বৃহস্পতিবার, জুলাই 25, 2024
spot_img

সেনাবাহিনীর হাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আটকের গুজব ইউটিউবে 

সম্প্রতি, সেনাবাহিনীর হাতে প্রধানমন্ত্রী আটক, আ’লীগের বড় দুঃসংবাদ শীর্ষক শিরোনাম থাম্বনেইলে উল্লেখপূর্বক একটি ভিডিও ইউটিউবে প্রচার করা হয়েছে।

শেখ হাসিনা

Desh tv 71 নামে একটি চ্যানেল থেকে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ)

এই প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়া অবধি ভিডিওটি দেখা হয়েছে ১৫ হাজারেরও অধিক বার।  

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, সেনাবাহিনীর হাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আটকের তথ্যটি গুজব বরং, অধিক ভিউ পাওয়ার আশায় চটকদার থাম্বনেইল ব্যবহার করে আলোচিত ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে ভিডিওটিতে কোথাও সেনাবাহিনীর হাতে প্রধানমন্ত্রী আটকের দাবি সম্পর্কিত সংবাদ উপস্থাপন করতে দেখা যায়নি। এমনকি ভিডিওটিতে আলোচিত দাবির সাথে প্রাসঙ্গিক কোনো তথ্যেরও উল্লেখ পাওয়া যায়নি। অর্থাৎ ভিডিওটি’র থাম্বনেইলে প্রচারিত দাবিটির সাথে বিস্তারিত অংশের অসামঞ্জস্যতা রয়েছে। ১০ মিনিট ২৬ সেকেন্ডের ভিডিওটিতে ছয়টি ভিন্ন ভিন্ন সংবাদ উপস্থাপন করা হয়েছে। 

সংবাদ যাচাই ০১

এখানে বলা হয়, আওয়ামী লীগ সব অপকর্মে প্রতিবেশী দেশ ভারতের সমর্থন পাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। সরকার ভারতের হাতে বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বের চাবি তুলে দিয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এ বিষয়ে যে সংবাদের স্ক্রিনশট দেখানো হয়েছে তা সময় টিভির এর ওয়েবসাইটে গত ২৩ এপ্রিল ‘আওয়ামী লীগের সব অপকর্মের দায় ভারতের: রিজভী’ শিরোনামে প্রকাশিত হয়েছিল। 

Screenshot comparison: Rumor Scanner 

প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়, ‘আওয়ামী লীগের সব অপকর্মের দায় ভারতের। ক্ষমতাসীনরা সব অনিয়মে প্রতিবেশী দেশের সমর্থন পাচ্ছে। সরকার ভারতের হাতে সার্বভৌমত্বের চাবি তুলে দিয়েছে।

‘নতজানু পররাষ্ট্রনীতির কারণে প্রতিদিন ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) হাতে বাংলাদেশি খুন হচ্ছে’, যোগ করেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব।

আরও উল্লেখ করা হয়, ‘রাজনীতি থেকে দূরে রাখতেই বেগম জিয়াকে মিথ্যা মামলায় গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে দাবি করে রিজভী বলেন, বিরোধী নেতাকর্মীদের গ্রেফতার ও শান্তিপূর্ণ সভা—সমাবেশে বাধা দিয়ে সরকার মানবাধিকার পরিস্থিতিকে দুর্বল করছে। বেগম জিয়া রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার। যুক্তরাষ্ট্রের সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে তা স্পষ্ট হয়েছে।’

অর্থাৎ, এই সংবাদে প্রধানমন্ত্রী সেনাবাহিনীর হাতে আটক শীর্ষক কোনো তথ্য উল্লেখ পাওয়া যায়নি। 

সংবাদ যাচাই ০২

এখানে বলা হয়, সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা বেনজীর আহমেদের দুর্নীতির বিষয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদন যদি সত্য হয়, তবে তা অবশ্যই উদাহরণ হবে। কারণ দুর্নীতির একটা সীমা থাকে, এখানে যা হয়েছে, তা সাগরচুরি।

এ বিষয়ে যে সংবাদের স্ক্রিনশট দেখানো হয়েছে তা বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম এর ওয়েবসাইটে গত ২৩ এপ্রিল ‘দুর্নীতির একটা সীমা থাকে, এটা সাগরচুরি’ শিরোনামে প্রকাশিত হয়েছিল।

