ পর্যন্ত কেন্দ্রীয় Kungalv এ গাড়িটি থামাতে সক্ষম হয় পুলিশ। তৎক্ষণাৎ পুলিশ নিশ্চিত করে গাড়িচালকের অপরাধ জানাতে না পারলেও, পুলিশ অনুমান করে গাড়িচালক অসংখ্য অপরাধে অভিযুক্ত হবে।

প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড অনুসন্ধান করে পরবর্তীতে এ বিষয়ে আরেকটি সংবাদ খুঁজে পায় রিউমর স্ক্যানার টিম। ২০২১ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারিতে সুইডিশ সংবাদপত্র “Kungälvs-Posten” এ “Jagades av polisen i 200 kilometer i timmen – döms till fängelse” শিরোনামে প্রকাশিত একটি সংবাদ খুঁজে পাওয়া যায়। সংবাদটিতে জানা যায়, অভিযুক্তের মতে ২৮ মার্চ তারিখে Delsjon জায়গায় হওয়া হামলা ও ডাকাতির মামলায় সে একজন আসামী। এই কারণে সে পুলিশের থেকে বাঁচতে এভাবে গাড়ি চালিয়েছিল।

Screenshot : Kungälvs-Posten

অর্থাৎ, উক্ত গাড়িচালক গাড়ি চুরি করে পুলিশ থেকে পালায়নি। বরং, তার উপর চলমান হামলা ও ডাকাতির মামলার কারণে পুলিশ দেখে সে পুলিশের থেকে পালিয়েছিল।

মূলত, ২০২০ সালে সুইডেনের গোঠেনবার্গ শহরে অস্ত্রসহ বিভিন্ন মামলায় জড়িত একজন গ্যাং অপরাধীকে আটকের জন্য সুইডেনের পুলিশ গাড়ি যোগে তাড়া করে। সম্প্রতি সেই ভিডিওকেই আমেরিকায় পুলিশকে ফাঁকি দিল গাড়ি চোর শীর্ষক দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচার করা হচ্ছে।

সুতরাং, সুইডেনে বিভিন্ন মামলায় অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আটকের জন্য পুলিশের তাড়া করার ভিডিওকে আমেরিকায় পুলিশকে গাড়ি চোরের ফাঁকি দেওয়ার দৃশ্য দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে; যা বিভ্রান্তিকর।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img