রবিবার, জুলাই 21, 2024
spot_img

৩০০ আসনের ভোট স্থগিতের গুজব

গত ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট জালিয়াতির অভিযোগে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ৩০০ আসনে ভোট স্থগিত করেছেন দাবিতে ‘সিইসি কেন্দ্রে ঢুকে দেখেন শুধু জাল ভোট ফাইনালি ৩০০ আসনে ভোট স্থগিত করলেন’ শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও ইউটিউবে প্রচার করা হয়েছে।

৩০০ আসনের ভোট

ইউটিউবে প্রচারিত এমন ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, গত ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ৩০০ আসনের ভোট স্থগিত করা হয়নি প্রকৃতপক্ষে, ২০২২ সালের অক্টোবর মাসে গাইবান্ধা-৫ আসনে অনুষ্ঠিত উপ-নির্বাচনের ভোট গ্রহণ স্থগিত করার ঘটনায় প্রকাশিত কয়েকটি সংবাদের ভিডিওর সাথে ভোট জালিয়াতির একটি ভিডিও এবং ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের ভোট দেওয়ার কয়েকটি ভিডিও যুক্ত করে আলোচিত দাবিটি প্রচার করা হচ্ছে। 

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি পর্যালোচনা করে রিউমর স্ক্যানার টিম। এতে দেখা যায়, আলোচিত ভিডিওটির ইন্ট্রোতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালকে ভোট কেন্দ্র প্রবেশ করতে দেখা যায়। যার পরবর্তীতে  তার প্রেস ব্রিফিংয়ের আরেকটি ভিডিও দেখানো হয় যেখানে তিনি বলেন, ‘এরপরই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি সমগ্র অঞ্চলের… ভোট কার্যক্রম আমরা বন্ধ করে দিয়েছি।’ এরপর ভোট জালিয়াতির একটি ভিডিও এবং Jagonews এর একটি ভিডিও প্রতিবেদনের উপস্থাপকের অংশ দেখানো হয়। যাতে উপস্থাপককে বলতে শোনা যায়, ‘সিইসি বলেন নির্বাচন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ায় বন্ধ ঘোষণা করা হলো।’ সর্বপরি নির্বাচন কমিশনারের ভোট দেওয়ার কয়েকটি ভিডিও দেখানো হয়। যাতে ভোট কেন্দ্রে কোনো জালিয়াতির প্রমাণ সংক্রান্ত কোনো দৃশ্য বা তথ্য দেখানো হয়নি।

ভিডিও যাচাই ১

আলোচিত ভিডিওর শুরুতে দেখানো প্রধান নির্বাচন কমিশনারের প্রেস ব্রিফিংয়ের ভিডিওটি অনুসন্ধানে ভিডিওতে থাকা ‘বাংলা BANGLA TV’ লেখা সম্বলিত লোগোটির সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Bangla TV এর ইউটিউব চ্যানেলে ২০২২ সালের ১২ অক্টোবর গাইবান্ধা-৫ আসনের উপ-নির্বাচন বন্ধ ঘোষনা | Gaibandha Election News | Bangla TV শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot: Youtube

ভিডিওটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, আলোচিত ভিডিওতে দেখানো ভিডিওর সাথে উক্ত ভিডিও প্রতিবেদনের হুবহু মিল রয়েছে।

Video Comparison by Rumor Scanner

এছাড়াও ভিডিও প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, নানা অনিয়ম ও জালিযাতির অভিযোগে ২০২২ সালের ১২ অক্টোবর গাইবান্ধা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনে ভোট গ্রহণ বন্ধ ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। এবিষয়ে সেসময় প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল গণমাধ্যমকে বলেন,  ‘নির্বাচন কমিশনের কাছে যদি এটি প্রতীয়মান হয় যে, নির্বাচন সঠিকভাবে হচ্ছে না। তবে যে কোনো কেন্দ্রের বা সকল কেন্দ্রের অর্থাৎ এন্টায়ার কন্সটিটিউয়েন্সের ভোট কমিশন বন্ধ করে দিতে পারবে; স্থগিত নয় বন্ধ করে দিতে পারবে। ৫১টি কেন্দ্রের ভোট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। ওর পরই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি সমগ্র কন্সটিটিউয়েন্সের মানে পুরো অঞ্চলের নির্বাচনি এলাকা গাইবান্ধা-৫ এর ভোট কার্যক্রম আমরা বন্ধ করে দিয়েছি।’

অর্থাৎ, ২০২২ সালের প্রধান নির্বাচন কমিশনারের উক্ত প্রেস ব্রিফিংয়ের ভিডিওটির বক্তব্য কাট করে আলোচিত দাবির ভিডিওর সাথে জুড়ে দেওয়া  হয়েছে। 

ভিডিও যাচাই ২

পরবর্তীতে ভিডিওতে দেখানো Jagonews এর প্রতিবেদনটি অনুসন্ধানে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Jago news এর ইউটিউব চ্যানেলে ২০২২ সালের ১২ অক্টোবর গাইবান্ধা-৫ আসনের উপ-নির্বাচন বন্ধ: সিইসি|| Jago News শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ভিডিও প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: Youtube

প্রতিবেদনটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, আলোচিত ভিডিওতে দেখানো প্রতিবেদনের সাথে উক্ত প্রতিবেদনের হুবহু মিল রয়েছে।

Video Comparison by Rumor Scanner

এছাড়াও ভিডিও প্রতিবেদনটি পর্যালোচনা করে জানা যায়, উক্ত প্রতিবেদনটিও ২০২২ সালে অনুষ্ঠিত গাইবান্ধা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনকে নিয়ে করা। এর সাথে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কোনো সম্পর্ক নেই।

