শনিবার, এপ্রিল 13, 2024
spot_img

বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভীর বক্তব্য বিকৃত করে প্রচার

সম্প্রতি,“ধন্যবাদ রেজভী আহমেদকে এতবছর পর সত্য কথা বলার জন্য সত্য কোনোদিন চাপা থাকে না” শীর্ষক শিরোনামে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর একটি বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে।

ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ),এখানে (আর্কাইভ)।

ভিডিওতে রুহুল কবির রিজভীকে বলতে শোনা যায়, “আমি নিজে বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাসের ছাত্র ছিলাম। আমার যতটুকু লেখাপড়া তাতে আমি এইটুকু বলতে পারি যে ২৬শে মার্চ থেকে অর্থাৎ স্বাধীনতার ঘোষণা থেকে ১৬ই ডিসেম্বর পর্যন্ত জিয়াউর রহমানের কোনো অবদান নেই। জিয়াউর রহমান ISI এর চর, জিয়াউর রহমান যুদ্ধ করেনি এতকিছু ঘটনা। সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান লন্ডন থেকে যখন অত্যন্ত সুপরিকল্পিতভাবে স্বাধীনতা যুদ্ধ থেকে বিজয় দিবস পর্যন্ত যে সমস্ত বরেণ্য নেতৃবৃন্দ দায়ী যারা নেতৃত্ব দিয়েছেন তাদের কলঙ্গিত করা, তাদেরকে বিভিন্নভাবে কুরুচিপূর্ণ কথাবার্তা বলছেন। কিন্তু আমি তো বলব আপনার শরীরে আগুন ধরে যাচ্ছে। হিংসা প্রতিহিংসার জ্বালায় আপনি অস্থির হযে যাচ্ছেন। মালয়েশিয়াতে অনেক ধরনের কারখানা করেছেন, ইন্ডাস্ট্রি করেছেন, অনেক টাকা আপনার বিভিন্ন জায়গায় টাকা। আপনি স্বাধীনতা দিবস, বিজয় দিবস, জাতীয় পতাকা নিয়ে কন্ট্রাক্টরি করেন, ঠিকাদারি করেন। অথচ আপনার দেশপ্রেমের কোনো চিহ্ন আমরা পাই না।” 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে সমালোচনা করে  দলটির জৈষ্ঠযুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী কোনো মন্তব্য করেননি বরং আলোচ্য ভিডিওতে ২০১৪ যুক্তরাজ্য বিএনপি কর্তৃক আয়োজিত অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগকে উদ্দেশ্য করে করা রিজভীর সমালোচনামূলক মন্তব্যের খণ্ড খণ্ড অংশ জোড়া লাগিয়ে বিকৃত আকারে উপস্থাপন করা হয়েছে।

প্রাসঙ্গিক কি ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে, hokkotha.com নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে ২০১৪ সালের ১৯ ডিসেম্বর“Ruhul Kabir Rizvi | The Atrium | 15 Dec 2014” শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত  রুহুল কবির রিজভীর বক্তব্যের মূল ভিডিওটি খুঁজে পাওয়া যায়।

Source: YouTube

ভিডিওটির ১ মিনিট ২৪ সেকেন্ড থেকে ১ মিনিট ৪৯ সেকেন্ড পর্যন্ত রুহুল কবির রিজভী বলেন, “আমি নিজে বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাসের ছাত্র ছিলাম।আমার যতটুকু লেখাপড়া তাতে আমি এইটুকু বলতে পারি যে ২৬শে মার্চ থেকে অর্থাৎ স্বাধীনতার ঘোষণা থেকে ১৬ই ডিসেম্বর পর্যন্ত আওয়ামীলীগ, আওয়ামীলীগের প্রধান নেতৃত্ব এবং মরহুম শেখ মুজিবুর রহমানের পরিবারের কোনো অবদান নেই।”

৭ মিনিট ৩২ সেকেন্ড থেকে ৮ মিনিট ৪ সেকেন্ড পর্যন্ত আওয়ামীলীগের উদ্দেশ্যে রুহুল কবির রিজভী বলেন, “স্বাধীনতা যুদ্ধে আপনাদের দলের যাদের ভূমিকা আছে তাদের সন্তানরাই অথবা যারা অংশগ্রহণ করছেন তারাই কিন্তু প্রতিদিন আসল কথাটা, আপনার থলে থেকে বিড়াল বের করে দিচ্ছে। আর এজন্যই আপনার শরীরে আগুন ধরে যাচ্ছে। হিংসা প্রতিহিংসার জ্বালায় আপনি অস্থির হযে যাচ্ছেন। সিনিওর ভাইস চেয়ারম্যান যখন লন্ডন থেকে ইতিহাসের কথা বলছেন তখন আপনারা সমস্ত সভ্যতা, ভব্যতা, সমস্ত ধরনের শিষ্টাচারকে অতিক্রম করে কুরুচিপূর্ণ কথাবার্তা বলছেন।” 

ভিডিওর ৯ মিনিট ৫ সেকেন্ড থেকে ৯ মিনিট ৩৮ সেকেন্ড থেকে রুহুল কবির রিজভী বিএনপির সিনিওর ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে উদ্দেশ্য করে বলেন, “আপনি বিরোধী দলের নেত্রীকে কখনোই বাজে আক্রমণ করে কথা বলেননি অথচ আপনার বিরুদ্ধে বলেছে আপনি নাকি মালয়েশিয়াতে অনেক ধরনের কারখানাকরেছেন, ইন্ডাস্ট্রি করেছেন, অনেক টাকা আপনার বিভিন্ন জায়গায় টাকা। আজকে পাঁচ বছর ক্ষমতায় থেকেছেন আন্তর্জাতিক মাস্টারপ্ল্যান করে, একবছর আছেন ক্ষমতা ডাকাতি করে। কই! কোথাও থেকে তো পারলেন না মালয়েশিয়ায় কতটা কারখানা আছে তারেক রহমানের বের করতে। কই, এত যে কথা বলেছেন একটা টাকাও তো আপনারা ফেরত নিয়ে আসতে পারলেন না তারেক রহমান সাহেবের।”

অর্থাৎ, এটা নিশ্চিত হওয়া যায় যে, রুহুল কবির রিজভীর উপরোক্ত বক্তব্যকে বিকৃত করে সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে।

মূলত, ২০১৪ সালে লন্ডনে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে যুক্তরাজ্য শাখা বিএনপি কর্তৃক আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের উপস্থিতিতে আওয়ামী লীগকে সমালোচনা করে বক্তব্য প্রদান করেন বিএনপির জৈষ্ঠ্য যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।  সম্প্রতি তার উক্ত বক্তব্যের আলাদা সময়ের খণ্ড খণ্ড অংশের মন্তব্য ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যমে সংযুক্ত করে  বিকৃতভাবে প্রচার করে দাবি করা হচ্ছে রুহুল কবির রিজভী বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সমালোচনা করে মন্তব্য করেছেন।

প্রসঙ্গত, পূর্বেও রুহুল কবির রিজভীর বক্তব্যকে বিকৃতভাবে প্রচার করা হলে সে বিষয়ে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করে রিউমর স্ক্যানার। 

সুতরাং, বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সমালোচনা করে দলটির জৈষ্ঠ  যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর বক্তব্য দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি সম্পূর্ণ এডিটেড বা বিকৃত।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img