সোমবার, এপ্রিল 22, 2024
spot_img

বাহরাইনে ভিন্ন ঘটনার পুরোনো ভিডিওকে দেশটির ইসরায়েল দূতাবাসে অগ্নিসংযোগের দৃশ্য দাবিতে প্রচার

সম্প্রতি, “বাহরাইনের মানামায় পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে ইসরায়েলের দূতাবাসে আগুন ধরিয়ে দেয় বিক্ষুদ্ধ জনতা” শীর্ষক শিরোনামে অগ্নিসংযোগের দৃশ্যের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।

অগ্নিসংযোগের দৃশ্য

ফেসবুকে প্রচারিত কিছু পোস্ট দেখুন এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে জানা যায়, আলোচিত ভিডিওটি বাহরাইনের ইসরায়েলি দূতাবাসে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপের নয় বরং এটি ২০১২ সালে বাহরাইনের একটি পুলিশ স্টেশন হামলার ভিডিও।

আলোচিত ভিডিওটির কী ফ্রেম রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে, Revoluution Bahrain নামের ইউটিউব চ্যানেলে ২০১২ সালের ৩০ ডিসেম্বর  “البحرين : محاصرة مركز للشرطة وحرقه – سترة”  শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পায় রিউমর স্ক্যানার টিম।

আরবিতে লেখা উক্ত ভিডিওর ক্যাপশন বাংলায় অনুবাদ করে জানা যায়, ভিডিওটি ২০১২ সালে বাহরাইনের একটি থানায় অগ্নিসংযোগের ঘটনার।

পাশাপাশি কি ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে, আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম Reuters এর ওয়েবসাইটে ২০২৩ সালের ২১ অক্টোবর “Fact Check: Video shows 2012 attack on police station in Bahrain, not Israel embassy” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পায় রিউমর স্ক্যানার টিম। 

উক্ত প্রতিবেদন থেকে নিশ্চিত হওয়া যায় যে, আলোচিত ভিডিওটি ২০১২ সালে বাহরাইনের সিত্রা পুলিশ স্টেশনে অগ্নিসংযোগের দৃশ্য।

Source: Reuters

প্রসঙ্গত, হামাস-ইসরায়েল চলমান যুদ্ধের প্রেক্ষাপটে বাহরাইনসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ সংঘটিত হচ্ছে। 

মূলত, ২০১২ সালের ডিসেম্বর মাসে বাহরাইনের সিত্রা নামক একটি পুলিশ স্টেশনে অগ্নিসংযোগ করে কিছু বিক্ষোভকারী। ২০১২ সালের পুরোনো সেই অগ্নিসংযোগের ভিডিওকে চলমান হামাস-ইসরায়েল সংঘাতের প্রেক্ষাপটে বাহরাইনের ইসরায়েল দূতাবাসে অগ্নিসংযোগের ভিডিও দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, গত ০৭ অক্টোবর ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস ইসরায়েলে ‘অপারেশন আল-আকসা ফ্লাড’ নামে হামলা শুরু করে। এই হামলার প্রেক্ষিতে ইসরায়েলও হামাস নিয়ন্ত্রিত গাজা উপত্যকায় পাল্টা হামলা চালায়। এতে দেশ দুইটির মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে চলা সংঘাত নতুন মাত্রা পায়৷ 

উল্লেখ্য, চলমান ফিলিস্তিন ও ইসরায়েলের সংঘাত ইস্যুতে একাধিক ভুল তথ্য ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে একাধিক ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার৷

সুতরাং, ২০১২ সালে বাহরাইনের পুলিশ স্টেশনে অগ্নিসংযোগের ভিডিওকে বাহরাইনের ইসরায়েল দূতাবাসে অগ্নিসংযোগের ভিডিও দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img