ইউক্রেন-রাশিয়া চলমান সংঘাতকে কেন্দ্র করে মুসলিম দেশগুলো নিয়ে পুতিনের ভুয়া বক্তব্য প্রচার

সম্প্রতি, “পুতিনের ভাষণ, আমি ইউক্রেনের জনসাধারণের কান্না দেখে মোটেও বিচলিত নই ৷ কারন আমি ফিলিস্তিন,ইরাক,আফগানিস্তান, ইরাক, লিবিয়ান, বৃদ্ধ নারী শিশুদের বিবস্ত্র কান্না দেখে দেখেই বড় হয়েছি ৷ধিক্কার জানাই ইউরোপ তথা পশ্চিমা বিশ্বকে তখন কোথায় ছিলো তাদের মানবিক নিষেধাজ্ঞা। -ভ্লাদিমির পুতিন” শীর্ষক একটি বক্তব্য রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বরাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, আলোচিত তথ্যটি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বক্তব্য নয় বরং সাম্প্রতিক সময়ে রাশিয়া ইউক্রেন সংঘাতকে কেন্দ্র করে কোনো নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র ছাড়াই উক্ত লেখাটিকে পুতিনের বক্তব্য দাবিতে সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে।

গুজবের সূত্রপাত 

অনুসন্ধানের মাধ্যমে “Ummah of Muhammad(SAW)” নামের একটি ফেসবুক গ্রুপে Mohammad Hridoy Khandakar নামের একটি ফেসবুক আইডি হতে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি সন্ধা ৬.২৪ মিনিটে প্রকাশিত সম্ভাব্য প্রথম পোস্টটি খুঁজে পাওয়া যায়। সেই পোস্টে তিনি লিখেছিলেন, “আমি ইউক্রেনের জনসাধারণের কান্না দেখে মোটেও বিচলিত নই,কারন আমি ফিলিস্তিন, সিরিয়া, লিবিয়ান বৃদ্ধ যুবক নারী এবং, শিশুদের বিবস্ত্র আহাজারি দেখে দেখেই বড় হয়েছি।”

এরপরই উক্ত বিষয়টি কপি এবং শেয়ার হয়ে প্রচার হতে থাকে। গত ২৪, ২৫ এবং ২৬ ফেব্রুয়ারিতে প্রচার হওয়া এমন আরো কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে

Screenshot from Facebook Post
Screenshot from Facebook Post

অর্থাৎ উক্ত মন্তব্যটি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট এর বক্তব্য নয় বরং এটি জনৈক ফেসবুক ব্যবহারকারীর মন্তব্য, যা কপি-পেস্ট ও শেয়ারের মাধ্যমে সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। তবে পরবর্তীতে এই বিষয়টি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এর নাম জুড়ে দিয়ে প্রচার হতে থাকলে লেখাটি ভ্লাদিমির পুতিনের বক্তব্য হিসেবে দ্রুত সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

Screenshot from Facebook Post

মূলত, ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনে পুরো পশ্চিমা বিশ্ব এবং গণমাধ্যম যেভাবে সরব এবং রাশিয়ার প্রতি বিভিন্ন নিষেধাজ্ঞা দিয়ে ইউক্রেনে তাদের আক্রমণ বন্ধ করার চেষ্টা করেছে, তা পূর্বে ফিলিস্তিন, ইরাক, আফগানিস্তান কিংবা লিবিয়া,সোমালিয়ার সময়ে দেখা যায় নি। তাই উক্ত বিষয়টি বোঝাতে গিয়েই একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী আলোচিত উক্তিটি লিখে একটি ফেসবুকে পোস্ট করেছিলেন। যা পরবর্তীতে ভ্লাদিমির পুতিনের বক্তব্য দাবিতে প্রচারিত হচ্ছে।

এছাড়া, আন্তর্জাতিক কোন সংবাদমাধ্যমে ভ্লাদিমির পুতিনের এধরণের কোন মন্তব্য শীর্ষক সংবাদ খুঁজে পাওয়া যায়নি।

প্রসঙ্গত, সাম্প্রতিক সময়ে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের দৃশ্য দাবিতে পুরোনো ও ভিন্ন ঘটনার বেশ কিছু ভিডিও এবং ছবি সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এরকম বেশ কয়েকটি ভিডিও এবং ছবি ভুয়া শনাক্ত করে ইতিমধ্যে একাধিক ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার।

সুতরাং, জনৈক ফেসবুক ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত একটি বক্তব্যকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এর বক্তব্য দাবিতে সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

[su_box title=”True or False” box_color=”#f30404″ radius=”0″]

  • Claim Review: পুতিনের ভাষণ, আমি ইউক্রেনের জনসাধারণের কান্না দেখে মোটেও বিচলিত নই ৷ কারন আমি ফিলিস্তিন,ইরাক,আফগানিস্তান, ইরাক, লিবিয়ান, বৃদ্ধ নারী শিশুদের বিবস্ত্র কান্না দেখে দেখেই বড় হয়েছি ৷ ধিক্কার জানাই ইউরোপ তথা পশ্চিমা বিশ্বকে তখন কোথায় ছিলো তাদের মানবিক নিষেধাজ্ঞা। -ভ্লাদিমির পুতিন
  • Claimed By: Facebook Posts
  • Fact Check: False

[/su_box]

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img