শুক্রবার, জুলাই 26, 2024
spot_img

পাকিস্তানের সব মসজিদ ভেঙে ফেলার গুজব

সম্প্রতি, ‘এবার পাকিস্তানের পালা, হিন্দু রাষ্ট্র হওয়ায় ভেঙে ফেলা হচ্ছে সব মসজিদ’ শীর্ষক একটি দাবি শর্ট ভিডিও প্ল্যাটফর্ম টিকটকে প্রচারিত হচ্ছে। 

মসজিদ

টিকটক প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন  এখানে (আর্কাইভ)

টিকটকে এই ভিডিওটি এখন পর্যন্ত ২ লক্ষ ৩০ হাজারের অধিক বার দেখা হয়েছে। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়,  পাকিস্তানে সব মসজিদ ভেঙে ফেলা হচ্ছে শীর্ষক  দাবিটি সঠিক নয় বরং ভিন্ন ভিন্ন ঘটনার পুরোনো ছবি ব্যবহার করে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীনভাবে এমন দাবি শর্ট ভিডিও প্লাটফর্ম টিকটকে প্রচার করা হচ্ছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে কি-ওয়ার্ড সার্চ করে আলোচিত দাবির সপক্ষে পাকিস্তান কিংবা আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে এমন কোনো সংবাদ পাওয়া যায়নি।

এছাড়াও, আলোচিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে আলোচিত দাবির পক্ষে কোনো তথ্য প্রমাণ পাওয়া যায়নি। এমনকি ভিডিওটিতে আলোচিত দাবির সাথে প্রাসঙ্গিক কোনো নির্ভরযোগ্য তথ্যেরও উল্লেখ পাওয়া যায়নি। অর্থাৎ ভিডিওটি’র প্রচারিত দাবি ও ছবির  সাথে বিস্তারিত অংশের অসামঞ্জস্যতা রয়েছে। ৫ মিনিট ৫০ সেকেন্ডের ভিডিওটিতে একাধিক ছবি ব্যবহার করে ‍দাবিটি উপস্থাপন করা হয়েছে।

ছবি যাচাই ০১

Screenshot: TikTok

রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম Reuters এর ওয়েবসাইটে চলতি বছরের ২৩ ফেব্রুয়ারী ‘Pakistani Islamist parties rally against top judge on blasphemy accusations’ শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়। প্রতিবেদনটিতে  আলোচিত  ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়। 

Image comparison: Rumor Scanner

প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, পাকিস্তানের প্রধান বিচারপতির আহমদী সম্প্রদায় এক সদস্যের বিরুদ্ধে করা মন্তব্যকে নিন্দামূলক দাবি করে পাকিস্তানি ইসলামপন্থী দলগুলোর প্রতিবাদ সমাবেশের ছবি এটি।

অর্থাৎ, এই ছবিটি আলোচ্য দাবিটির সাথে সম্পৃক্ত নয়।

ছবি যাচাই ০২

Screenshot: TikTok

রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে মানবাধিকার বিষয়ক আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান Human Rights Watch এর ওয়েবসাইটে ২০২৩ সালের ২৮ নভেম্বর ‘Pakistan: Widespread Abuses Force Afghans to Leave’ শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদন পাওয়া যায়। প্রতিবেদনটিতে আলোচিত ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

Image comparison: Rumor Scanner

 প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়, হিউম্যান রাইটস ওয়াচ জানিয়েছে, আফগানিস্তানে ফিরে যেতে বাধ্য করার জন্য পাকিস্তানে বসবাসরত আফগানদের বিরুদ্ধে পাকিস্তানি কর্তৃপক্ষ ব্যাপক নির্যাতন চালিয়েছে।

প্রতিবেদনে ছবি ক্যাপশনে বলা হয়, এটি আফগানদের পাকিস্তান ত্যাগের ঘটনায় ধারণকৃত ছবি।

অর্থাৎ, এই ছবিটিও আলোচিত দাবির সাথে সম্পৃক্ত নয়।

ছবি যাচাই ০৩

Screenshot: TikTok

রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে ভারতীয় গণমাধ্যম The Times Of India এর ওয়েবসাইটে ২০২৩ সালের ১১ এপ্রিল ‘Portion of mosque in Delhi’s Bengali Market demolished by NDDMC; official claims it was part of anti-encroachment drive’ শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়। প্রতিবেদনটিতে প্রচারিত ছবিটি পাওয়া যায়।

Image comparison: Rumor Scanner

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, অনেক পুলিশের উপস্থিতিতে নিউ দিল্লি মিউনিসিপ্যাল ​​কাউন্সিল ফুটপাত ও জনসাধারণের জায়গা দখল অপসারণের অংশ হিসেবে (এনডিএমসি) নতুন দিল্লির বাংলা বাজারে একটি মসজিদের অংশ ভেঙে দেয়।

অর্থাৎ, ঘটনাটি নয়া দিল্লির, পাকিস্তানের নয়।

এছাড়া, সাম্প্রতিক সময়ে পাকিস্তানে আদৌ সব মসজিদ ভেঙে ফেলা হচ্ছে কিনা তা জানতে প্রাসঙ্গিক কি ওয়ার্ড সার্চ করে পাকিস্তান কিংবা আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে দাবির সত্যতা খুঁজে পাওয়া যায়নি।

মূলত,  dinubando.mollik.dip143 নামে একটি টিকটক আইডি থেকে ’হিন্দু রাষ্ট্র হওয়ায় পাকিস্তানে ভেঙে ফেলা হচ্ছে সব মসজিদ’ দাবিতে একটি ভিডিও টিকটকে প্রচার করা হয়েছে। কিন্তু রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, এমন কোনো ঘটনা পাকিস্তানে ঘটেনি। ৫ মিনিট ৫০ সেকেন্ডের ভিডিওটিতে ভিন্ন ভিন্ন ঘটনার ছবি যুক্ত করে দাবটি উপস্থাপন করা হয়েছে কিন্তু তার কোনো প্রমাণ ভিডিওতে দেওয়া হয়নি। 

সুতরাং, পাকিস্তানে ভেঙে ফেলা হচ্ছে সব মসজিদ শীর্ষক দাবিতে প্রচারিত বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img