শনিবার, জুলাই 20, 2024
spot_img

আরটিভির ফটোকার্ড বিকৃত করে নেইমার ও সানি লিওনকে জড়িয়ে ভুয়া তথ্য প্রচার

সম্প্রতি, “নেইমারের হাত ধরেই নীল ছবির জগতে নাম লিখিয়েছিলেন সানি লিওন” শীর্ষক শিরোনামে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভি’র আদলে তৈরি একটি ফটোকার্ড সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে। 

সানি লিওন

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ)

উক্ত পোস্টগুলো পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, পোস্টগুলোতে প্রায় ৫০ হাজার রিয়েক্ট পড়েছে এবং ৪৩০০ এর অধিক ব্যবহারকারী পোস্টগুলোতে নিজেদের মন্তব্য জানিয়েছেন। এছাড়াও পোস্টগুলো ২৫০ এর অধিকবার শেয়ার করা হয়েছে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, ফুটবল তারকা নেইমারের হাত ধরে নীল ছবির জগতে আসেননি বলিউড অভিনেত্রী সানি লিওন এবং আরটিভিও উক্ত দাবিতে কোনো সংবাদ বা ফটোকার্ড প্রকাশ করেনি বরং গত ২৩ মার্চ আরটিভি’র ফেসবুক পেজে প্রকাশিত একটি ফটোকার্ড ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় সম্পাদনার মাধ্যমে উক্ত ফটোকার্ডটি তৈরি করা হয়েছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত ফটোকার্ড পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, উক্ত ফটোকার্ডটিতে আরটিভির লোগোর পাশাপাশি ফটোকার্ডটি প্রকাশের তারিখ হিসেবে ২৩ মার্চ ২০২৪ উল্লেখ করা হয়েছে। 

দাবিটির সত্যতা যাচাইয়ে অনুসন্ধানে আলোচিত ফটোকার্ডে থাকা গণমাধ্যমের লোগো এবং তারিখের সূত্র ধরে আরটিভি’র ফেসবুক পেজ (, )  এবং ওয়েবসাইটে গত ২৩ মার্চ প্রকাশিত এমন কোনো সংবাদ বা ফটোকার্ড খুঁজে পাওয়া যায়নি। 

তবে, গত ২৩ মার্চ আরটিভি’র ফেসবুক পেজে “যার হাত ধরে নীল ছবির জগতে নাম লিখিয়েছিলেন সানি লিওন” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ফটোকার্ড পাওয়া যায়। 

উক্ত ফটোকার্ডে থাকা বলিউড অভিনেত্রী সানি লিওনের ছবি, গ্রাফিক্যাল ডিজাইন ও তারিখের সাথে আলোচিত ফটোকার্ডের ছবি, গ্রাফিক্যাল ডিজাইন ও তারিখের হুবহু মিল রয়েছে। তবে আলোচিত ফটোকার্ডের শিরোনাম ও ফন্টের সাথে আরটিভির ফটোকার্ডের শিরোনাম ও ফন্টের ভিন্নতা পরিলক্ষিত হয়।

Comparison Image By Rumor Scanner

উক্ত পোস্টের কমেন্ট বক্সে একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।  প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, পর্নোগ্রাফিতে পা রাখার আগে সানি লিওন একটি বেকারিতে কাজ করতেন। পরবর্তীতে যুক্ত হয়েছিলেন একটি ট্যাক্স অ্যান্ড রিটায়ারমেন্ট ফার্মেও। নার্স হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন তিনি। রোগীর শুশ্রূষা করার পরিকল্পনা ছিল তার। কিন্তু ভাগ্য তাকে নিয়ে যায় অন্য পথে। সানি পেন্টহাউজ ম্যাগাজ়িনের অংশ হয়ে ওঠেন হঠাৎ করেই। পেন্টহাউজের মালিক ছিলেন বব গুচিওন। তার হাত ধরেই সাহসী হয়ে উঠেছিলেন করণজিৎ অর্থাৎ সানি লিওন। ২০০৩ সালে ‘পেন্টহাউজ় পেট অফ দ্যা ইয়ার’ হয়েছিলেন। ২০০৫ সালে ভিভিড এন্টারটেইনমেন্টের সঙ্গে তিন বছরের কনট্র্যাক্ট সই করেন সানি। সেই প্রথম পর্নোগ্রাফি জগতে প্রথম পা রাখা।

অর্থাৎ, আরটিভির এই ফটোকার্ড নকল করেই আলোচিত ফটোকার্ডটি তৈরি করা হয়েছে।

মূলত, গত ২৩ মার্চ আরটিভি নিজেদের ফেসবুক পেজে “যার হাত ধরে নীল ছবির জগতে নাম লিখিয়েছিলেন সানি লিওন” শীর্ষক শিরোনামে একটি ফটোকার্ড প্রকাশ করে। পরবর্তীতে উক্ত ফটোকার্ডটি ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় সম্পাদনা করে “নেইমারের হাত ধরেই নীল ছবির জগতে নাম লিখিয়েছিলেন সানি লিওন”- শীর্ষক শিরোনামে একটি ফটোকার্ড ফেসবুকে  প্রচার করা হয়। 

সুতরাং, ফুটবল তারকা নেইমারের হাত ধরে বলিউড অভিনেত্রী সানি লিওনের নীল ছবির জগতে আসার দাবিটি মিথ্যা এবং উক্ত দাবিতে আরটিভির নামে প্রচারিত ফটোকার্ডটি এডিটেড বা বিকৃত। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img