বুধবার, মে 22, 2024
spot_img

ড. ইউনূস বঙ্গবাজারে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য বিদ্যানন্দের কাছে অর্থ সহায়তা দেননি

সম্প্রতি নোবেল জয়ী অর্থনীতিবিদ ড. ইউনূসের পক্ষ থেকে বঙ্গবাজারে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের কাছে ১০ কোটি টাকা সহায়তা দেওয়া হয়েছে দাবিতে একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।

Screenshot: Facebook 

ফেসবুকে প্রচারিত এমনকিছু পোস্ট দেখুন এখানে(আর্কাইভ) এবং এখানে(আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ড. ইউনূসের পক্ষ থেকে বঙ্গবাজারে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের কাছে ১০ কোটি টাকা সহায়তা দেওয়ার দাবিটি সঠিক নয় বরং নির্ভরযোগ্য কোনো তথ্য সূত্র ছাড়াই ভিত্তিহীনভাবে উক্ত দাবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে। 

গত ১০ এপ্রিল Faces of Bangladesh নামের একটি ফেসবুক পেজে উক্ত দাবিতে প্রচারিত একটি পোস্ট খুঁজে পায় রিউমর স্ক্যানার টিম। সেখানে ‘মানুষ মানুষের জন্য’ শীর্ষক শিরোনামে ‘বঙ্গবাজার ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্যে এগিয়ে আসলেন ড. ইউনূস’ এবং ‘বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের কাছে ১০ কোটি টাকা সহায়তা দিলেন শান্তিতে নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ ড. মুহাম্মদ ইউনূস’ শীর্ষক লেখা সম্বলিত একটি ডিজিটাল ব্যানার পোস্ট করা হয়। উক্ত ব্যানারটিতে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বিদ্যানন্দের লোগো এবং নাম যুক্ত করা হয়েছে। 

Screenshot: Facebook

অনুসন্ধানের শুরুতে, প্রাসঙ্গিক একাধিক কি ওয়ার্ড সার্চ করে মূলধারার গণমাধ্যমে উক্ত দাবি সম্পর্কিত কোনো সংবাদ পাওয়া যায়নি। 

এছাড়া, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ, ড. ইউনূসের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ এবং ড. ইউনূসের প্রতিষ্ঠান ইউনূস সেন্টার এর অফিসিয়াল ফেসবুক পেজেও উক্ত দাবি সম্পর্কিত কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

পরবর্তীতে, বিষয়টির অধিকতর সত্যতা নিশ্চিতের জন্য রিউমর স্ক্যানারের পক্ষ থেকে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা জানায়, ‘এই ধরনের কোন অনুদান বিদ্যানন্দ গ্রহন করে নি। এটি একটি ভুল তথ্য। ধন্যবাদ।’

এছাড়া বিষয়টি মিথ্যা বলে নিশ্চিত করে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের হেড অব কমিউনিকেশন সালমান খান ইয়াসিন রিউমর স্ক্যানারকে বলেন, আমরা বঙ্গবাজারের জন্য সব মিলিয়ে প্রায় ২ কোটি টাকা অনুদান পেয়েছি। ১ কোটি ইতিমধ্যে দিয়ে দেওয়া হয়েছে। আরও এক কোটি দেওয়ার জন্য যাচাই বাছাই চলছে। 

অর্থাৎ, উপরোক্ত তথ্য উপাত্ত পর্যালোচনা করলে এটা স্পষ্ট যে, নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ ড. মুহাম্মদ ইউনূসের পক্ষ থেকে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে বঙ্গবাজারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের অর্থ সহায়তা দেওয়ার দাবিটি সঠিক নয়। 

মূলত, সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বঙ্গবাজারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তায় নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিনিদ ড. ইউনূসের পক্ষ থেকে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের কাছে ১০ কোটি টাকা দেওয়া হয়েছে দাবিতে একটি তথ্য প্রচারিত হয়। তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, উক্ত দাবিতে প্রচারিত তথ্যটি সঠিক নয় বরং কোনো নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র ছাড়াই ভিত্তিহীনভাবে উক্ত দাবিটি প্রচার করা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে, ড. ইউনূসের পক্ষ থেকে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে বঙ্গবাজারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের কোনো অর্থ সহায়তা দেওয়া হয়নি।

উল্লেখ্য, পূর্বেও বঙ্গবাজারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তার মিথ্যা দাবি ছড়িয়ে পড়লে  বিষয়টিকে মিথ্যা শনাক্ত করে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার। 

সুতরাং, নোবেল জয়ী অর্থনীতিবিদ ড. ইউনূসের পক্ষ থেকে বঙ্গবাজারে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের কাছে ১০ কোটি টাকা সহায়তা দেওয়া হয়েছে দাবিতে প্রচারিত তথ্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img