কলম্বাস আমেরিকা আবিষ্কার করেননি

ইতালিয়ান অভিযাত্রী ক্রিস্টোফার কলম্বাস আমেরিকা (দ্য নিউ ওয়ার্ল্ড) আবিষ্কার করেছিলেন দাবিতে বহুবছর ধরেই একটি তথ্য প্রচারিত হয়ে আসছে।

কলম্বাস

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

ইতালিয়ান অভিযাত্রী ক্রিস্টোফার কলম্বাস আমেরিকা আবিষ্কার করেননি বরং কলম্বাস আমেরিকায় পা রাখার পূর্বেই লিফ এরিকসন নামের ভাইকিং আমেরিকা মহাদেশে পা রাখেন। এছাড়াও, কলম্বাস আমেরিকায় পৌঁছার বহু শতাব্দী আগে থেকেই এ অঞ্চলে মানুষের উপস্থিতি ছিল। 

কলম্বাসের সমুদ্রযাত্রা

পঞ্চদশ শতকের শেষের দিকে ইউরোপ থেকে এশিয়া মহাদেশে (চীন, ভারত) সহজতর সমুদ্রপথ আবিষ্কারের উদ্দেশ্যে সমুদ্রযাত্রা করেন ইতালিয়ান অভিযাত্রিক ক্রিস্টোফার কলম্বাস। স্প্যানিশ সম্রাট ফার্ডিনান্ড ও ইসাবেলার পৃষ্ঠপোষকতায় কলম্বাস সমুদ্রযাত্রা করেন। সম্রাটের সাথে চুক্তি হয় যে কলম্বাস তার যাত্রায় যা সম্পদ অর্জন করবেন তার দশ শতাংশ রেখে দিতে পারবেন। ১৪৯২ সালের ৩ আগস্ট কলম্বাস তিনটি জাহাজ ও ক্রু নিয়ে নিজের ঐতিহাসিক সমুদ্রযাত্রা শুরু করেন।

কলম্বাস কি আমেরিকায় পা রাখা প্রথম মানুষ?

ব্রিটেনের রয়েল মিউজিয়াম গ্রিনউইচ এর ওয়েবসাইটে প্রাপ্ত তথ্যমতে, কলম্বাস আমেরিকা আবিষ্কার করেননি। তার সিরিজ সামুদ্রিক অভিযাত্রায় তিনি বাহামা দ্বীপপুঞ্জ ও হিস্পানিওলা দ্বীপে পা রাখেন। বর্তমানের হাইতি ও ডোমিনিকান রিপাবলিক হিস্পানিওলা দ্বীপেরই দুটি অংশ। কলম্বাস তার পরবর্তী সমুদ্রযাত্রাগুলোতে আরও দক্ষিণে অগ্রসর হন। রয়েল মিউজিয়ামের তথ্যমতে তিনি দক্ষিণ ও মধ্য আমেরিকাতেই পৌঁছাতে পেরেছিলেন। কিন্তু, কলম্বাস বর্তমান যুক্তরাষ্ট্রের ভূখণ্ডের কাছাকাছিও পৌঁছতে পারেননি।

ব্রিটানিকার তথ্যমতে, কলম্বাসের আমেরিকা (দ্য নিউ ওয়ার্ল্ড) আবিষ্কারের বিষয়টি দীর্ঘদিন ধরে প্রচলিত হয়ে আসলেও তথ্যটি সঠিক নয়। লিফ এরিকসন নামের ভাইকিং কলম্বাসেরও পূর্বে উত্তর আমেরিকার ভূখন্ডে পা রাখেন। 

এছাড়াও কলম্বাসের দক্ষিণ আমেরিকায় পা রাখারও ৫০০ বছর পূর্বে কানাডা উপকূলে ভাইকিংদের বসতির নিদর্শন পাওয়া যায়। কানাডার নিউফাউন্ডল্যান্ড দ্বীপে ৮ টি ঘরের ভাইকিং স্থাপনা সেসময়ের ভাইকিং বসতির অকাট্য প্রমাণ হয়ে দাঁড়িয়ে আছে। স্থাপনাটি বর্তমানে ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট হিসেবে স্বীকৃত।

