রবিবার, জুলাই 21, 2024
spot_img

ব্যারিস্টার সুমন পুলিশকে গণধোলাই দেয়নি, ভুয়া দাবি ইউটিউবে 

সম্প্রতি, এবার পুলিশকে চরম ধোলাই দিলো ব্যারিস্টার সুমন, ক্ষেপলো প্রধানমন্ত্রী – শীর্ষক থাম্বনেইল এবং রাস্তায় পুলিশকে গণধোলাই দিলো ব্যারিস্টার সুমন,রাগে সুমনের উপর ক্ষেপলো প্রধানমন্ত্রী – শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও ইউটিউবে প্রচার করা হয়েছে৷ 

ভিডিওটিতে দাবি করা হচ্ছে, হবিগঞ্জ-৪ আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেনে নির্বাচিত সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন পুলিশকে গণধোলাই দিয়েছে এবং এর কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার উপর ক্ষেপেছেন।

পুলিশকে গণধোলাই

উক্ত দাবিতে ইউটিউবে প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)। 

এই প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়া অবধি ইউটিউবে প্রচারিত এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও দেখা হয়েছে প্রায় ৭২ হাজার বার এবং ভিডিওটিতে প্রায় ১ হাজার পৃথক অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ব্যারিস্টার সূমন কর্তৃক পুলিশকে গণধোলাই দেওয়ার মতো কোনো ঘটনা ঘটেনি বরং ২০২৩ সালে অনুষ্ঠিত এক নাগরিক সভায় দেওয়া ব্যারিস্টার সুমনের বক্তব্যের একটি ভিডিও ক্লিপের সাথে তার একাধিক ভিন্ন ঘটনার ভিডিও ক্লিপ যুক্ত করে তাতে চটকদার থাম্বনেইল এবং শিরোনামে আলোচিত ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে। 

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে ভিডিওটি’র শিরোনাম এবং থাম্বনেইলে উল্লেখিত দাবির সাথে ভিডিওটি’র বিস্তারিত অংশের মিল পাওয়া যায়নি। 

ভিডিওতে প্রচারিত আলোচিত দাবিগুলো নিয়ে প্রাসঙ্গিক একাধিক কি-ওয়ার্ড সার্চ করেও গণমাধ্যম কিংবা সংশ্লিষ্ট অন্য কোনো নির্ভরযোগ্য সূত্রে উক্ত দাবির সত্যতা পাওয়া যায়নি। 

অনুসন্ধানের এ পর্যায়ে আলোচিত ভিডিওটিতে প্রচারিত ভিডিও ক্লিপগুলোর বিষয়ে পৃথকভাবে অনুসন্ধান চালায় রিউমর স্ক্যানার টিম।

ভিডিও যাচাই ০১ 

সংবাদ পাঠিকার পঠিত সংবাদের সূত্র ধরে প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে যমুনা টেলিভিশনের ইউটিউব চ্যানেলে ২০২৩ সালের ১৭ মার্চ “ব্যারিস্টার সুমনকে দেখামাত্রই মারতে আসেন সাকিব! কি ঘটেছিলো হোটেলে?।Barrister Sumon । Sakib” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

উক্ত ভিডিও প্রতিবেদনটির একটি অংশের সাথে আলোচিত ভিডিওটিতে থাকা সংবাদ প্রতিবেদনের ফুটেজের মিল রয়েছে। 

Video Comparison : Rumor Scanner 

উক্ত সংবাদ প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, এটি ২০২৩ সালে সাকিবের বিরুদ্ধে ব্যারিস্টার সুমনের করা অভিযোগের বিষয় নিয়ে প্রকাশিত একটি সংবাদ প্রতিবেদন। যেখানে বলা হচ্ছে, ব্যারিস্টার সুমনকে দেখা মাত্রই মারতে আসেন ক্রিকেট তারকা সাকিব আল হাসান। 

