সোমবার, মে 20, 2024
spot_img

ভিডিওটি সাম্প্রতিক সময়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দুই পক্ষের সংঘর্ষের নয়

সম্প্রতি, “ইফতার আয়োজনকে কেন্দ্র করে শুরু হয় ভয়ানক রক্তক্ষয়ী লড়াই, আহত শতাধিক পুলিশ। টেটা যুদ্ধে একে অপরকে ঘায়েল করার আপ্রাণ চেষ্টার অংশ বিশেষ, ঘটনাটি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার।” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও ইউটিউবে ছড়িয়ে পড়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ফেসবুক এবং ইউটিউবে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে  এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন এখানে, এখানে, এখানেএখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

এছাড়াও একই ভিডিওটি “ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলায় চার বছর আগের পাওনা ৪০০ টাকা চাওয়ায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৩! পুরো এলাকা রণক্ষেত্র! পুলিশ মোতায়েন।” শীর্ষক শিরোনামেও ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে। ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে এবং এখানে। পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, প্রচারিত ভিডিওটি সাম্প্রতিক সময়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ইফতার আয়োজন কিংবা পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে কোনো সংঘাতের নয় বরং ভিডিওটি বিগত ৩ বছর ধরে ইন্টারনেটে প্রচার হয়ে আসছে।

ভিডিওটির কিছু স্থিরচিত্র রিভার্স সার্চের মাধ্যমে, ‘Abdullah Al Mamun Chowdhury’ নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে ২০২০ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি “ব্রাহ্মণবাড়িয়া brahmanbaria” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একই ভিডিওটি খুঁজে পাওয়া যায়।

পরবর্তীতে “Brahmanbaria News” নামের ইউটিউব চ্যানেলে ২০১৮ সালের ১৪ নভেম্বরে “ব্রাহ্মনবাড়িয়ার আশুগঞ্জের দক্ষিন তারুয়ায় দু দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষ।। Clashes of villagers” শিরোনামে প্রকাশিত একই ভিডিওটি খুঁজে পাওয়া যায়।

মূলত, আলোচিত ভিডিওটি ২০১৮ সাল হতে বিভিন্ন সময় ভিন্ন ভিন্ন দাবিতে সামাজিক মাধ্যমে প্রচার হয়ে আসছে। ২০১৮ সালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে দু দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষ চলাকালে ধারণকৃত পুরোনো ভিডিওকেই সাম্প্রতিক সময়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ‘ইফতার আয়োজনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ’ ও ‘পাওনা টাকা আদায়কে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ’ শীর্ষক পৃথক দুইটি দাবিতে সামাজিক মাধ্যমে পুনরায় প্রচার করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, গত ১৭ এপ্রিল রাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার মজলিশপুর ইউনিয়নের মৈন্দ গ্রামে ৪ বছর আগের পাওনা টাকা নিয়ে কথা কাটাকাটির জের ধরে দুই পক্ষের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন বলে জানা যায়।

সুতরাং, ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত ভিন্ন ঘটনায় ধারণকৃত পুরোনো একটি ভিডিওকে সাম্প্রতিক সময়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দুই পক্ষের সংঘর্ষের দৃশ্য দাবিতে নতুন করে সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

[su_box title=”True or False” box_color=”#f30404″ radius=”0″]

  • Claim Review: ইফতার আয়োজনকে কেন্দ্র করে শুরু হয় ভয়ানক রক্তক্ষয়ী লড়াই, আহত শতাধিক পুলিশ
  • Claimed By: Facebook Posts
  • Fact Check: False

[/su_box]

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img