ওয়াশিংটন পোস্টের তথ্যমতেও, কলম্বাস আমেরিকায় পা রাখা প্রথম মানুষ নন। কলম্বাস তার সিরিজ সমুদ্রযাত্রায় ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জ, দক্ষিণ আমেরিকা ও মধ্য আমেরিকান উপকূলে অভিযান চালালেও উত্তর আমেরিকা পৌঁছতে পারেননি। কলম্বাসের জন্মেরও ৫০০ বছর পূর্বে ভাইকিং লিফ এরিকসন কানাডা উপকূলে পা রাখেন। এছাড়াও, ফিনিশিয় নাবিকরাও কলম্বাসের বহুবছর পূর্বেই আমেরিকা মহাদেশে পা রাখেন। 

অর্থাৎ, কলম্বাস তার চার দফার সমুদ্রযাত্রায় মধ্য ও দক্ষিণ আমেরিকার বিভিন্ন দ্বীপ ভ্রমণ করলেও উত্তর আমেরিকার ভূখণ্ডে তিনি পৌঁছতে পারেননি। এমনকি কলম্বাস আমেরিকায় পা রাখা প্রথম ইউরোপিয়ানও নন। তার বহুবছর পূর্বেই ভাইকিং ও ফিনিশিয়রা আমেরিকায় পা রেখেছিলেন। তবে, কলম্বাস আমেরিকায় পা রাখার পর ইউরোপের সাথে আমেরিকার বাণিজ্যিক যোগসূত্রের দ্বার উন্মোচিত হয়। তাই, “কলম্বাস আমেরিকা আবিষ্কার করেছিলেন” না বলে “কলম্বাস আমেরিকাকে পশ্চিম ইউরোপের সাথে পরিচিত করিয়ে দিয়েছিলেন” বলাই সঠিক।

তাহলে আমেরিকা আবিষ্কারের কৃতিত্ব কার?

কলম্বাস পা রাখার পূর্বেই আমেরিকায় মানববসতি গড়ে উঠেছিল। আমেরিকায় মানববসতি গড়ে ওঠার এ ইতিহাসও বেশ পুরোনো। আমেরিকান আর্কিওলজি ম্যাগাজিনের সম্পাদক মাইকেল বাওয়ার মতে, কমপক্ষে ১৫০০০ বছর পূর্বে আমেরিকা মহাদেশে মানববসতি গড়ে উঠেছিল। খুব সম্ভবত তারা এশিয়া থেকে বেরিং প্রণালী অতিক্রম করে বর্তমান আমেরিকার আলাস্কা ও সাইবেরিয়া অঞ্চলে বসতি গড়ে। এই মানুষরাই প্রথম আমেরিকা আবিষ্কারের কৃতিত্বের দাবিদার। ন্যাটিভ আমেরিকানদের ডিএনএ পরীক্ষা করেও এ ব্যাপারে সম্মত হওয়া গেছে যে আলাস্কা ও সাইবেরিয়া অঞ্চলে বসবাসকারীরাই সর্বপ্রথম আমেরিকা আবিষ্কার করেছিল।

মূলত, বহুবছর ধরেই ইতালিয়ান অভিযাত্রী ক্রিস্টোফার কলম্বাস আমেরিকা (দ্য নিউ ওয়ার্ল্ড) আবিষ্কার করেছিলেন দাবিতে একটি তথ্য প্রচারিত হয়ে আসছে। তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, কলম্বাস আমেরিকায় পা রাখার পূর্বেই লিফ এরিকসনের মত ভাইকিংরা আমেরিকা মহাদেশে পা রাখেন। এছাড়াও, কলম্বাস আমেরিকায় পৌঁছার হাজার বছর পূর্বে এ অঞ্চলে জনবসতি গড়ে ওঠে।

সুতরাং, ইতালিয়ান অভিযাত্রী ক্রিস্টোফার কলম্বাস আমেরিকা আবিষ্কার করেছিলেন মর্মে প্রচারিত তথ্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img