এই ভিডিওর কোথাও পুলিশকে গণধোলাই দেওয়ার কিংবা ব্যারিস্টার সুমনের উপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষেপেছেন সংক্রান্ত কোনো তথ্য বা দৃশ্যের উল্লেখ পাওয়া যায়নি। তাই এই ভিডিও প্রতিবেদনের সাথে আলোচিত দাবির কোনো সম্পর্ক নেই।

ভিডিও যাচাই ০২ 

ভিডিওর এই অংশে প্রদর্শিত ব্যারিস্টার সুমনের ভিডিও ক্লিপটির অনুসন্ধানে ‘খেলাযোগ’ এর ইউটিউব চ্যানেলে ২০২৩ সালের ৪ ডিসেম্বর “হাউ মাউ করে কেন ব্যারিস্টার সুমন কাঁদলেন????” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত ভিডিওটির একটি অংশই আলোচিত ভিডিওটিতে যুক্ত করা হয়েছে।

Video Comparison : Rumor Scanner 

উক্ত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে জানা যায়, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বে প্রচারণার সময় জনতার সামনে বক্তৃতা প্রদানকালে কান্নায় ভেঙে পড়েন ব্যারিস্টার সুমন। তখনকার একটি ভিডিওর একটি অংশই আলোচিত দাবিতে যুক্ত করা হয়েছে। 

ভিডিও যাচাই ০৩ 

ভিডিওর সর্বশেষ অংশে দেখানো ব্যারিস্টার সুমনের ভিডিওটির বিষয়ে অনুসন্ধানে প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে আরটিভির ইউটিউব চ্যানেলে ২০২২ সালের ২৫ এপ্রিল “সরকারের বারোটা বাজাতে মানুষের জায়গা দখল করেছেন পুলিশ-ব্যারিস্টার সুমন। Playground । Rtv News” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত ভিডিওটির কিছু অংশই আলোচিত ভিডিওটিতে যুক্ত করা হয়েছে।

Video Comparison : Rumor Scanner 

উক্ত ভিডিও বিশ্লেষণ করে জানা যায়, ২০২৩ সালের ২৫ এপ্রিল অনুষ্ঠিত এক নাগরিক সভায় সরকারের বারোটা বাজানোর জন্য দু-চারজন পুলিশ অফিসারই যথেষ্ট বলে মন্তব্য করেছেন আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। কিন্তু ভিডিওর কোথাও পুলিশকে গণধোলাই দেওয়ার কোনো দৃশ্য দেখা যায়নি। 

মূলত, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে হবিগঞ্জ-৪ আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জয়লাভ করে ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন গত ১০ জানুয়ারি এমপি হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছেন। নির্বাচনের পূর্বে ব্যারিস্টার সুমনের নির্বাচনী প্রচারনার একটি ভিডিও ক্লিপের সাথে ২০২৩ সালের ২৫ এপ্রিল অনুষ্ঠিত এক নাগরিক সভায় দেওয়া বক্তব্যের একটি ভিডিও ক্লিপ, ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে নিয়ে অভিযোগের একটি সংবাদ প্রতিবেদনের ভিডিও ক্লিপ যুক্ত করে “এবার পুলিশকে চরম ধোলাই দিলো ব্যারিস্টার সুমন, ক্ষেপলো প্রধানমন্ত্রী” শীর্ষক থাম্বনেইল এবং “রাস্তায় পুলিশকে গণধোলাই দিলো ব্যারিস্টার সুমন, রাগে সুমনের উপর ক্ষেপলো প্রধানমন্ত্রী” শীর্ষক শিরোনামে ইন্টারনেটে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছে। তবে রিউমর স্ক্যানার টিম যাচাই করে দেখেছে যে, আলোচিত দাবিটি সঠিক নয়। প্রকৃতপক্ষে, একাধিক ভিন্ন ঘটনার পুরোনো ভিডিও যুক্ত করে তাতে চটকদার থাম্বনেইল এবং শিরোনাম ব্যবহার করে আলোচিত দাবিতে প্রচার করা হয়েছে।

সুতরাং, ব্যারিস্টার সুমন কর্তৃক পুলিশের গণধোলাই খাওয়ার দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচারিত তথ্যটি মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img