বিদ্যুৎ, স্কুল ও অফিসের সময় নিয়ে সরকার নতুন কোনো ঘোষণা দেয়নি 

গত ৩১ মার্চ ‘আগামী বুধবার থেকে গ্রামাঞ্চলে মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন থাকবে, স্কুল সপ্তাহে দুইদিন ছুটি, সরকারি অফিস সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত খোলা থাকবে’এসব দাবিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সংবলিত একটি ভিডিও টিকটকে প্রচার করা হয়। 

উক্ত দাবিতে টিকটকে প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, গ্রামাঞ্চলে মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন থাকবে, স্কুল সপ্তাহে দুইদিন ছুটি, সরকারি অফিস সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত খোলা থাকবে শীর্ষক দাবিটি সঠিক নয়। প্রকৃতপক্ষে বিদ্যুৎ, স্কুল ও অফিসের সময়সূচি  নিয়ে সরকার নতুন কোনো ঘোষণা দেয়নি। 

সরকারি অফিসের সময়সূচির বিষয়ে জানতে কি-ওয়ার্ড সার্চ করে দেশিয় মূলধারার সংবাদমাধ্যমগুলোতে এই সংক্রান্ত ঘোষণার কোনো সংবাদ খুঁজে পাওয়া যায়নি।

দাবি অনুযায়ী ৩ এপ্রিল, ২০২৪ থেকে এসব কার্যকর হওয়ার কথা। সেসময় রমজান মাস ছিল এবং গেল রমজানে সরকারি অফিস সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৩টা নয় বরং ৯টা থেকে সাড়ে ৩টা পর্যন্ত চলার সরকারি নির্দেশনা ছিল। 

অন্যদিকে, গ্রামাঞ্চলে মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন থাকার কোনো সরকারি নির্দেশনা পাওয়া যায়নি। তবে চলতি বছরের এপ্রিলের শুরুতেই গ্রামে লোডশেডিং বেড়েছে শিরোনামে দেশের প্রথম সারির গণমাধ্যমে সংবাদ পাওয়া যায়।

এছাড়া, ২০২২ সালেই থেকেই স্কুল-কলেজে সাপ্তাহিক ছুটি ২ দিনের সিদ্ধান্ত আসে এবং তখন থেকেই কার্যকর হয়। তাই নতুন করে এ বিষয়ে সিদ্ধান্তের দাবি করাটা অমূলক।

আলোচিত ভিডিওতে ব্যবহৃত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবিটি বিভিন্ন সময়ে গণমাধ্যমে ব্যবহার করতে (আর্কাইভ) দেখা যায়।  

মূলত, গত ৩১ মার্চ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে টিকটকে ‘বিদ্যুৎ, স্কুল ও অফিস নিয়ে সরকারের নতুন ঘোষণা’ দাবিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সংবলিত একটি ভিডিও প্রচার করে দাবি করা হয়, ৩ এপ্রিল থেকে গ্রামাঞ্চলে মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন থাকবে, স্কুল সপ্তাহে দুইদিন ছুটি, সরকারি অফিস সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। প্রকৃতপক্ষে সরকারের পক্ষ থেকে এমন কোনো ঘোষণা দেওয়া হয়নি। বরং রমজানের কারণে এপ্রিলের ৯ তারিখ পর্যন্ত সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী সরকারি অফিসগুলো ৯টা থেকে সাড়ে ৩টা পর্যন্ত খোলা ছিল। এপ্রিলের ৩ তারিখ হতে গ্রামাঞ্চলে মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন থাকবে বলা হলেও অনুসন্ধানে এমন কোনো তথ্যের প্রমাণ মেলেনি। এছাড়া স্কুল সপ্তাহে দুইদিন ছুটির বিষয়টি ২০২২ সাল থেকেই কার্যকর হয়ে আসছে। এ বিষয়ে নতুন করে আবার নির্দেশনা দেওয়া হয়নি।

সুতরাং, বিদ্যুৎ, স্কুল ও অফিস নিয়ে সরকারের নতুন ঘোষণার দাবিতে প্রচারিত তথ্যগুলো মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img