বিয়েতে জুতা চুরি হওয়ায় ম্যাক্সওয়েল কর্তৃক মামলার ঘটনাটি মিথ্যা

সম্প্রতি, “বিয়ের আসর থেকে জুতা চুরি, মামলা ঠুকে দিলেন ম্যাক্সওয়েল!” শীর্ষক একটি তথ্য দেশীয় মূলধারার গণমাধ্যমগুলোতে প্রকাশের মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

বিষয়টি নিয়ে একাত্তর খেলাযোগ, বাংলাদেশ প্রতিদিন, কালেরকন্ঠ, যুগান্তর, জাগো নিউজ, সময় নিউজ, সমকাল, ইত্তেফাক, ইনকিলাব সহ অনেক সংবাদমাধ্যম প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। 

Sccreenshot from Kalerkantho website

সময় নিউজ এর অনলাইন সংস্করণে প্রকাশিত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে-

Screenshot from SOMOY TV website

২০১৭ সাল থেকে ম্যাক্সওয়েল চুটিয়ে প্রেম করছেন ভারতীয় বংশদ্ভূত চিকিৎসক বিনি রামনের সঙ্গে। সম্প্রতি তারা দুজন বসেছেন বিয়ের পিঁড়িতে। অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডারের সঙ্গে ভারতীয় এই চিকিৎসকের বিয়ে হয়েছে অস্ট্রেলিয়ান ও ভারতীয় দুই রীতি মেনেই। প্রথমে অস্ট্রেলিয়ান রীতিতে বিয়ে হওয়ার পর তারা আবার বিয়ে করেন দক্ষিণ ভারতীয় রীতিতে। আর সেখানেই এ কাণ্ড।

বিয়ের মঞ্চ থেকে নিজের জুতা চুরি যাওয়ার ক্ষোভে ম্যাক্সওয়েল সোজা চলে যান নিকটবর্তী থানায়। অজ্ঞাত পরিচয় আসামিদের নামে ঠুকে দেন মামলা।

তবে পরবর্তীতে সেই মামলা আবার প্রত্যাহারও করে নিয়েছেন ম্যাড ম্যাক্স। ভারতীয় সংস্কৃতিতে বিয়ের আসরে বরের জুতা চুরি যে রেওয়াজ তা জেনে লজ্জিত ম্যাক্সওয়েল মামলা প্রত্যাহার করে নেন।

বাংলাদেশ প্রতিদিন এর প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে

উপমহাদেশের বিয়েতে নতুন জামাইয়ের জুতা লুকিয়ে রাখা শ্যালক-শ্যালিকাদের কাছে ভারী মজার বিষয়। প্রায় সব বিয়েতেই এমনটা হয়ে থাকে। কঠোর নিরাপত্তার মাঝেও ম্যাক্সওয়েলের জুতা এভাবে কেউ নিয়ে লুকিয়ে রাখেন। বেচারা ম্যাক্সওয়েল জুতা চুরি হয়ে গিয়েছে ভেবে সোজা থানায় গিয়ে অভিযোগ করেন।পরে উপমহাদেশের বিয়ের এই মজার রীতির কথা জানতে পেরে অভিযোগ প্রত্যাহার করে নেন বাইশ গজের এই বিধ্বংসী ব্যাটার।”

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, জুতা চুরি হওয়ায় অস্ট্রেলিয়ান তারকা ক্রিকেটার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল থানায় মামলা করেছেন শীর্ষক দাবিটি সত্য নয় বরং উক্ত বিষয়টি মূলত স্যাটায়ার হিসেবে প্রথমে প্রচারিত হয়েছিলো, যা পরবর্তীতে সত্য ঘটনা দাবিতে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে।

কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে, ভারতীয় সংবাদমাধ্যম Zee News এর মারাঠি সংস্করণে গত ২৪ মার্চে “लग्नात बूट चोरीला गेले म्हणून ग्लेन मॅक्सवेलची पोलिसांत धाव?” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। শিরোনাম টি গুগল ট্রান্সলেট করলে হয়-

বিয়ের জুতো চুরি হওয়ায় পুলিশের কাছে ছুটে গেলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল?

