এটি ইব্রাহিম রাইসির মৃত্যুতে কিম জং উনের কান্নার দৃশ্য নয়

গত ১৯ মে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে নিহত হন ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি। এর প্রেক্ষিতে গত ২৩ মে শর্ট ভিডিও প্লাটফর্ম টিকটকে ‘নিজের বন্ধু ইব্রাহিম রাইসিকে হারিয়ে সংবাদ সম্মেলনে কান্না করছে উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন!’ শীর্ষক শিরোনামে কিম জং উনের কান্নার দৃশ্য সম্বলিত একটি ছবি যুক্ত ভিডিও প্রচার করা হয়েছে।

 কিম জং

Fahmidamim56 (আর্কাইভ) শর্ট ভিডিও প্লাটফর্ম টিকটকে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

টিকটকের এই ভিডিওটি এখন পর্যন্ত প্রায় ২ লক্ষ ৮৬ হাজার বারের অধিক দেখা হয়েছে। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, কিম জং উনের কান্নারত দৃশ্যটি ইব্রাহিম রাইসির মৃত্যু পরবর্তী সময়ের নয় বরং, ২০২৩ সালের ডিসেম্বরে উত্তর কোরিয়ায় মায়েদের এক সভায় জড়ো হওয়া হাজার হাজার নারীর উদ্দেশে কিম জং উনের ভাষণ দেওয়ার সময় কান্নার দৃশ্যকে উক্ত দাবিতে প্রচার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে অনুসন্ধানে রিভার্স ইমেজ সার্চ করে r/northkorea নামের একুটি Reddit অ্যাকাউন্টে ২০২৩ সালের ৬ ডিসেম্বর ‘Kim Jong-Un Cries As He Asks North Korean Mothers To Have More Babies’ শিরোনামে একই ছবি পাওয়া যায়। 

Comparison Rumor Scanner

পরবর্তীতে এই বিষয়ে জানতে কি-ওয়ার্ড সার্চ করে ব্রিটিশ দৈনিক The Telegraph এর ওয়েবসাইটে ২০২৩ সালের ৫ ডিসেম্বর ‘Watch: Kim Jong-un cries as he tells women to have more babies’ শীর্ষক শিরোনামে একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়। 

প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়, ‘উত্তর কোরিয়ার নারীদের আরও বেশি সন্তান জন্ম দিতে এবং কর্তৃত্ববাদী রাষ্ট্রকে ভালোবাসার আহ্বান জানাতে গিয়ে কিম জং-উনকে কাঁদতে দেখা গেছে। পিয়ংইয়ংয়ে মায়েদের এক সভায় জড়ো হওয়া হাজার হাজার নারীর উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার সময় উত্তর কোরিয়ার নেতাকে সাদা রুমাল দিয়ে চোখ মুছতে দেখা গেছে।’

এছাড়াও, NEW YORK POST এর ওয়েবসাইটে ২০২৩ সালের ৫ ডিসেম্বর ‘Kim Jong Un tearfully begs North Korean women to have more kids as birth rate declines’ শিরোনামে এই বিষয়ে আরেকটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়।

প্রতিবেদটিতে উল্লেখ করা হয়, উত্তর কোরিয়ার শক্তিশালী নেতা কিম জং উন কান্নাজড়িত কণ্ঠে তার দেশের নারীদের কাছে ক্রমহ্রাসমান জন্মহার পুষিয়ে নিতে আরও সন্তান নেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছেন।

এছাড়া, প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চ করে ইব্রাহিম রাইসির মৃত্যুতে কিম জং উন কান্না করেছেন কিনা সে বিষয়ে কোনো সংবাদ আন্তর্জাতিক কোনো সংবাদমাধ্যমে পাওয়া যায়নি।

মূলত, সম্প্রতি টিকটকে ‘নিজের বন্ধু ইব্রাহিম রাইসিকে হারিয়ে সংবাদ সম্মেলনে কান্না করছে উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন!’ শীর্ষক শিরোনামে কিম জং উন কান্নার দৃশ্যের একটি ছবিযুক্ত ভিডিও প্রচার করা হয়েছে। তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ২০২৩ সালের ডিসেম্বরে উত্তর কোরিয়ায় মায়েদের জাতীয় এক সভায় জড়ো হওয়া হাজার হাজার নারীর উদ্দেশে কিম জং উনের ভাষণ দেওয়ার সময় কান্নাজড়িত কন্ঠে রুমাল দিয়ে চোখ মোছার দৃশ্যকে উক্ত দাবিতে প্রচার করা হয়েছে।

সুতরাং, ইরানের সাবেক প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির মৃত্যুতে সংবাদ সম্মেলনে কাদঁলেন কিম জং উন শীর্ষক দাবিতে ২০২৩ সালের ছবি প্রচার করা হচ্ছে, যা বিভ্রান্তিকর।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img