বুধবার, ফেব্রুয়ারি 28, 2024
spot_img

অস্ত্র হাতে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া দাবিতে প্রচারিত ছবিটি এডিটেড

সম্প্রতি, “একজন গর্বিত স্ত্রী, একজন গর্বিত মা,একজন গর্বিত দেশ পরিচালক, একজন গর্বিত আপোষহীন নেত্রী। নির্যাতিত আরেক বাংলাদেশের  নাম বেগম খালেদা জিয়া” শীর্ষক শিরোনামে একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, অস্ত্র হাতে তোলা আলোচিত ছবিটি সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নয় বরং ছবিটি নারী মুক্তিযোদ্ধা তারামন বিবির এবং মূল ছবিটি ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করে তা ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় বিকৃত করা হয়েছে।

কি-ওয়ার্ড সার্চ পদ্ধতির মাধ্যমে, দেশীয় মূলধারার সংবাদমাধ্যম ‘দৈনিক ইত্তেফাক’ এর অনলাইন সংস্করণে ২০১৮ সালের ০১ ডিসেম্বরে “তারামন বিবি: সীমাহীন সাহসের নাম” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে মূল ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from Ittefaq

পরবর্তীতে, দেশীয় সংবাদমাধ্যম ‘The Independent’ এবং ‘দৈনিক যুগান্তর’ এর অনলাইন সংস্করণে বীর মুক্তিযোদ্ধা তারামন বিবিকে নিয়ে প্রকাশিত দুইটি প্রতিবেদনে একই ছবি খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from The Independent

মূলত, বাংলাদেশের অন্যতম নারী বীর মুক্তিযোদ্ধা তারামন বিবির অস্ত্র হাতে তোলা একটি ছবিকে সাম্প্রতিক সময়ে ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় বিকৃত করে সেখানে খালেদা জিয়ার মুখ মণ্ডলের ছবি সংযুক্ত করে অস্ত্র হাতে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ছবি দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের ডিসেম্বরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউটে বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে দেশের প্রথম নারী মুক্তিযোদ্ধা বলে দাবি করেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। উক্ত দাবির পরবর্তী সময় হতে বীর মুক্তিযোদ্ধা তারামন বিবির অস্ত্র হাতে তোলা একটি ছবিকে বিকৃত করে দেশের প্রথম নারী মুক্তিযোদ্ধা বেগম খালেদা জিয়ার ছবি দাবিতে উক্ত ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে। সেই সময়ে ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে এবং এখানে। পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে এবং এখানে

উল্লেখ্য, নারী মুক্তিযোদ্ধা তারামন বিবি কুড়িগ্রাম জেলার চর রাজিবপুর উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৩ সালে তারামন বিবিকে বীর প্রতীক পদকে ভূষিত করা হলেও দীর্ঘদিন তার সন্ধান না পাওয়া গেলে পরবর্তীতে ১৯৯৫ সালে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে তারামন বিবির হাতে বীরত্বের সম্মাননা তুলে দেয়া হয়। পরবর্তীতে ২০১৮ সালে বার্ধক্যজনিত কারণে রোগাক্রান্ত হয়ে ৬১ বছর বয়সে তিনি মৃত্যুবরণ করেন

সুতরাং, বীর মুক্তিযোদ্ধা তারামন বিবির একটি ছবি ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করে তা ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় বিকৃত করে অস্ত্র হাতে তোলা সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ছবি দাবিতে সাম্প্রতিক সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img