সৌদিতে বান্ধবী জর্জিনাকে বিয়ে করলেন রোনালদো শীর্ষক সংবাদটি মিথ্যা

সম্প্রতি, “বান্ধবী জর্জিনাকে বিয়ে করলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, রিয়াদে হয়েছে আনুষ্ঠানিকতা” শীর্ষক দাবিতে একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক এবং গণমাধ্যমে প্রচারিত হয়।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

একই দাবিতে দেশীয় মূলধারার গণমাধ্যম চ্যানেল২৪ এবং আমাদের সময় প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো এখনো তার বান্ধবী জর্জিনা রদ্রিগেজকে বিয়ে করেননি বরং জর্জিনার নামে পরিচালিত একটি ভুয়া ফেসবুক পেজের পোস্টকে সূত্র ধরে সৌদিতে রোনালদো তার বান্ধবী জর্জিনাকে বিয়ে করেছেন শীর্ষক তথ্যটি প্রচার করা হচ্ছে। এবং প্রকৃতপক্ষে জর্জিনা রদ্রিগেজ ফেসবুক ব্যবহারই করেন না। এছাড়া উক্ত পোস্টে রোনালদো-জর্জিনা দাবিতে প্রথম ব্যবহৃত ছবিটি এডিটেড।

তথ্য যাচাই

গত ৯ জানুয়ারি বিকেল ৪:০০ টায় Georgina Rodríguez নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে “At long last, we decided to get married” শীর্ষক ক্যাপশনে পোস্ট করা হয়। পেজটির ট্রান্সপারেন্সি সেকশন পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায় এটি ২০২০ সালের ১০ অক্টোবর তৈরী করা হয়েছে। তবে, ২০২২ সালের ১৫ই জানুয়ারি পেজটির নাম পরিবর্তন করে জর্জিনা রদ্রিগেজ করা হয়।

আরও পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, পেজটি মিশর থেকে পরিচালনা করা হচ্ছে।

জর্জিনা রদ্রিগেজ একজন আর্জেন্টাইন নাগরিক, তবে বসবাস করেন স্পেনে। পেজটি যদি জর্জিনা রপদ্রিগেজই পরিচালনা করতেন তাহলে লোকেশনে স্পেনই দেখাতো। অর্থাৎ উক্ত পেজটি একটি ভুয়া পেজ।

পরবর্তীতে, অনুসন্ধানে রোনালদোর বান্ধবী জর্জিনার কোনো ফেসবুক আইডি/পেজ খুঁজে না পেলেও georginagio নামে জর্জিনা রদ্রিগেজের ভ্যারিফাইড ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট খুঁজে পাওয়া যায়। 

সেখানে ফেসবুকে ও গণমাধ্যমে প্রচার হওয়া তাদের বিবাহ সংক্রান্ত কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

তাছাড়া, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর ফেসবুক পেজ ও ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট এবং আন্তর্জাতিক মূলধারার গণমাধ্যমে সৌদিতে রোনালদোর বিবাহ দাবি সংক্রান্ত সংবাদ পাওয়া যায়নি।

ছবি যাচাই

Georgina Rodríguez নামের ফেসবুক পেজ হতে রোনালদো ও তার বান্ধবী জর্জিনার বিয়ের দাবিতে প্রচারিত প্রচারিত পোস্টে প্রথমে একটি এবং পরবর্তীতে ওই ছবিটি কেটে দিয়ে অন্য আরেকটি ছবি সংযুক্ত করা হয়।

প্রথম ছবি যাচাই

ছবিটি পর্যালোচনা করে দেখা যায় এটি একটি এডিটেড ছবি।

অনুসন্ধানে রোনালদো এবং তার বান্ধবীর এরকম কোনো ছবির অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যায়নি। তবে রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে একই ছবির অনুরূপ মার্কিন পপ তারকা আরিয়ানা গ্রান্দে এবং তার স্বামী ডাল্টন গোমেজের একটি ছবি খুঁজে পাওয়া যায়। অর্থাৎ আরিয়ানা-ডাল্টনের ছবিকে ফটোশপের মাধ্যমে বিকৃত করে রোনালদো-জর্জিনার মাথা বসিয়ে আলোচিত ছবিটি বানানো হয়েছে।

দ্বিতীয় ছবি যাচাই

ছবিটি পর্যালোচনা করে জানা যায়, এটি রোনালদো ও তার বান্ধবী জর্জিনারই ছবি। তবে অনুসন্ধানে দেখা যায়, এটি সম্প্রতি সৌদিতে তোলা ছবি নয় বরং এটি ২০১৯ সালের ২৯ জুলাই জর্জিনার ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট হতে আপলোড করা হয়েছিলো।

মূলত, গত ৯ জানুয়ারি বিকেল ৪.০০ টায় Georgina Rodríguez নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে “At long last, we decided to get married” শীর্ষক ক্যাপশনে পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর সাথে তার বান্ধবী জর্জিনা রদ্রিগেজের একটি ছবি পোস্ট করা হয়। উক্ত পোস্টকে কেন্দ্র করেই দেশীয় মূলধারার একাধিক গণমাধ্যমে সৌদিতে রোনালদো তার বান্ধবী জর্জিনাকে বিয়ে করেছেন শীর্ষক সংবাদ প্রকাশিত হয়। তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে দেখা যায়, উক্ত পেজটি জর্জিনা রদ্রিগেজের নামে তৈরি একটি ভুয়া পেজ এবং জর্জিনার ফেসবুক পেজ কিংবা আইডি নেই।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো সৌদি আরবের ক্লাব আল নাসরের সাথে ২০২৫ সাল পর্যন্ত চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। আল নাসরে যোগ দিতে গত ০৩ জানুয়ারি বান্ধবী জর্জিনাকে নিয়ে সৌদি আরবে পৌঁছান রোনালদো। তবে সৌদি আরবের আইন অনুযায়ী অবিবাহিত নারী পুরুষ একই ঘরে থাকতে পারেন না। কিন্তু অবিবাহিত হওয়া সত্ত্বেও রোনালদো-জর্জিনা কীভাবে সৌদিতে একই সঙ্গে থাকছেন তা নিয়ে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা

উল্লেখ্য, পূর্বেও একই পেজ হতে প্রচারিত মন্তব্যকে রোনালদোর বান্ধবী জর্জিনা রদ্রিগেজের মন্তব্য দাবিতে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে বিষয়টিকে মিথ্যা হিসেবে শনাক্ত করে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করে রিউমর স্ক্যানার।

সুতরাং, পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো সৌদিতে তার বান্ধবী জর্জিনা রদ্রিগেজকে বিয়ে করেছেন দাবিতে প্রচারিত সংবাদটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img