শুক্রবার, মে 31, 2024
spot_img

ভিডিওটি মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার ভূপাতিত হওয়ার নয়

সম্প্রতি “মিয়ানমার সেনাবাহিনীর একটি হেলিকপ্টার যেভাবে ভূপাতিত হলো” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও প্রতিবেদন বাংলাদেশের মূলধারার গণমাধ্যম একাত্তর টিভিতে প্রকাশিত হয়েছে।

একাত্তর টিভির ইউটিউব চ্যানেল প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে। আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে

একাত্তর টিভির বরাতে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়,ভিডিওটি মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার ভূপতিত হওয়ার দৃশ্যের নয় বরং এটি ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে উত্তর সিরিয়ায় একটি সিরিয়ান সামরিক হেলিকপ্টার গুলি করে ভূপাতিত করার ভিডিও। 

রিভার্স ইমেজ সার্চেরর মাধ্যমে ব্রিটিশ গণমাধ্যম The Telegraph এর অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে ২০২০ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি Syrian helicopter shot down by rebels in Idlib প্রচারিত একটি ভিডিও প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from The Telegraph youtube

এই ভিডিওটির সাথে আলোচিত ভিডিওর হুবহু মিল খুঁজে পাওয়া যায়। এছাড়াও প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, সিরিয়ার বিমান বাহিনীর একটি হেলিকপ্টারকে পূর্ব ইদলিবের নায়রাব এলাকায় বিদ্রোহীরা ক্ষেপণাস্ত্র দ্বারা গুলি করে ভূপাতিত করেছিল। তুরস্ক বিদ্রোহীদেরকে এই ক্ষেপণাস্ত্র সহ আরও কিছু যুদ্ধের সরঞ্জাম সরবরাহ করেছিল।

পরবর্তীতে কী-ওয়ার্ড অনুসন্ধানের মাধ্যমে সৌদি আরব ভিত্তিক গণমাধ্যম Arab News এর ওয়েবসাইটে ২০২০ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি প্রকাশিত Turkey-backed rebels shoot down Syrian regime helicopter amid fierce clashes in Idlib শীর্ষক শিরোনামে একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। প্রতিবেদনটিতে তুরষ্কর সাথে সিরিয়ার দ্বন্দের কারণ হিসেবে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট তাইয়্যেপ এরদোগানের বক্তব্য তুলে ধরা হয়েছে। এরদেগানের বক্তব্য অনুযায়ী সিরিয়ার বিমান বাহিনীর একটি হেলিকপ্টারকে ক্ষেপণাস্ত্র দ্বারা গুলি করে ভূপাতিত করার পূর্বে সিরিয়া সরকার তুর্কি সেনাদের ওপর হামলা চালিয়েছিল। এই হামলার জবাব হিসেবে তুরষ্ক সরকার সিরিয়ার বিদ্রোহীদের পক্ষে সমর্থন দিচ্ছিল, এবং তাদের অস্ত্র সরবরাহ করছিল। 

Screenshot from arabnews website

এরপর, কাতার ভিত্তিক গণমাধ্যম আলজাজিরার ওয়েবসাইটে ২০২০ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি প্রকাশিত Fresh clashes in Syria’s Idlib as rebels down helicopter শীর্ষক শিরোনামে একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়, বিদ্রোহীরা উত্তর সিরিয়ায় একটি সিরিয়ান সামরিক হেলিকপ্টারকে গুলি করে বিধ্বস্ত করে, এতে অগ্নিদগ্ধ হয়ে হেলিকপ্টারের ক্রুরা সবাই মারা যায়। 

তাছাড়া, আলোচিত ভিডিওগুলোতে ভূপাতিত হওয়া হেলিকপ্টারটিকে মিয়ানমারের দাবি করা হলেও, এটি যে মিয়ানমারেরই সামরিক হেলিকপ্টার, এমন কোনো নির্ভরযোগ্য প্রমাণ খুঁজে পাওয়া যায়নি।

পাশাপাশি, মিয়ানমারের সামরিক হেলিকপ্টার দাবি করা ভিডিও গুলোর সাথে আন্তর্যাতিক গণমাধ্যম গুলোতে  প্রচার হওয়া সিরিয়ান একটি সামরিক হেলিকপ্টার গুলি করে ভূপাতিত করার ভিডিওর মিল খুঁজে পাওয়া যায়। 

মূলত, তুরস্কের সাথে উত্তেজনার জেরে ২০২০ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি সিরিয়ার ইদলিবে সিরিয়ার সেনাবাহিনীর একটি হেলিকপ্টার ভূপাতিত হওয়ার ঘটনা ঘটে। উক্ত ঘটনার হেলিকপ্টার ভূপাতিত হওয়ার পুরোনো ভিডিওকে সম্প্রতি দেশীয় মূলধারার গণমাধ্যম Ekattor TV তে মায়ানমার সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার ভূপাতিত হওয়ার দৃশ্য দাবিতে প্রচার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, সিরিয়ার ইদলিব প্রদেশে সহিংসতা শুরু হয় যখন সরকারি সৈন্যরা এদেশের বিদ্রোহী-নিয়ন্ত্রিত অংশ দখল করার দ্বারপ্রান্তে চলে যায়। রাশিয়া এবং ইরানের সমর্থনে, সিরিয়ার সৈন্যরা ইদলিব এবং নিকটবর্তী আলেপ্পো প্রদেশের কিছু অংশে কয়েক সপ্তাহ ধরে আক্রমণ চালিয়েছিল, যার ফলে ৭০০০০০ সিরিয়ান নাগরীক তাদের বাড়িঘর ছেড়ে জীবন বাঁচাতে উত্তরে তুর্কি সীমান্তের দিকে এগিয়ে যেতে থাকে।

সুতরাং, সিরিয়ার ইদলিবে সিরিয়ার সেনাবাহিনীর একটি হেলিকপ্টার ভূপাতিত হওয়ার ভিডিওকে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার ভূপতিত হওয়ার দৃশ্য দাবিতে গণমাধ্যমে প্রচার করা হয়েছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img