বুধবার, জুলাই 24, 2024
spot_img

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ফাইনালে হারের পর নাফিসা কামাল অজ্ঞান হননি এবং লিটনকে লাইভে এনে তামিমও সান্ত্বনা দেননি

গত পহেলা মার্চ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের (বিপিএল) দশম আসরে ফাইনালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় ফরচুন বরিশাল। এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফরচুন বরিশালের ক্রিকেটার তামিম ইকবাল ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের ক্রিকেটার লিটন দাসের একটি ভিডিও প্রচার করে দাবি করা হচ্ছে, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের মালিক নাফিসা কামাল তার দল হারার পর অজ্ঞান হয়ে যায় এবং তামিম ইকবাল লিটন দাসকে লাইভে এনে সান্ত্বনা দিয়েছেন। 

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স

ফেসবুকে প্রচারিত এমন একটি পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। 

টিকটকে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। 

ইউটিউবে প্রচারিত এমন একটি ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। 

এই প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়া অবধি ইউটিউবে প্রচারিত ভিডিওটি প্রায় ১১ হাজার বার দেখা হয়েছে এবং দুই শতাধিক পৃথক অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, বিপিএলের দশম আসরের ফাইনালে হারার পর নাফিসা কামাল অজ্ঞান হননি এবং লিটন দাসকে লাইভে এনে তামিম ইকবালের সান্ত্বনা দেওয়ার দাবিটিও সঠিক নয় বরং ২০২০ সালে তামিম ইকবাল কর্তৃক আয়োজিত ক্রিকেটার মুমিনুল হক, সৌম্য সরকার এবং লিটন দাসকে নিয়ে লাইভ আড্ডার ভিডিওর কয়েকটি অংশ কেটে সম্পাদনার মাধ্যমে আলোচিত ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে। 

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে পুরো ভিডিওর কোথাও নাফিসা কামালের অজ্ঞান হয়ে যাওয়ার কোনো দৃশ্য দেখা যায়নি। এছাড়া ভিডিওতে তামিম ইকবাল এবং লিটন দাসকে দেখা গেলেও তাদের কথোপকথনের কোনো অংশেই বিপিএলের দশম আসরের ফাইনাল নিয়ে কোনো আলোচনা খুঁজে পাওয়া যায়নি। 

আলোচিত দাবিগুলোর সত্যতা যাচাইয়ে প্রচারিত লাইভ ভিডিওটিতে ব্যবহৃত ভিডিও ক্লিপগুলোর বিষয়ে অনুসন্ধানে  তামিম ইকবালের ইউটিউব চ্যানেলে ২০২০ সালের ১৬ মে “#TI28 Tamim Iqbal live with Mominul, Soumya and Liton” শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

উক্ত ভিডিওটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, এটির সাথে আলোচিত ভিডিওর তামিম ইকবাল এবং লিটন দাসের ফুটেজের বেশকিছু অংশের মিল রয়েছে। এই ভিডিওটি ২০২০ সালে করোনাকালীন সময়ে দেশি-বিদেশি ক্রিকেটারদের নিয়ে তামিম ইকবালের লাইভ আড্ডা আয়োজনের একটি ভিডিও এবং ভিটিওটির তামিম ইকবাল এবং লিটন দাসের আলোচনার সময়কার বিভিন্ন অংশ কেটে নিয়ে আলোচিত ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে। 

Video Comparison : Rumor Scanner 

ভিডিওটি ২০২০ সালের হওয়ায় চলতি বছরের বিপিএলের দশম আসরের ফাইনালের সাথে এর কোনো প্রাসঙ্গিকতা নেই। 

তাছাড়া, প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে গণমাধ্যম কিংবা অন্য কোনো নির্ভরযোগ্য সূত্রে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের মালিক ম্যাচ পরবর্তী সময়ে অজ্ঞান হয়ে যাওয়ার বিষয়ে কোনো সংবাদ বা তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি। 

মূলত, ২০২০ সালে করোনাকালীন সময়ে তামিম ইকবাল তার ইউটিউব চ্যানেল এবং ফেসবুক পেজে দেশি -বিদেশি বিভিন্ন ক্রিকেটারদের নিয়ে লাইভ আড্ডার আয়োজন করতেন। সে সময় ক্রিকেটার মুমিনুল, সৌম্য এবং লিটন দাসকে নিয়ে লাইভ আড্ডার আয়োজন করেন। উক্ত ভিডিওর লিটন দাস এবং তামিম ইকবালের আলোচনার কিছু অংশ কেটে নিয়ে “হারের পর নাফিসা আফা অজ্ঞান হইছিলো! লিটনকে লাইভে এনে শান্তনা দিলেন তামিম” শীর্ষক শিরোনামে প্রচার করা হয়। তবে রিউমর স্ক্যানার টিম যাচাই করে দেখেছে যে, ফাইনালে হারার পর নাফিসা কামাল অজ্ঞান হননি এবং আলোচিত ভিডিওটিও পুরোনো ও ভিন্ন ঘটনার।  

সুতরাং, বিপিএল ফাইনালে হারার পর কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের মালিক নাফিসা কামালের অজ্ঞান হওয়া এবং ফরচুন বরিশালের তামিম ইকবাল কর্তৃক কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের লিটন দাসকে লাইভে এনে সান্ত্বনা দেওয়ার দাবিতে প্রচারিত তথ্যগুলো সম্পূর্ণ মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img