এরদোয়ান ১৪ মে’র নির্বাচনে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হননি

গত ১৪ মে তুরস্কের জাতীয় নির্বাচনে রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান পুনরায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন শীর্ষক একটি দাবি একটি গণমাধ্যম এবং ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছে।

উক্ত দাবিতে গণমাধ্যমে প্রচারিত সংবাদ দেখুন  মর্নিং টাইমস (ফেসবুক)।

একই দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

একই দাবিতে ইউটিউবের একটি ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, তুরস্কের জাতীয় নির্বাচনে এরদোয়ান পুনরায় বিজয়ী ঘোষিত বা প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হননি বরং নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফলে এরদোয়ান ও অন্য প্রার্থীদের কেউই নিয়ম অনুযায়ী ৫০ শতাংশ ভোট না পাওয়ায় আগামী ২৮ মে দ্বিতীয় দফায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এ বিষয়ে অনুসন্ধানে প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে কাতারের সংবাদমাধ্যম আল জাজিরায় গত ১৫ মে ‘Turkey’s presidential election goes to run-off: Election council’ শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

 Screenshot: Al Jazeera

উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, কোনো  প্রার্থী নিয়ম অনুযায়ী এককভাবে ৫০ শতাংশ ভোট না পাওয়ায় দ্বিতীয় দফায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

পরবর্তীতে আল জাজিরার আরেকটি প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, বাংলাদেশ সময় সোমবার (১৫ মে) দুপুর ৩টা পর্যন্ত ৯৯ দশমিক ৩৮ শতাংশ ভোট গণনার ফল প্রকাশ হয়েছে। এতে এরদোয়ান পেয়েছেন ৪৯ দশমিক ৪২ শতাংশ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কেমাল কিলিচদারোগলু পেয়েছেন ৪৪ দশমিক ৯৫ শতাংশ ভোট। তৃতীয় প্রার্থী সিনান ওগান পেয়েছেন ৫ দশমিক ২০ শতাংশ ভোট।

Screenshot: Al Jazeera 

তুরস্কের প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী, ভোটের ফল চূড়ান্ত হওয়ার পর যদি কোনো প্রার্থী ৫০ শতাংশ ভোট না পান, তবে দুই সপ্তাহের মধ্যে দ্বিতীয় দফায় নির্বাচন হবে। জয় নিশ্চিতের জন্য ৫০ শতাংশ ভোট পেতে হবে। ১৪ মে’র নির্বাচনে কোনো প্রার্থী ৫০ শতাংশ ভোট না পাওয়ায় দ্বিতীয় দফা নির্বাচন হবে আগামী ২৮ মে

মূলত, সম্প্রতি তুরস্কে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে এরদোয়ান এগিয়ে থাকলেও দেশটির নির্বাচনের নিয়ম অনুযায়ী বিজয়ী ঘোষণার জন্য ৫০ শতাংশ ভোট পেতে হতো তাকে, যা তিনি পাননি। এরদোয়ান ছাড়া অন্য প্রার্থীরাও ৫০ শতাংশ ভোট পাননি। এর ফলে নিয়ম অনুযায়ী দ্বিতীয় দফায় পুনরায় ভোট গ্রহণ করা হবে আগামী ২৮ মে। কিন্তু বিষয়টি যথাযথভাবে যাচাই না করেই এরদোয়ান পুনরায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন দাবিতে একটি গণমাধ্যম এবং ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে।  

উল্লেখ্য, তুরস্কে ছয় কোটি ৪০ লাখ ভোটার নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। এরমধ্যে ৫০ লাখ হচ্ছেন নতুন ভোটার, যাদের বয়স ১৮-২২ বছরের মধ্যে, যারা প্রথমবারের মত ভোট দিয়েছেন ভোটার। 

সুতরাং, তুরস্কে গত ১৫ মে এর নির্বাচনে রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান ও অন্য প্রার্থীদের কেউই নিয়ম অনুযায়ী ৫০ শতাংশ ভোট না পাওয়ায় কাউকেই প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত না করা হলেও একটি গণমাধ্যম ও ইন্টারনেটে এরদোয়ান পুনরায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন শীর্ষক একটি দাবি প্রচার করা হয়েছে; যা বিভ্রান্তিকর। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img