সোমবার, জুন 27, 2022
spot_img

বিবিসির বরাতে ইনকিলাবে প্রকাশিত উক্ত প্রতিবেদনটি ৮ বছর পূর্বের

সম্প্রতি, “প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ সঙ্কট সমাধানের পথ সহজ করবেঃ বিবিসি” শীর্ষক শিরোনামে দৈনিক ইনকিলাবে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনের স্ক্রিনশট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে ভাইরাল এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানেএখানেএখানেএখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, সাম্প্রতিক সময়ে দৈনিক ইনকিলাবে ‘প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ সঙ্কট সমাধানের পথ সহজ করবে‘ শীর্ষক শিরোনামে কোনো প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়নি বরং বাংলাদেশের জাতীয় নির্বাচনে রাজনৈতিক অস্থিরতা নিয়ে উক্ত প্রতিবেদনটি ৮ বছর পূর্বে প্রকাশ করা হয়েছিলো।

কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে, দৈনিক ইনকিলাবের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে ২০১৩ সালের ৭ ডিসেম্বরে ‘প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ সঙ্কট সমাধানের পথ সহজ করবে : বিবিসি‘ শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি টুইট খুঁজে পাওয়া যায়। তবে প্রতিবেদনটি কোন কারণে সরিয়ে নেয়া হয়েছে ফলে সংবাদের লিংকটিতে প্রবেশ করা যায় নি। তবে, একই দিনে ইনকিলাবের ফেসবুক পেজে প্রকাশিত পোস্টে প্রতিবেদনটির লিংক প্রি-ভিউ খুঁজে পাওয়া যায়।

মূলত, বৃটিশ গণমাধ্যম বিবিসি তাদের অনলাইন সংস্করণে ২০১৩ সালের ৬ ডিসেম্বরে “Election divisions push Bangladesh towards the brink” শীর্ষক শিরোনামে বাংলাদেশের দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশে সৃষ্ট রাজনৈতিক অস্থিরতা নিয়ে একটি বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

বিবিসি
Screenshot from BBC webiste

পরবর্তীতে বিবিসির সেই প্রতিবেদনকে অনুবাদ করে দৈনিক ইনকিলাব তাদের অনলাইন সংস্করণে বিবিসির সেই রিপোর্টে থাকা একটি খণ্ডিত মন্তব্যকে শিরোনামে ব্যবহার করে বাংলায় প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

Screenshot from BBC News website

এছাড়া, সাম্প্রতিক সময়ে “প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ সঙ্কট সমাধানের পথ সহজ করবে” শীর্ষক কোন তথ্যসম্বলিত প্রতিবেদনের অস্তিত্ব দৈনিক ইনকিলাব এবং বিবিসির অনলাইন সংস্করণে খুঁজে পাওয়া যায় নি।

অর্থাৎ, দৈনিক ইনকিলাবে ৮ বছর পূর্বে প্রকাশিত প্রতিবেদনটির একটি স্ক্রিনশট সাম্প্রতিক সময়ে পুনরায় ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।

আরো পড়ুনঃ নাসিক নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী তৈমুরকে হেফাজতের সমর্থন দেওয়ার তথ্যটি বিভ্রান্তিকর

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে সংবাদটি প্রকাশ হওয়ার পর থেকে বিভিন্ন সময়ে দৈনিক ইনকিলাবের সেই প্রতিবেদনের স্ক্রিনশটটি ফেসবুকে প্রচার হয়ে আসছে।

সুতরাং, আট বছর পূর্বে বিবিসিতে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনের ভিত্তিতে সেসময়ে ইনকিলাবে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনের স্ক্রিনশট বর্তমানে সময় এবং প্রেক্ষাপট উল্লেখ ছাড়া বিবিসির বরাত দিয়ে সামাজিক মাধ্যমে নতুন করে প্রচার করা হচ্ছে; যা বিভ্রান্তিকর।

[su_box title=”True or False” box_color=”#f30404″ radius=”0″]

  • Claim Review: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পদত্যাগই সংকট সমাধানের পথ সহজ করবে: বিবিসি নিউজ
  • Claimed By: Facebook Posts
  • Fact Check: Misleading

[/su_box]

তথ্যসূত্র

  1. Inqilab Twitter: https://twitter.com/TheDailyInqilab/status/409027801522507776
  2. Inqilab Facebook: https://www.facebook.com/100001480627894/posts/655919837800698/
  3. BBC News: https://www.bbc.com/news/world-asia-25232532
RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img