Screenshot comparison: Rumor Scanner 

প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়, ‘একজন সরকারি কর্মকর্তার এত সম্পদ কীভাবে হতে পারে, আমি এটা ভাবতেই পারছি না! এটা অবিশ্বাস্য! এ জন্য অন্যদের সাবধান করতে দ্রুত অনুসন্ধান করে দুর্নীতি প্রমাণিত হলে উপযুক্ত বিচারের ব্যবস্থা করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক। সোমবার (২২ এপ্রিল) সন্ধ্যায় এ মন্তব্য করেন তিনি।’

অর্থাৎ, এই সংবাদেও প্রধানমন্ত্রী সেনাবাহিনীর হাতে আটক শীর্ষক কোনো তথ্য উল্লেখ পাওয়া যায়নি। 

সংবাদ যাচাই ০৩

এখানে বলা হয়, ফরিদপুরে তৌহিদী জনতার শান্তিপূর্ণ মিছিলে পুলিশের বর্বরোচিত হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ।

এ বিষয়ে যে সংবাদের স্ক্রিনশট দেখানো হয়েছে তা নয়া দিগন্ত এর ওয়েবসাইটে ২৩ এপ্রিল দুই ভাইকে পিটিয়ে হত্যা : প্রতিবাদ সমাবেশে পুলিশের হামলার নিন্দা হেফাজতে ইসলামের শিরোনামে প্রকাশিত হয়েছিল। 

Screenshot comparison: Rumor Scanner 

প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়, ‘মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বার্তায় হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ-এর মহাসচিব আল্লামা শায়েখ সাজিদুর রহমান বলেন, গত বৃহস্পতিবার ফরিদপুরের মধুখালীতে এক মন্দিরের প্রতিমায় আগুন লাগানোকে কেন্দ্র করে শুধুমাত্র সন্দেহের বশে দুই মুসলিম শ্রমিককে নির্মম ও নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করা হয়। এছাড়াও পাঁচজনকে গুরুতর আহত করা হয়েছে। এর প্রতিবাদে আজ ফরিদপুরের তৌহদী জনতা ও সাধারণ মুসল্লিরা মিছিল করলে সেখানে তৌহিদী জনতা ও মুসল্লিদের ওপর হামলা চালায় পুলিশ। শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে পুলিশের এই ঘৃণ্য আচরণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।’

অর্থাৎ, এই সংবাদে প্রধানমন্ত্রী সেনাবাহিনীর হাতে আটক শীর্ষক কোনো তথ্য উল্লেখ পাওয়া যায়নি। 

সংবাদ যাচাই ০৪

এখানে বলা হয়, আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, উপজেলা নির্বাচনে মন্ত্রী-এমপির স্বজনদের মধ্যে যারা প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেননি, তাদের বিরুদ্ধে সময় মতো ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে যে সংবাদের স্ক্রিনশট দেখানো হয়েছে তা কালবেলা এর ওয়েবসাইটে গত ২৪ এপ্রিল ‘যারা মনোনয়ন প্রত্যাহার করেননি তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা : কাদের’ শিরোনামে প্রকাশিত হয়েছিল।

Screenshot comparison: Rumor Scanner 

প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়, ‘দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও দলীয় সিদ্ধান্ত যারা অমান্য করেছেন, তাদের বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে জানিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, গত সাধারণ নির্বাচনে, নির্বাচনের পরে এসেছেন, অনেকেই এমপি হননি। অনেকেই মন্ত্রী হননি। এখানেও কিন্তু দলের সিদ্ধান্ত নেওয়ার বিষয় আছে। দল যার যার কর্মকাণ্ড বিচার করবে। চূড়ান্ত পর্যায় পর্যন্ত যারা প্রত্যাহার করবেন না, সময় মতো দল ব্যবস্থা নেবে’

অর্থাৎ, এই সংবাদে প্রধানমন্ত্রী সেনাবাহিনীর হাতে আটক শীর্ষক কোনো তথ্য উল্লেখ পাওয়া যায়নি। 