ভিডিও যাচাই ৩

আলোচিত ভিডিওতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালের ভোট কেন্দ্র পরিদর্শনের ভিডিও নির্দেশকারী ভিডিওটি অনুসন্ধানে প্রাসঙ্গিক নানা কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Kalbela World এর ফেসবুক পেজে গত ৭ জানুয়ারি Live: ভোট দিচ্ছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার… শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি লাইভ ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot: Facebook

ভিডিওটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, আলোচিত ভিডিওতে দেখানো ভিডিওটির শুরুর কিছু অংশের সাথে এটির হুবহু মিল রয়েছে। 

Video Comparison by Rumor Scanner

এছাড়াও ভিডিওটি থেকে জানা যায়, গত ৭ জানুয়ারি প্রধান নির্বাচন কমিশনার হাবিবুল আউয়াল ভোট প্রদানের জন্য ভোট কেন্দ্রে গেলে সেসময় উক্ত লাইভ ভিডিওটি কালবেলার ফেসবুক পেজে প্রচার করা হয়।

ভিডিও যাচাই ৪

আলোচিত ভিডিওটির শেষাংশে দেখানো সংবাদকর্মীদের উদ্দেশ্যে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বক্তব্য দেওয়ার ভিডিওটি অনুসন্ধানে ভিডিওর শেষে ভিডিও ধারণকারী ব্যক্তির ‘আপনাদেরকে সরাসরি দেখাচ্ছি যায়যায়দিনের মাধ্যমে’ শীর্ষক কথাটির সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে দৈনিক যায়যায়দিন এর ফেসবুক পেজ Jaijaidin DIgital এ গত ৭ জানুয়ারি ভোট দিতে এসেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার, দেখুন সরাসরি শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত আরেকটি লাইভ ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot: Facebook

ভিডিওটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, উক্ত ভিডিওটির সাথে আলোচিত ভিডিওর শেষে দেখানো প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বক্তব্য প্রদানের ভিডিওর হুবহু মিল রয়েছে। এছাড়াও, ভিডিওটি থেকে জানা যায়, ‍উক্ত ভিডিওটিও সিইসি হাবিবুল আউয়ালের ভোট প্রদান পরবর্তী সময়ে ধারণ করা। 

Video Comparison by Rumor Scanner

তবে ভিডিওটির কোথাও তাকে ৩০০ আসনের ভোট স্থগিত ঘোষণা করতে শোনা যায়নি। 

এছাড়া, কি ওয়ার্ড অনুসন্ধানে মূলধারার গণমাধ্যমে আলোচিত দাবির সত্যতা পাওয়া যায়নি। তবে ময়মনসিংহ- ৩ আসনের একটি কেন্দ্রে ভোট স্থগিত হওয়ায় ঐ আসনের ফল ঘোষণা স্থগিত রাখার কথা জানা গেছে। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে নওগাঁ-২ আসনের নির্বাচন ভোটের তারিখের পূর্বেই স্থগিত করা হয়েছিল। যা আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে।

তাছাড়া, জাল ভোটের দাবির বিষয়ে অনুসন্ধানে কয়েকটি আসনের একাধিক কেন্দ্রে প্রকাশ্যে নৌকা প্রতীকের ব্যালটে সিল মারার বা নৌকা প্রতীকের সিল সম্বলিত ব্যালটের ভিডিও প্রকাশ হওয়ার কথা গণমাধ্যম সূত্রে (, ,) জানা যায়। এসব অভিযোগে একাধিক কেন্দ্রে সিল মারা ব্যালট বাতিল ও কেন্দ্রের ভোট বাতিলের সংবাদও পাওয়া যায়।

মূলত, গত ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হয় দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এতে ৩০০ আসনের মধ্যে ২৯৮ টি আসনের ফলাফল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। যার ২২২টিতে জয় লাভ করে টানা চতুর্থবার সরকার গঠন করতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। উক্ত নির্বাচনের দিন প্রধান নির্বাচন কমিশনার হাবিবুল আউয়াল রাজধানীর শান্তিনগরে অবস্থিত হাবীবুল্লাহ্ বাহার ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে ভোট প্রদান করেন। এসময় দেশীয় গণমাধ্যমগুলো তার ভোট প্রদান দৃশ্যটি সরাসরি সম্প্রচার করে। উক্ত ভোট প্রদানের সরাসরি সম্প্রচার করা ভিডিও এবং এর সাথে ২০২২ সালের শেষের দিকে অনুষ্ঠিত গাইবান্ধা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনের ভোট গ্রহণ স্থগিত করার ঘটনায় প্রকাশিত কয়েকটি সংবাদের ভিডিও ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় সমন্বয়ের মাধ্যমে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল কর্তৃক ৩০০ আসনের ভোট স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে দাবিতে একটি ভিডিওটি ইন্টারনেটে প্রচার  করা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৩০০ আসনের ভোট স্থগিতের কোনো ঘটনা ঘটেনি। একটি কেন্দ্র স্থগিত থাকায় ময়মনসিংহ-৩ (গৌরীপুর) আসনের ফল স্থগিত রাখা হয়েছে। অন্যদিকে গত ২৯ ডিসেম্বর নওগাঁ- ২ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আমিনুল হক মারা গেলে সে আসনটিতে ৭ জানুয়ারির ভোট স্থগিত করে ইসি। এছাড়া বাকি ২৯৮টি আসনে ভোটে বিজয়ী প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। 

সুতরাং, প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল ৩০০ আসনের ভোট স্থগিত করেছেন দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচারিত তথ্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img