গ্র‍্যান্ড মাস্টার প্রজ্ঞানন্দের মায়ের রাস্তায় ঠেলা গাড়িতে রুটি বিক্রির গুজব

সম্প্রতি, দাবা বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলা ভারতীয় তরুণ দাবাড়ু রমেশবাবু প্রজ্ঞানন্দের মা রাস্তার ঠেলা গাড়িতে রুটি বিক্রি করে দাবিতে একটি ছবি সম্বলিত তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে। 

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কয়েকটি পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, গ্র‍্যান্ডমাস্টার রমেশবাবু প্রজ্ঞানন্দের মা নাগালক্ষ্মী রাস্তার ঠেলা গাড়িতে করে রুটি বিক্রি করেন না বরং তিনি একজন গৃহিনী (Homemaker) এবং বিভিন্ন টুর্নামেন্টে অংশ নিতে প্রজ্ঞানন্দ যখন বাইরে যায় তখন তিনিও ছেলের সফরসঙ্গী হন।

অনুসন্ধানের শুরুতে প্রাসঙ্গিক কি ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম The Statesman এর ওয়েবসাইটে গত ২৫ আগস্ট ‘Who are Rameshbabu and Nagalakshmi? Details about Praggnanandhaa parents’ শীর্ষক শিরোনামে প্রজ্ঞানন্দের পরিবারকে নিয়ে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: The Statesman

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, গ্র‍্যান্ডমাস্টার প্রজ্ঞানন্দের বাবা রমেশবাবু তামিলনাড়ু স্টেট কো-অপারেটিভ ব্যাংকের ব্রাঞ্চ ম্যানেজার এবং মা নাগালক্ষ্মী একজন গৃহিনী (Homemaker)।

Screenshot: The Statesman

পরবর্তী অনুসন্ধানে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম The Times of India এর ওয়েবসাইটে গত ২৩ আগস্ট ‘Behind Praggnanandhaa’s meteoric rise, a proud mother who is always by his side’ শীর্ষক শিরোনামে প্রজ্ঞানন্দের মায়ের বিষয়ে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: The Times of India

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, প্রজ্ঞানন্দ যখন টুর্নামেন্টে অংশ নিতে বিভিন্ন জায়গায় যায়, তখন তার মা চাল, রাইস কুকার, বিভিন্ন ধরনের মশলা সাথে নিয়ে যান যাতে প্রজ্ঞানন্দ ভালো খাবার খেয়ে খেলায় আরও ভালো করতে পারে। 

অর্থাৎ, উপরোক্ত বিষয়গুলো পর্যালোচনা করলে এটা স্পষ্ট যে, গ্রান্ডমাস্টার প্রজ্ঞানন্দের মায়ের রুটি বিক্রি করার দাবিটি সঠিক নয়। 

পাশাপাশি, গণমাধ্যম বা অন্যকোনো নির্ভরযোগ্য সূত্রে প্রজ্ঞানন্দের মা নাগালক্ষ্মী রাস্তার ঠেলা গাড়িতে করে রুটি বিক্রি করার বিষয়ে কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

মূলত, সম্প্রতি দাবা বিশ্বকাপের ফাইনালে ওঠে ভারতীয় তরুণ রমেশবাবু প্রজ্ঞানন্দ। পরবর্তীতে তার সাফল্যের পেছনে মায়ের ভূমিকার কথা লিখতে গিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নেটিজেনরা তার মা নাগালক্ষ্মী রাস্তার ঠেলা গাড়িতে রুটি বিক্রি করে ছেলের স্বপ্ন পূরণ করেছে দাবিতে প্রচার করে। তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে জানা যায়, আলোচিত এই দাবিটি সঠিক নয়। প্রকৃতপক্ষে প্রজ্ঞানন্দের মা নাগালক্ষ্মী একজন গৃহিনী (Homemaker) এবং বাবা রমেশবাবু তামিলনাড়ু স্টেট কো-অপারেটিভ ব্যাংকের ব্রাঞ্চ ম্যানেজার। 

প্রসঙ্গত, দ্বিতীয় ভারতীয় হিসেবে দাবা বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলেছেন প্রজ্ঞানন্দ। একইসাথে তিনি দ্বিতীয় ভারতীয় হিসেবে ক্যান্ডিডেটস টুর্নামেন্টে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছেন।

সুতরাং, ভারতীয় গ্র‍্যান্ডমাস্টার প্রজ্ঞানন্দের মা নাগালক্ষ্মী রাস্তার ঠেলা গাড়িতে করে রুটি বিক্রি করেন দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত তথ্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img