ভিডিওটি হুতি বিদ্রোহী দ্বারা ইসরায়েলের যুদ্ধজাহাজ ধ্বংসের দৃশ্যের নয়

সম্প্রতি, শর্ট ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম টিকটকে “লোহিত সাগরে ইজরায়েলের একটি যুদ্ধজাহাজকে উরিয়ে দিলো ইরান সমর্থিত হুতি বিদ্রোহী। সাথে যোগ দিয়েছে রাশিয়ার নৌবহর” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও প্রচার করা হচ্ছে। 

যুদ্ধজাহাজ

টিকটকে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। 

এই প্রতিবেদন প্রকাশ অবধি ভিডিওটি প্রায় ৫১ হাজার বার দেখা হয়েছে। প্রায় ২৪০০ পৃথক অ্যাকাউন্ট থেকে ভিডিওটিতে প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানারের টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ভিডিওটি হুতি বাহিনী কর্তৃক লোহিত সাগরে ইসরায়েলের যুদ্ধজাহাজ ধ্বংস করার নয় বরং ভিডিওটি একটি ভিডিও গেমের। 

দাবিটি নিয়ে অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম৷ ভিডিওটিতে গোলা বর্ষণের পর উপস্থিত মানুষের গতিবিধি স্বাভাবিক লাগে নি মোটেও। যেমন: ভিডিওর শুরুর দিকে বোমা বর্ষণের পর বোমায় আঘাত পাওয়ার পরও মানুষদেরকে হাত পা নাড়াতে দেখা যায়নি৷ উপরন্তু, একটি জায়গায় থামার পর, বাড়তি বলপ্রয়োগ ছাড়া স্বয়ংক্রিয়ভাবে মানুষ উড়তে শুরু করে যা কেবল ভিডিও গেমেই ঘটে থাকে। তাছাড়া, ব্যবহৃত আগুনও ভিডিও গেমের আগুন। ভিডিও গেমের আগুনের বিষয়ে নিশ্চিত হতে আগুনের অংশ রিভার্স ইমেজ সার্চ করে ইউটিউব থেকে পাওয়া এরকম গ্রাফিক্সের একটা ভিডিও এর সাথে তুলনা করা হয়। তুলনাকৃত ভিডিওটিতেও ইরানি জেটের দ্বারা ইসরায়েলের এয়ারক্রাফট ধ্বংস হওয়ার কথা উল্লেখ থাকলেও, পাশাপাশি #gta5 হ্যাশট্যাগও দেওয়া আছে যা দেখে ভিডিও গেমিং ভিডিও বলে নিশ্চিত হওয়া যায়। 

Comparison : Rumor Scanner 

অনুসন্ধানের পরবর্তী পর্যায়ে ভিডিওটির মূল উৎসের খোঁজ  করে রিউমর স্ক্যানার। এ পর্যায়ে রিভার্স ইমেজ সার্চ করলে দুুইটি ভিডিও পাওয়া যায়, যার মধ্যে একটি টিকটকের এবং অন্যটি ইনস্টাগ্রামের। টিকটকের ভিডিওটি চালু হয় নি। ইনস্টাগ্রাম ভিডিওটি চালু হলেও সেখানে দেখা যায় ভিডিওটি ১৭ এপ্রিল ২০২৪ তারিখে পোস্টকৃত এবং মাত্র ১ টি লাইক। তাছাড়া, ভিডিওটিতে @international_air_forces নামের একটা টিকটক অ্যাকাউন্ট ইউজারনেমের ওয়াটারমার্ক দেখা যায়। নিশ্চিত হওয়া যায় যে, ইনস্টাগ্রামের ভিডিওটি প্রথম ভিডিও নয়৷ উল্লেখ্য যে, টিকটক থেকে কোনো ভিডিও ডাউনলোড করলে ভিডিওটিতে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপলোড করা ক্রিয়েটরের ইউজারনেমের ওয়াটারমার্ক সংযুক্ত হয়৷ ইনস্টাগ্রামের ভিডিওটিতে টিকটক ক্রিয়েটরের ওয়াটারমার্ক দেখে নিশ্চিত হওয়া যায় যে, উক্ত ওয়াটারমার্কের ক্রিয়েটরই ভিডিওটির ক্রিয়েটর৷ 

Screenshot: Instagram

টিকটকে @international_air_forces ইউজার নেমের অ্যাকাউন্ট খুঁজলে সেই অ্যাকাউন্টটি খুঁজে পাওয়া যায়৷ অ্যাকাউন্টটিতে অনুসন্ধান করলে শুরুতেই আকাঙ্ক্ষিত ভিডিওটি পিন পোস্ট হিসেবে খুঁজে পাওয়া যায়৷ ভিডিওটি International military Defends নামের প্রায় ১ লক্ষ ৮৫ হাজার অনুসারীর এই টিকটক অ্যাকাউন্ট থেকে ২০২৩ সালের ১৯ ডিসেম্বর পোস্ট করা হয়। এই রিপোর্টটি লেখা পর্যন্ত ভিডিওটি প্রায় ১৭ লক্ষ বার দেখা হয়েছে। তবে, ভিডিওটির ক্যাপশনে হুতি বাহিনীর কোনো কথা উল্লেখ নেই৷ ভিডিওটির ক্যাপশনে “Israel vs Palestine KW👈” উল্লেখ করা৷ সাথে হ্যাশট্যাগে আছে আমেরিকা, দুবাই, মালয়েশিয়ারও নাম। হ্যাশট্যাগেও ইয়েমেন কিংবা হুতি বিদ্রোহীর কোনো নাম নেই৷ এমনকি, লোহিত সাগরেরও কোথাও উল্লেখ নেই। উপরন্তু, এটি একটি ভিডিও গেমের ভিডিও। 

Comparison: Rumor Scanner

মূলত, ২০২৩ সালের ১৯ ডিসেম্বর International military Defends নামের একটি টিকটক অ্যাকাউন্টে একটি ভিডিও গেমের ভিডিও পোস্ট করা হয় যেখানে ইসরায়েলের পতাকা লাগানো যুদ্ধজাহাজে বোমাবর্ষণের কাল্পনিক দৃশ্য প্রচার করা হয়। ভিডিওটির ক্যাপশনে ইসরায়েল বনাম ফিলিস্তিন ও সাথে আরো বেশ কিছু হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করা হয় যার মধ্যে আমেরিকা, মালয়েশিয়া, দুবাইয়ের হ্যাশট্যাগও ছিল। সম্প্রতি সেই ভিডিওটিকে ইরান সমর্থিত হুতি বিদ্রোহী কর্তৃক ইসরায়েলের যুদ্ধজাহাজ ধ্বংসের ভিডিও বলে প্রচার করা হচ্ছে। 

অর্থাৎ, ভিডিও গেমের ভিডিওকে হুতি বিদ্রোহী কর্তৃক ইসরায়েলের যুদ্ধজাহাজ ধ্বংসের ভিডিও দাবিতে প্রচার করা হয়েছে; যা মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img