বাংলা বর্ণমালা থেকে ৭টি বর্ণ বাদ দেওয়ার দাবিটি মিথ্যা

সম্প্রতি বাংলাএকাডেমির সভাপতি সেলিনা হোসেনের নাম উদ্ধৃত করে মোবাইলে পাঠানো একটি মেসেজের সূত্র ধরে ‘২০২৪ সালে বাংলা বর্ণমালা থেকে ৭টি বর্ণ বাদ দেওয়া হবে’ শীর্ষক একটি দাবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

মেসেজটিতে হুবহু তুলে ধরা হলো-

“প্রিয় সুধী! 

আগামী ২০২৪ সালে বাংলা স্বরবর্ণ থেকে ঈ ঊ ঋ এবং বাংলা ব্যঞ্জনবর্ণ থেকে ঞ ণ ঢ় ৎ বাদ দেওয়া হবে।

সেলিনা হোসেন
সভাপতি, বাংলা একাডেমি”

উক্ত দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে
পোস্টগুলোর আর্কাইভ দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, আগামী বছর হতে বাংলা বর্ণমালা থেকে ৭টি বর্ণ বাদ দেওয়ার দাবিটি সত্য নয় বরং বাংলা একাডেমির সভাপতি সেলিনা হোসেনের নাম উদ্বৃত করে মোবাইলে পাঠানো একটি ভুয়া মেসেজের স্ক্রিনশট ব্যবহার করে এই গুজবটি ছড়িয়ে পড়েছে।

অনুসন্ধানের মাধ্যমে, গত ১৫ মার্চ কবি ছাদির হুসাইন ছাদির ফেসবুক আইডিতে আলোচিত বিষয় নিয়ে প্রকাশিত একটি পোস্ট (পোস্টের আর্কাইভ) খুঁজে পাওয়া যায়। পোস্টটিতে তিনি পুরো বিষয়টি মিথ্যা প্রচারণা বলে উল্লেখ করেন। তাছাড়া তার পোস্ট থেকে আলোচিত মেসেজ পাঠানো মোবাইল নাম্বারটি পাওয়া যায়।

Screenshot: Facebook post by Md Sadir Hossain

রিউমর স্ক্যানার টিমের পক্ষ থেকে উক্ত মোবাইল নাম্বারে কল দিলে জানা যায় নাম্বারটি আবদুল্লাহ নামের এক ব্যক্তি ব্যবহার করছেন। তার কাছ থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়ানো মেসেজে সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি জানেন, তার ফোন ব্যবহার করে তার ভাই মজার ছলে কয়েক জনকে এই মেসেজটি পাঠিয়েছিলেন। 

পরবর্তীতে রিউমর স্ক্যানার টিমের পক্ষ থেকে বাংলা একাডেমির সভাপতি সেলিনা হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হয়। তিনি জানান, তিনি এটা করেননি। 

বাংলা একাডেমি থেকে এই ধরনের কোনো নির্দেশনা আছে কিনা সে বিষয়ে জানার জন্য রিউমর স্ক্যানার টিমের পক্ষ থেকে সরকারি সংস্থাটির জনসংযোগ বিভাগের উপপরিচালক আকবর হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হয়। তিনি বিষয়টিকে গুজব বলে নিশ্চিত করে জানান, বাংলা একাডেমির দাপ্তরিকভাবে এই ধরনের কোনো বিষয় নেই। 

মূলত, বাংলা একাডেমির সভাপতি সেলিনা হোসেনের নাম উদ্ধৃত করে মোবাইলে পাঠানো একটি মেসেজের সূত্র ধরে ‘আগামী বছর বাংলা বর্ণমালা থেকে ৭টি বর্ণ বাদ দেওয়া হবে’ দাবিতে একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের পক্ষ থেকে সেলিনা হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এই মেসেজ পাঠাননি বলে জানান। এছাড়া বাংলা একাডমির সাথে যোগাযোগ করা হলে তারাও বিষয়টিকে গুজব বলে নিশ্চিত করে।

আরো পড়ুনঃ ইউনেস্কোর জরিপে বাংলা পৃথিবীর সবচেয়ে মিষ্টি ও শ্রুতিমধুর ভাষা নির্বাচিত হয়নি 

সুতরাং, ২০২৪ সালে বাংলা বর্ণমালা থেকে ৭টি বর্ণ বাদ দেওয়ার দাবিটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img