মারাঠি ভাষার উক্ত প্রতিবেদনে বলা হয়, 

 “भारतीय पद्धतीचं लग्न म्हटलं की, अनेक परंपरा या आल्याच…काही परंपरा या फार गमतीशीर असतात. अशीच एक परंपरा म्हणजे नवऱ्यामुलाचे बूट लपवणं. दरम्यान याच परंपरेमुळे ऑस्ट्रेलियाचा धडाकेबाज खेळाडू ग्लेने मॅक्सवेल थेट पोलिसांमध्ये गेला असल्याची माहिती आहे. बूट हरवले, म्हणून ग्लेन मॅक्सवेलने पोलिसांत एफआयआर दाखल केल्याचा एक मीम सध्या तुफान व्हायरल होतोय.

दरम्यान यामध्ये तथ्य नसून हा केवळ एक गंमतीशीर मीम सोशल मीडियावर तुफान व्हायरल झाला आहे. लोकांनीही यावर भरपूर कमेंट्स केल्या आहेत.

या मीममध्ये ऑस्ट्रेलियाच्या एका वेबसाईटमध्ये याची माहिती देण्यात आलीये. या मीममध्ये लिहिलंय की, ‘ग्लेन मॅक्सवेलने त्याच्याच लग्नात बूट हरवल्यामुळे पोलिसांत तक्रार केली आहे. मात्र त्यांनंतर त्याला ही एक परंपरा असल्याचं सांगण्यात आलंय.”

যা গুগলের সাহায্যে অনুবাদ করলে হয়-

“ইন্ডিয়ান স্টাইলে বিয়ে বললে অনেক ঐতিহ্য আসে… কিছু ঐতিহ্য খুব মজার। এমনই একটি প্রথা হল বরের জুতা লুকিয়ে রাখা। এদিকে জানা গেছে, এই ঐতিহ্যের কারণে সরাসরি পুলিশের কাছে গিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। জুতা হারিয়ে গেছে, তাই পুলিশের কাছে এফআইআর দায়ের করা গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের একটি মেম বর্তমানে ভাইরাল হচ্ছে।

এদিকে, এটি একটি সত্য নয় বরং একটি মজার মেম যা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। এ নিয়ে লোকজনও অনেক মন্তব্য করেছেন। মেমটি অস্ট্রেলিয়ার একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হয়েছিল। মেমে বলা হয়েছে, “গ্লেন ম্যাক্সওয়েল তার বিয়ের জুতা হারানোর জন্য পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন। কিন্তু তার পর তাকে বলা হয় এটা একটা ঐতিহ্য।

অর্থাৎ, জি নিউজের এই প্রতিবেদনে গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের জুতা চুরি হওয়ার এই বিষয়টিকে সত্য নয় এবং এটি যে মিম আকারে প্রচারিত হয় তা উল্লেখ করা হয়েছে।

অপরদিকে, এ বিষয়ে গত ২৪ মার্চে প্রকাশিত কিছু ফেসবুক পোস্ট খুঁজে পাওয়া যায়, যেখানে দেখা যায় উক্ত বিষয়টি ফান/স্যাটায়ার হিসেবেই সেখানে প্রচার করা হয়েছে।

গুজবের সূত্রপাত

অনুসন্ধানে দেখা যায়, অস্ট্রেলিয়া ভিত্তিক একটি পোর্টালে গত ২১ মার্চে “Glenn Maxwell Files An FIR After His Shoes Got Stolen In His Wedding, Later Got Informed ‘It’s A Ritual” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনের স্ক্রিনশটকে সূত্র হিসেবে দেখিয়ে উক্ত বিষয়টি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ে। তবে পরবর্তীতে প্রতিবেদনটি মুছে দেয়া হলে উক্ত শিরোনামে অস্ট্রেলিয়ার কোনো পোর্টালে প্রকাশিত কোনো সংবাদ খুঁজে পাওয়া যায় নি।

Screenshot collected

মূলত, গত ২১ মার্চ প্রকাশিত সেই প্রতিবেদনের একটি স্ক্রিনশটকেই সূত্র হিসেবে দেখিয়ে বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্যাটায়ার হিসেবে প্রচারের পর, পরবর্তীতে সেটি সত্য হিসেবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। যার প্রেক্ষিতে এই বিষয়টি এক সময় বিভিন্ন গণমাধ্যমেও প্রচারিত হয়।

