সোমবার, জুলাই 22, 2024
spot_img

সেনাবাহিনী প্রধানমন্ত্রীকে তাদের কাছে নিজেকে সোপর্দ করতে বলেনি

সম্প্রতি সেনাবাহিনীর এক কর্মকর্তার একটি বক্তব্যের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। ভিডিওটিতে উক্ত কর্মকর্তাকে বলতে শোনা যায়, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিজেদেরকে আমাদের কাছে সোপর্দ করেন। আর না হলে যে কোনো মূল্যে আমরা সবাই সম্মিলিতভাবে আপনাদের বিরুদ্ধে যে কোনো প্রকার স্যাক্রিফাইস করা প্রয়োজন, যে কোনো প্রকার আত্মদান করা প্রয়োজন তা করতে প্রস্তুত আছি। 

সেনাবাহিনী

এ সংক্রান্ত ভিডিওটি পোস্ট করে দেশের জন্য ভাল একটা খবর পেলাম। আলহামদুলিল্লাহ। শীর্ষক লাইন লিখে সকলকে শেয়ার করতে আহ্বান জানানো হয়েছে। এই আহ্বান সাড়াও ফেলেছে নেটিজেনদের মধ্যে। ফেসবুকে প্রচারিত ভিডিওটি এখন অবধি ১৫ লক্ষাধিক মানুষ দেখেছেন। শেয়ার করেছেন প্রায় ২১ হাজার মানুষ। 

ফেসবুকের ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। 

একই ভিডিও টিকটকেও ছড়াতে দেখেছে রিউমর স্ক্যানার টিম। দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ)। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, সেনাবাহিনীর এই কর্মকর্তার নাম মো. সাইফুল আবেদীন যিনি ২০২২ সালে সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি এবং চট্টগ্রামের এরিয়া কমান্ডার থাকাকালীন একটি অনুষ্ঠানে দেওয়া তার একটি বক্তব্যকে বিকৃত করে উক্ত দাবিটি প্রচার করা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে, জনাব সাইফুল পাহাড়ের সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজদের উদ্দেশ্য করে উক্ত মন্তব্য করেন।

এ বিষয়ে অনুসন্ধানে ইউটিউবে চ্যানেল২৪ এর চ্যানেলে ২০২২ সালের ২৭ মে প্রকাশিত ‘যুদ্ধ করতে চান? ৩০ মিনিটও টিকবেন না শীর্ষক শিরোনামের এ সংক্রান্ত মূল ভিডিওটি খুঁজে পাওয়া যায়। 

ভিডিওর এক মিনিট সময় থেকে উক্ত ব্যক্তিকে বলতে শোনা যায়, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে শান্তিচুক্তি সম্পাদন করেছেন। আমরা সবাই সেই শান্তিচুক্তি বাস্তবায়নে এগিয়ে আসি। কারণ উনি বলেছেন, “আমরা পার্বত্য চুক্তি সম্পাদন করেছি এবং তা পূর্ণ বাস্তবায়ন করবো।” আমি আশা করবো, সরকারের পক্ষ থেকে যে কটি ধারা এখনও বাস্তবায়িত হয়নি সেটি বাস্তবায়নের আগে যারা অস্ত্রধারী আছেন, তারা আপনাদের মাত্র দুইটি ধারা, সেই দুটি ধারা বাস্তবায়ন করেন। আপনারা অস্ত্র সমর্পন করেন এবং নিজেদের সোপর্দ করেন। আর না হলে যে কোনো মূল্যে আমরা সবাই সম্মিলিতভাবে আপনাদের বিরুদ্ধে যে কোনো প্রকার স্যাক্রিফাইস করা প্রয়োজন, যে কোনো প্রকার আত্মদান করা প্রয়োজন তা করতে প্রস্তুত আছি।

Screenshot: YouTube 

এই ভিডিওতে উক্ত ব্যক্তির নাম উল্লেখ না থাকলেও (আর্মি কমান্ডার পরিচয় উল্লেখ করা হয়েছে) এটা স্পষ্ট যে, তিনি প্রধানমন্ত্রীকে সেনাবাহিনীর কাছে নিজেকে সোপর্দ করতে বলেননি। তিনি মূলত, পাহাড়ে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের উদ্দেশ্য করে উক্ত মন্তব্য করেন। 

স্থানীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা যাচ্ছে, সে বছরের ২৬ মে রাঙামাটিতে পুলিশ লাইনস সুখী নীলগঞ্জে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নস এর পার্বত্য আঞ্চলিক দপ্তর ও তিন পার্বত্য জেলায় তিনটি আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন কার্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে আয়োজিত সুধী সমাবেশে আলোচিত মন্তব্যটি করেন সেনাবাহিনীর সেসময়ের ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি এবং চট্টগ্রামের এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল মো. সাইফুল আবেদীন। 

মূলত, ২০২২ সালে রাঙামাটির একটি সুধী সমাবেশে দেওয়া মন্তব্যে পাহাড়ের সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজদের উদ্দেশ্য করে সেনাবাহিনীর সেসময়ের ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি এবং চট্টগ্রামের এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল মো. সাইফুল আবেদীন বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে শান্তিচুক্তি সম্পাদন করেছেন। আমরা সবাই সেই শান্তিচুক্তি বাস্তবায়নে এগিয়ে আসি। কারণ উনি বলেছেন, “আমরা পার্বত্য চুক্তি সম্পাদন করেছি এবং তা পূর্ণ বাস্তবায়ন করবো।” আমি আশা করবো, সরকারের পক্ষ থেকে যে কটি ধারা এখনও বাস্তবায়িত হয়নি সেটি বাস্তবায়নের আগে যারা অস্ত্রধারী আছেন, তারা আপনাদের মাত্র দুইটি ধারা, সেই দুটি ধারা বাস্তবায়ন করেন। আপনারা অস্ত্র সমর্পন করেন এবং নিজেদের সোপর্দ করেন। আর না হলে যে কোনো মূল্যে আমরা সবাই সম্মিলিতভাবে আপনাদের বিরুদ্ধে যে কোনো প্রকার স্যাক্রিফাইস করা প্রয়োজন, যে কোনো প্রকার আত্মদান করা প্রয়োজন তা করতে প্রস্তুত আছি।’ তার এই বক্তব্যের ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’ এবং ‘নিজেদের সোপর্দ করেন। আর না হলে যে কোনো মূল্যে আমরা সবাই সম্মিলিতভাবে আপনাদের বিরুদ্ধে যে কোনো প্রকার স্যাক্রিফাইস করা প্রয়োজন, যে কোনো প্রকার আত্মদান করা প্রয়োজন তা করতে প্রস্তুত আছি।’ শীর্ষক লাইন যুক্ত করে বিকৃতভাবে উপস্থাপন করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে। 

সুতরাং, ২০২২ সালে রাঙামাটিতে পাহাড়ের সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজদের উদ্দেশ্য করে সেনাবাহিনীর সেসময়ের কর্মকর্তা মেজর জেনারেল মো. সাইফুল আবেদীনের মন্তব্যকে প্রধানমন্ত্রীর নিজেকে সোপর্দ করা বিষয়ক মন্তব্য দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে; যা বিকৃত। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img