বুধবার, জুলাই 24, 2024
spot_img

ভিডিওটি মিষ্টির পাত্রে হিন্দু ধর্মাবলম্বী ব্যক্তির মূত্রত্যাগের দৃশ্যের নয়

সম্প্রতি, মিষ্টির পাত্রে হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা মূত্রত্যাগ করছেন শীর্ষক দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভিডিও প্রচার করা হয়। 

হিন্দু

উক্ত দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

এই প্রতিবেদনটি প্রকাশ হওয়া অবধি সবচেয়ে আলোচিত ভিডিওটি ২০ লক্ষেরও অধিকবার দেখা হয়েছে। ৩ হাজার ৬ শত এর অধিক অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে এবং ৫২ হাজারেরও অধিক বার শেয়ার করা হয়েছে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, প্রচারিত ভিডিওটি মিষ্টির পাত্রে মূত্রত্যাগের নয়, বরং কৌতুকের উদ্দেশ্যে একটি ইনস্টাগ্রাম পেজে ভিডিওটি পোস্ট করা হয়, যা পরবর্তীতে আলোচিত দাবিতে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ে।

এ বিষয়ে অনুসন্ধানে লক্ষ্য করা যায়, উক্ত ভিডিওটি ২০২২ সালে পাত্রে মুসলিমরা মূত্রত্যাগ করছে দাবিতে প্রথমে ভারতে প্রচারিত হয়েছিল। বর্তমানে ভিডিওটি বাংলাদেশেও ছড়িয়ে পড়েছে। 

ভিডিওটির মূল উৎসের সন্ধান করলে ভারতীয় ফ্যাক্টচেকিং প্রতিষ্ঠান The Quint এর এই বিষয়ে একটি ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। প্রতিবেদনটি অনুসারে, ২০২২ সালে ভারতীয় গণমাধ্যম ’জি নিউজ’ ভিডিওটিকে সত্য ধরে প্রচার করেছে। পাত্রে মুসলিমরা মূত্রত্যাগ করছে দাবিতে একই ভিডিওটি ভারতের UP BJP Youth Wing এর সোশ্যাল মিডিয়া প্রধান ডক্টর রিচা রাজপুতের এক্সে পোস্ট করা ভিডিও এর মন্তব্য বিভাগ পর্যবেক্ষণ করে The Quint. মন্তব্য বিভাগের একটি রিপ্লাই থেকে “Ashiq.Billota” নামের একটি পেজের একটি ইনস্টাগ্রাম ভিডিও খুঁজে পায় The Quint. সেই ভিডিওটি উল্টোভাবে (Flipped) ধারণ করা এবং সম্প্রসারিত ভার্সন ছিল। ভিডিওটির শেষদিকে The Quint লক্ষ্য করে, ভিডিওতে থাকা ব্যক্তি পিছন দিকে ফিরে একটি বোতল প্রকাশ করে। সেই বোতল থেকেই পাত্রে তরল পদার্থ ঢালা হচ্ছিল। 

Credit: The Quint

অর্থাৎ, পাত্রটিতে মূত্রত্যাগ করা হয় নি, বরং একটি বোতল থেকে পাত্রে পানি বা এরকম কোনো তরল পদার্থ কৌতুকস্বরূপ ঢালা হচ্ছিল। উক্ত ইনস্টাগ্রাম পেজ পর্যবেক্ষণ করলে এরকম আরো প্রাপ্তবয়স্ক কৌতুক ভিডিও খুঁজে পায় The Quint। যদিও The Quint স্বাধীনভাবে আসল ভিডিওটির বিস্তারিত তথ্য ডিটেইলস খুঁজে পায় নি, তবে এটা নিশ্চিত যে ভিডিওটি ঐ ইনস্টাগ্রাম পেজে কৌতুকের উদ্দেশ্যে পোস্ট করা হয়েছিল।

তবে, এই প্রতিবেদনটি প্রকাশ হওয়ার মূহুর্তে ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টটির অস্তিত্ব নেই। 

উক্ত বিষয়ে ভারতীয় আরেকটি ফ্যাক্টচেকিং প্রতিষ্ঠান Boom এর ফ্যাক্টচেকিং প্রতিবেদনেও একই সিদ্ধান্ত উঠে আসে। Boom এর নেওয়া স্ক্রিনশটে ভিডিওটির ক্যাপশন পড়ে জানা যায়, ভিডিওটি “Ashiq.billota” এর নিজের ধারণ করা ভিডিও নয়৷ তিনি কৌতুকের উদ্দেশ্যেই পোস্ট করেছেন।

Credit: Boom

বুমের প্রতিবেদন অনুসারে, ভিডিওটিতে funtaap নামে আরেকটি প্রাপ্তবয়স্কদের কৌতুক পোস্ট করা পেজকেও ট্যাগ করা হয়েছিল।

Credit: Boom

মূলত, প্রথমে ভারতে কৌতুকের উদ্দেশ্যে ভিডিওটি কৌতুক পোস্ট করা একটি ইনস্টাগ্রাম পেজে পোস্ট করা হয় যারা প্রায়ই এরকম কৌতুক কন্টেন্ট তৈরি করে থাকে৷ তারা সেখানে বোতল থেকে পাত্রটিতে তরল পদার্থ ঢেলে ভিডিও ধারণ করা একটি ভিডিও পোস্ট করে। তারপর ২০২২ সালে ভিডিওটিকে প্রথমে ভারতীয়রা সত্য বলে ধরে নিয়ে মিষ্টান্নজাতীয় খাবারে মুসলিমরা মূত্রত্যাগ করছে দাবিতে প্রচার করে। বর্তমানে, বাংলাদেশে একই ভিডিও পুনরায় ব্যবহার করে মিষ্টান্নজাতীয় খাবারে হিন্দুরা মূত্রত্যাগ করছে দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে। 

অর্থাৎ, কৌতুকের উদ্দেশ্যে তৈরি ভিডিওকে মিষ্টির পাত্রে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মূত্রত্যাগ করার ভিডিও দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img