রবিবার, জুলাই 21, 2024
spot_img

টিকটকের মাধ্যমে প্রায় নয় লাখ ভিউ পেয়েছে পূজা চেরির মৃত্যুর গুজব 

চিত্রনায়িকা পূজা চেরি মারা গেছেন দাবিতে একটি ভিডিও ঘুরছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। টিকটকে এটিএন নিউজের একটি ভিডিও প্রতিবেদন ব্যবহার করে উক্ত দাবিটি প্রচার হতে দেখেছে রিউমর স্ক্যানার। 

পূজা চেরির মৃত্যু

টিকটকে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। এই ভিডিও এখন পর্যন্ত ৮ লাখ ৯১ হাজারের বেশিবার দেখা হয়েছে। প্রায় সাড়ে ১৬ হাজারের অধিক পৃথক অ্যাকাউন্ট থেকে এই ভিডিওতে প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, চিত্রনায়িকা পূজা চেরি মারা যাননি বরং তার মায়ের মৃত্যুর খবরের ভিডিও প্রতিবেদনের অডিও এডিট করে উক্ত দাবিটি প্রচার করা হয়েছে। 

এ বিষয়ে অনুসন্ধানের শুরুতে এটিএন নিউজের ইউটিউব চ্যানেলে গত ২৪ মার্চ প্রকাশিত এ সংক্রান্ত মূল ভিডিও প্রতিবেদনটি খুঁজে পাওয়া যায়। এই প্রতিবেদনে পূজা চেরির মায়ের মৃত্যুর খবরের বিষয়ে উপস্থাপককে বলতে শোনা যায়, “মারা গেছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী পূজা চেরির মা।”

Screenshot comparison: Rumor Scanner 

টিকটকের ভিডিওতে উপস্থাপকের উচ্চারিত “মারা গেছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী পূজা চেরির মা” এর স্থলে শেষের ‘মা’ শব্দটি কেটে দিয়ে প্রচার করে ভিডিওটিকে বাস্তব ভিত্তি দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। 

গণমাধ্যম সূত্রে জানা যাচ্ছে, বেশ কিছুদিন ধরে পূজা চেরির মা ঝর্ণা রায় অসুস্থ ছিলেন। ডায়াবেটিসসহ নানা রোগে ভুগছিলেন তিনি। কয়েকদিন আগে হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরেছিলেন। ২৪ মার্চ সকালে মারা যান তিনি। 

এদিকে গতকালও (২৭ মার্চ দুপুর) পূজা চেরিকে তার ব্যক্তিগত ফেসবুক প্রোফাইলে তার মাকে নিয়ে স্টোরি প্রকাশ করতে দেখা যায়। তার প্রোফাইল ঘুরে দেখা যায়, মাকে নিয়ে গত কয়েকদিনে একাধিক স্মৃতিচারণ করেছেন তিনি। 

Screenshot: Puja Cherry’s facebook story

মূলত, সম্প্রতি চিত্রনায়িকা পূজা চেরি মারা গেছেন দাবিতে টিকটকে এটিএন নিউজের একটি ভিডিও প্রতিবেদন ব্যবহার করে প্রচার করা হয়েছে। তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, পূজা চেরি নয়, উক্ত প্রতিবেদনে পূজার মায়ের মৃত্যুর খবর জানানো হচ্ছিল। মূল ভিডিও প্রতিবেদনটির প্রাসঙ্গিক অডিও কেটে দিয়ে উক্ত দাবিটি প্রচার করা হয়েছে। 

সুতরাং, নায়িকা পূজা চেরি মারা গেছেন দাবিতে টিকটকে প্রচারিত তথ্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img