মমতাজ কি আওয়ামী লীগকে নিয়ে এমন বক্তব্য দিয়েছিলেন

সম্প্রতি “-সম্পর্ক বদলে গেল একটি পলকে-কি খবর সবার??” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়,  মমতাজ বেগমের আওয়ামী লীগকে নিয়ে দেওয়া বক্তব্যের ভিডিওটি মমতাজের একটি ভিডিওয়ের খণ্ডিত অংশ। যেখানে মমতাজ মূলত আওয়ামী লীগ বিরোধী নয় বরং আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সতর্ক করছিলেন।

কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Raj Bangla Media নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে ২০১৯ সালের ১২ জুলাই ” মমতাজের জ্বালাময়ী ভাষণ? ভাওয়াইয়া আওয়ামী লীগের দরকার নাই। Momtaz speech, Hot News” (আর্কাইভ দেখুন: এখানে) শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। ১০ মিনিট ১০ সেকেন্ডের এই ভিডিওটি পুরোটাতেই মমতাজকে বক্তব্য দিতে শোনা যায়। 

মমতাজের এই বক্তব্য বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, ভিডিওটির প্রথমেই মমতাজ বলেন, “ভাওয়াইয়া আওয়ামী লীগ? এই ভাওয়াইয়া আওয়ামী লীগ বাদ দেন। যতদিন মাপ করবেন, ততদিন আওয়ামী লীগের ধ্বংস টাইনা আনবেন আপনারা। এটা আমি বলতে চাই, এগুলো বাছাই করেন৷ এখনো ভালো মানুষ আছে, ভালো মানুষ দিয়ে রাজনীতি করান। শেখ হাসিনা থাকবো না। কিন্তু একটা ভালো আওয়ামী লীগ রাইখা যাইতে হবে। বুইঝা আওয়ামী লীগের নেতা বানান, মমতাজের দল বানাইয়েন না।” 

ভিডিওটির এই অংশটি দেখে বুঝা যায়, তিনি এখানে আওয়ামী লীগ বিরোধী নয় বরং নেতৃত্ব বাছাইয়ে আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দকে সতর্ক করেছেন।

ভিডিওটির ১ মিনিট ১৪ সেকেন্ডে মমতাজ বলেন, ” আমি ওবায়দুল কাদের সাহেবকেও এর আগে এনেছিলাম। একটাই দাবি। তখন আমাদের অর্থমন্ত্রী ছিলেন আবুল মাল আব্দুল মুহিত। আপনারা জানেন, তিনি আসলে কিছু চাইলে বিশেষ করে রাজস্ব যেখান থেকে আসে, সেগুলো থেকে কিছু চাইলে রাগ হইয়া যাইতো।”

ভিডিওটির এই অংশটি বিশ্লেষণ করলে বুঝা যায়, বক্তব্যের এই অংশে তিনি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের কথা বলেছেন৷

অনুসন্ধানে দেখা যায়, ২০০৮ সালে নির্বাচনে জয়লাভের পর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করলে আবুল মাল আব্দুল মুহিতকে অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয়। পরবর্তীতে তিনি টানা ১০ বছর অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন। এরপর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়লাভের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকারের মন্ত্রিসভায় অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পান আ হ ম মোস্তফা কামাল। অর্থাৎ মমতাজের ভিডিওটির সময়কাল ২০০৮ সাল থেকে পরবর্তী ১০ বছর অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের দায়িত্ব পালনের পরবর্তী কোনো সময়ের।

এছাড়া ভিডিওটির ৪ মিনিট ১১ সেকেন্ডে মমতাজ তার বক্তব্যে বলেন, ” আপনারা জানেন, দীর্ঘদিনের চাওয়া ছিল বালিরটেকের ব্রীজ। খালেদা জিয়া বালিরটেকের ঐখানে আইসা বলছিল, এখানে ব্রীজ করে দিব তিন মাসের মধ্যে। পাঁচ বছরেও করতে পারে নাই খালেদা জিয়া। আমি একবার বলেছিলাম, জননেত্রী শেখ হাসিনাকে বলে এই ব্রীজ না করা পর্যন্ত আমি কোনো সংবর্ধনা নিব না।”

মমতাজের এই ভিডিও বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, এখানে একদিকে তিনি বিএনপি দলীয় নেতা খালেদা জিয়ার সমালোচনা করছেন অপরদিকে আওয়ামী লীগ প্রধান শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চালিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে দৃঢ় সংকল্প ব্যক্ত করছেন।

অর্থ্যাৎ, মমতাজের এই ভিডিওটি বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, এখানে মমতাজ আওয়ামী লীগ বিরোধী কোনো বক্তব্য দেননি, বরং তার বক্তব্যে বিএনপির সমালোচনা উঠেছে। এছাড়া তার বক্তব্য বিশ্লেষণ করে আরও দেখা যায়, এটি আওয়ামী লীগ সরকারের সময়কালেই দেওয়া। তবে সে সময়টি নিশ্চিত করা যায়নি।

মূলত, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের দায়িত্ব পরবর্তী কোনো সময়ে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য মমতাজ বেগম আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সতর্ক করে একটি বক্তব্য দেন৷ তার এই বক্তব্যের একটি খণ্ডিত অংশ কেটে নিয়ে তিনি আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে বক্তব্য দিচ্ছেন দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।

সুতরাং, মমতাজ বেগম আওয়ামী লীগ  বিরোধী বক্তব্য দিয়েছেন দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারিত ভিডিওটি মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

Raj Bangla Media Youtube: মমতাজের জ্বালাময়ী ভাষণ? ভাওয়াইয়া আওয়ামী লীগের দরকার নাই। Momtaz speech, Hot News

BBC Bangla: সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত মারা গেছেন
Daily Jugantar: একনজরে নতুন অর্থমন্ত্রী

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img