সংবাদ যাচাই ০৫

এখানে বলা হয়, তীব্র তাপদাহ থেকে জনসাধারণকে স্বস্তি দিতে সাধারণ মানুষের মাঝে বোতলজাত পানি, খাবার স্যালাইন ও শরবত বিতরণ করেছে বিএনপি।

এ বিষয়ে যে সংবাদের স্ক্রিনশট দেখানো হয়েছে তা Jugantor এর ওয়েবসাইটে গত ২৪ এপ্রিল প্রকাশিত ‘রাজধানীতে পানি, স্যালাইন ও শরবত বিতরণ বিএনপির’ শিরোনামে প্রকাশিত হয়েছিল।

Screenshot comparison: Rumor Scanner 

প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়, ‘আজ বুধবার দুপুরে রাজধানীর কচুক্ষেত বাজার স্বাধীনতা চত্বর ও উত্তরার হাজী ক্যাম্প আশকোনা এলাকায় পথচারী, দিনমজুর, রিকশাচালক, খেটে খাওয়া মানুষ, বাসচালক থেকে শুরু করে সকল শ্রমজীবী সাধারণ মানুষের মাঝে বোতলজাত পানি, খাবার স্যালাইন ও শরবত বিতরণ করা হয়।’

অর্থাৎ, এই সংবাদে প্রধানমন্ত্রী সেনাবাহিনীর হাতে আটক শীর্ষক কোনো তথ্য উল্লেখ পাওয়া যায়নি। 

সংবাদ যাচাই ০৬

এখানে বলা হয়, গাজার অর্ধেক জনসংখ্যা ‘অনাহারে’ এবং তাদের যে সাহায্য দেয়া হচ্ছে তা বিশার সমুদ্রে এক ফোঁটা পানির মতো বলে জানিয়েছে জাতিসঙ্ঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউএফপি)।

এ বিষয়ে যে সংবাদের স্ক্রিনশট দেখানো হয়েছে তা নয়া দিগন্ত এর ওয়েবসাইটে গত ২৪ এপ্রিল গাজার অর্ধেক জনসংখ্যা ‘অনাহারে’ : জাতিসঙ্ঘ শিরোনামে প্রকাশিত হয়েছিল।

Screenshot comparison: Rumor Scanner 

প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়, ‘ডব্লিউএফপি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্টে বলেছে, ডব্লিউএফপি যখন প্রতি মাসে গাজায় ১ মিলিয়নেরও বেশি মানুষকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করছে, তখন প্রয়োজন এতটাই তীব্র ছিল যে- এই ধরনের প্রচেষ্টা ‘প্রয়োজনের তুলনায় সাগরে এক ফোঁটা পানির মতো’।

অর্থাৎ, এই সংবাদে প্রধানমন্ত্রী সেনাবাহিনীর হাতে আটক শীর্ষক কোনো তথ্য উল্লেখ পাওয়া যায়নি। 

মূলত, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২৪ এপ্রিল থাইল্যান্ড যান। সেদিন Desh tv 71 নামে একটি চ্যানেল থেকে প্রচারিত একটি ভিডিওর থাম্বনেইলে ‘সেনাবাহিনীর হাতে প্রধানমন্ত্রী আটক, আ’লীগের বড় দুঃসংবাদ’ দাবিতে একটি ভিডিও ইউটিউবে প্রচার করা হয়েছে। কিন্তু রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, এমন কোনো ঘটনা দেশে ঘটেনি। ১০ মিনিট ২৬ সেকেন্ডের ভিডিওটিতে ছয়টি ভিন্ন ভিন্ন যে সংবাদগুলো উপস্থাপন করা হয়েছে তার কোথাও সেনাবাহিনীর হাতে প্রধানমন্ত্রী আটকের দাবি সম্পর্কিত সংবাদ উপস্থাপন করা হয়নি। এমনকি ভিডিওটিতে আলোচিত দাবির সাথে প্রাসঙ্গিক কোনো তথ্যেরও উল্লেখ পাওয়া যায়নি।  

সুতরাং, সেনাবাহিনীর হাতে প্রধানমন্ত্রী আটক, আ’লীগের জন্য বড় দুঃসংবাদ শীর্ষক দাবিতে থাম্বনেইল যুক্ত করে একটি ভিডিও ইউটিউবে প্রচার করা হয়েছে; যা মিথ্যা ও বানোয়াট।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img