অর্থাৎ, গত ২১ মার্চ থেকেই ক্রিকেটার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল এর জুতা চুরির অভিযোগে মামলা করার বিষয়টি প্রচার করা হচ্ছে। দেশীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনগুলোতে উল্লেখ করা হয়, প্রথমে অস্ট্রেলিয়ান রীতিতে বিয়ে হওয়ার পর তারা আবার বিয়ে করেন দক্ষিণ ভারতীয় রীতিতে। আর সেখানেই এ কাণ্ড

Screenshot from SOMOY TV website

কিন্তু অনুসন্ধানে জানা যায় গ্লেন ম্যাক্সওয়েল এর অস্ট্রেলিয়ান রীতির বিয়ে গত ১৮ মার্চ মেলবোর্ন এ অনুষ্ঠিত হয়েছে এবং ভারতীয় রীতির বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে ২৭ মার্চ।

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

A post shared by VINI (@vini.raman)

Screenshot from Hindustan Times website

অর্থাৎ, ২১ মার্চ থেকে গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের জুতা চুরি এবং তার প্রেক্ষিতে মামলার বিষয়টি প্রচারিত হলেও মূলত তখনও ম্যাক্সওয়েলের ভারতীয় রীতির বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়নি, আর সে কারণে স্বভাবতই ভারতীয় রীতিতে বিয়ে করতে গিয়ে জুতা চুরি হওয়ায় ম্যাক্সওয়েল থানায় গিয়ে মামলা করেছেন শীর্ষক দাবিটিও ভিত্তিহীন।

Also Read: আইপিএলে ক্রিকেটার নুরুল হাসান সোহানের দল পাওয়ার দাবিটি মিথ্যা

এছাড়াও, ম্যাক্সওয়েল এর জুতা চুরি এবং তার প্রেক্ষিতে মামলা করতে থানায় যাওয়া সংক্রান্ত কোনো নির্ভরযোগ্য সূত্র ইন্টারনেটে খুঁজে পাওয়া যায় নি।

কি-ওয়ার্ড সার্চ পদ্ধতি ব্যবহার করে, গত ৫ দিনে প্রকাশিত বেশ কয়েকটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া গেলেও সেখানে তারা বিষয়টি মিম আকারে ভাইরাল হওয়ার প্রেক্ষিতে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বলে উল্লেখ করেছে।

পাশাপাশি Hours TV নামের একটি পোর্টালে গত ২৫ মার্চ প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়, উক্ত প্রতিবেদনে তারা গ্লেন ম্যাক্সওয়েল এর জুতা চুরি হওয়ার কারণে এফআইআর দায়ের করার অংশটি ব্যঙ্গাত্মক ছিলো বলে উল্লেখ করেছে।

ম্যাক্সওয়েল
Screenshot from Hours TV website

সুতরাং, অস্ট্রেলিয়ান তারকা ক্রিকেটার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল বিয়ে করতে এসে জুতা হারানোয় থানায় গিয়ে মামলা করার ব্যঙ্গাত্মক বিষয়টিকে সত্য ঘটনা হিসেবে মূলধারার গণমাধ্যমগুলোতে প্রকাশের মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ বানোয়াট এবং মিথ্যা।

[su_box title=”True or False” box_color=”#f30404″ radius=”0″]

  • Claim Review: বিয়ের আসর থেকে জুতা চুরি, মামলা ঠুকে দিলেন ম্যাক্সওয়েল!
  • Claimed By: Facebook Posts
  • Fact Check: False

[/su_box]

তথ্যসূত্র

  1. Zeenews:https://zeenews.india.com/marathi/sports/glenn-maxwell-filed-fir-after-shooes-gets-stolen-in-his-own-wedding/613799 
  2. Vini Raman Instagram: https://www.instagram.com/p/CbRZdServhU
  3. Hindustan Times: https://www.hindustantimes.com/cricket/watch-glenn-maxwell-ties-knot-with-vini-raman-in-traditional-indian-wedding-video-goes-viral-101648535468026.html
  4. Sky247: https://www.sky247.net/cricket/glenn-maxwell-files-fir-for-stolen-shoes-gets-to-know-its-a-ritual/
  5. The12thman: https://the12thman.in/glenn-maxwell-files-fir-after-his-shoes-got-stolen-in-his-wedding-later-got-notified-its-a-ritual/
  6. HoursTv: https://hourstv.com/glenn-maxwell-indian-wedding-ritual/
RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img