শনিবার, জুলাই 20, 2024
spot_img

ভিন্ন ব্যক্তির ছবি সম্পাদনার মাধ্যমে ঐশ্বরিয়ার দ্বিতীয়বার মা হওয়ার গুজব

সম্প্রতি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “৪৮ বছর বয়সে দ্বিতীয় বার মা হয়েছেন ঐশ্বরিয়া রায়” শীর্ষক দাবিতে একটি ছবি প্রচারিত হয়।

উক্ত দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে জানা যায়, ৪৮ বছর বয়সে দ্বিতীয় বার মা হয়েছেন ঐশ্বরিয়া রায় শীর্ষক দাবিতে প্রচারিত ছবিটি বাস্তব নয়, বরং ভিন্ন ব্যক্তির মুখমন্ডলে ঐশ্বরিয়া ও তার স্বামী অভিষেকের মুখমন্ডল বসিয়ে এই দাবিটি প্রচার করা হয়েছে।

অনুসন্ধানে দাবিটির সত্যতা যাচাইয়ে প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে দেশীয় গণমাধ্যম (, , ) থেকে জানা যায়, গত ১৬ মে কান উৎসবে ভাঙা হাত নিয়েই মেয়ে আরাধ্যার সাথে হাজির হন ঐশ্বরিয়া। কিন্তু ভারতীয় বা অন্য কোনো দেশের সংবাদমাধ্যমে অভিষেক-ঐশ্বরিয়া দম্পতির দ্বিতীয় সন্তান লাভের কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। এছাড়াও অভিষেক বচ্চন কিংবা ঐশ্বরিয়া রায় এর ব্যক্তিগত ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকেও তাদের ২য় সন্তানের আগমণ প্রসঙ্গে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। 

অনুসন্ধানে রিভার্স ইমেজ সার্চ টুল ব্যবহার করে ২০২২ সালের ৩০ সেপ্টেম্বরে রাশিয়ান সংবাদ মাধ্যম Dzen Ru এবং একই বছরের ১১ সেপ্টেম্বর তুরস্কের সংবাদ মাধ্যম Birsen Altuntas এর প্রতিবেদনে দাবিকৃত ছবি দুটির একটি পাওয়া যায়। প্রতিবেদনগুলো ছিল তুরস্কের তারকা দম্পতি গুপসে ওজায় ও বারিশ আরদিউশের প্রথম সন্তান জন্মগ্রহণের। প্রতিবেদনগুলোয় প্রকাশিত ছবিটির সঙ্গে উক্ত দাবিকৃত অভিষেক বচ্চন ও ঐশ্বরিয়া রায়ের নবজাতক কোলে ক্যামেরায় পোজ দেওয়া ছবিটির মিল রয়েছে। 

Image comparison : Rumor scanner

ছবি দুটির তুলনামূলক বিশ্লেষণে নবজাতক, নবজাতকের মাথায় থাকা বো রিবন, নবজাতককে জড়িয়ে রাখা তোয়ালে, ছবিতে থাকা নারীর পোশাক ও হাতের নেইল পলিশের মিল পাওয়া যায়।

অর্থাৎ তুরস্কের তারকা দম্পতি গুপসে ওজায় ও বারিশ আরদিউশের ২০২২ সালের ছবিটি সম্পাদনার মাধ্যমে অভিষেক-ঐশ্বরিয়া দম্পতির ২য় সন্তান লাভের দাবিকৃত ছবিটি তৈরি করা হয়েছে। 

তবে, অনুসন্ধানে দাবিকৃত পোস্টের অপর ছবিটির সত্যতা খুঁজে পাওয়া যায় নি। ভালোভাবে লক্ষ্য করলে দেখা যায়, ছবিটি ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় নির্মাণ করা হয়েছে, যেখানে নবজাতকের মুখের উপর ঐশ্বরিয়ার মুখের ছবি সম্পাদনার মাধ্যমে বসিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফলে নবজাতকের মুখ ও কপাল নারির থুতনির সাথে মিশে গিয়েছে। যেহেতু ছবিটি অপর আরেকটি যাচাইকৃত সম্পাদিত ছবির সাথে প্রচার করা হয়েছে, সেহেতু এটাই প্রতীয়মান হয় যে, উক্ত ছবিটিও এডিটেড।

এছাড়াও ২০২৩ সালে ঐশ্বরিয়া রায় ৫০ বছরে পদার্পণ করেন, যা উক্ত দাবিকৃত পোস্টে ৪৮ বছর দাবি করে ভুল বয়স প্রচার করা হয়েছে।

মুলত, ফেসবুকে “৪৮ বছর বয়সে দ্বিতীয় বার মা হয়েছেন ঐশ্বরিয়া রায়” শীর্ষক দাবিতে একটি ছবি ব্যাপক প্রচারিত হতে দেখেছে রিউমর স্ক্যানার। অনুসন্ধানে জানা যায়, উক্ত ছবিটি আসল নয়। ২০২২ সালের তুরস্কের তারকা দম্পতি গুপসে ওজায় ও বারিশ আরদিউশের প্রথম সন্তান জন্মগ্রহণের ছবিকে সম্পাদনার মাধ্যমে দাবিকৃত ছবিটি প্রচার করা হয়। 

সুতরাং, তুরস্কের তারকা দম্পতির ছবিকে বিকৃত করে  “৪৮ বছর বয়সে দ্বিতীয় বার মা হয়েছেন ঐশ্বরিয়া রায়” দাবিতে  ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে; যা এডিটেড বা সম্পাদিত।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img